সকাল ৬:৫১, রবিবার, ২৩শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / খুলনা টাইটানসের কোচ হলেন জয়াবর্ধনে
খুলনা টাইটানসের কোচ হলেন জয়াবর্ধনে
মে ২৬, ২০১৭

বিপিএলের গত আসরে নতুন দল হিসেবে নাম লিখিয়েছিল খুলনা টাইটানস। আর প্রথমবারেই আলো ছড়িয়ে তৃতীয় হয়েছিল দলটি। সেই সাফল্যে উজ্জীবিত হয়ে খুলনা টাইটানস নিয়ে আসছে মাহেলা জয়াবর্ধনেকে। শ্রীলঙ্কার এই ব্যাটিং-কিংবদন্তিকে দুই বছরের জন্য প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে খুলনা। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে টাইটানস।
এবারের আইপিএলের শিরোপাজয়ী মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের কোচের দায়িত্বে থাকা জয়াবর্ধনে গত মৌসুমেও ছিলেন বিপিএলে। তবে গতবার কোচ নয়, ঢাকা ডায়নামাইটসের খেলোয়াড়ের ভূমিকায় ছিলেন তিনি। ২০১৫ বিশ্বকাপ খেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর পর বিশ্বের বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতায় সাফল্যের সঙ্গে খেলছেন শ্রীলঙ্কার এই সাবেক অধিনায়ক। এ মৌসুমে ইংল্যান্ডের টি২০ ব্লাস্টে তিনি খেলবেন ল্যাঙ্কাশায়ারের হয়ে।
জয়াবর্ধনের মতো কিংবদন্তিকে কোচ হিসেবে পেয়ে উচ্ছ্বসিত খুলনা টাইটানসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী ইনাম আহমেদ। তিনি বলেছেন, ‘বিপিএলের আগামী দুই মৌসুমের জন্য টাইটানসের প্রধান কোচ হিসেবে মাহেলা জয়াবর্ধেনেকে নিয়োগ দিতে পেরে আমরা রোমাঞ্চিত। মাঠের মধ্যে তিনি সব সময়ই একজন দুর্দান্ত নেতা। শ্রীলঙ্কার হয়ে তিনি অনেক গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট জিতেছেন। সম্প্রতি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের কোচ হিসেবে তাকে আইপিএল জিততে দেখে আমরা রোমাঞ্চিত। আমি নিশ্চিত, টাইটানসের সবাই তার কাছ থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবে। আর তার উপস্থিতিতে এই টুর্নামেন্ট আরও সমৃদ্ধ হবে।’
গত বছর খুলনার কোচ ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক কোচ স্টুয়ার্ট ল। এবার টাইটানসের দায়িত্ব পেয়ে জয়াবর্ধনে আনন্দিত। তিনি বলেছেন, ‘গত বছর বিপিএলে খেলাটা দারুণ উপভোগ করেছিলাম। তখনই ভালোমতো উপলব্ধি করেছিলাম, ২০১৭ সালের টুর্নামেন্টে সফল হওয়ার জন্য কী প্রয়োজন।’
তিনি আরও বলেছেন, ‘বিপিএল শুধু বাংলাদেশ নয়, পুরো ক্রিকেট বিশ্বের জন্যই একটা উত্তেজনাপূর্ণ টুর্নামেন্ট। প্রতিযোগিতার অন্যতম সম্মানিত ও ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করা দল খুলনা টাইটানস। এই ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে আমি রোমাঞ্চ অনুভব করছি।’
শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক জয়াবর্ধনের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার দারুণ উজ্জ্বল। টেস্ট ক্রিকেটে ৩৪টি সেঞ্চুরি সহ ১১ হাজার ৮১৪ রান করেছেন তিনি। এর মধ্যে ডাবল সেঞ্চুরির সংখ্যা ৭টি। টেস্টে তার চেয়ে বেশি ডাবল সেঞ্চুরি আছে শুধু ডন ব্র্যাডম্যান, কুমারা সাঙ্গাকারা ও ব্রায়ান লারার। ওয়ানডেতেও ব্যাট হাতে দারুণ সফল জয়াবর্ধনে। ১৯টি সেঞ্চুরি সহ ১২ হাজার ৬৫০ রান সেই সাক্ষ্য দিচ্ছে। ২০০৭ ও ২০১১ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে রানার্সআপ এবং ২০১৪ সালে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়া শ্রীলঙ্কা দলের গর্বিত সদস্য তিনি।
অধিনায়ক হিসেবেও জয়াবর্ধনে সফল। শ্রীলঙ্কাকে ৩৮টি টেস্টে নেতৃত্ব দিয়ে ১৮টিতে জয় এনে দিয়েছেন তিনি। ২০০৭ বিশ্বকাপে তিনিই ছিলেন দলের অধিনায়ক।
পুরো ক্যারিয়ারে মোট ৬৫২টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন জয়াবর্ধনে। লঙ্কানদের মধ্যে যা সর্বোচ্চ। এই তালিকায় তার চেয়ে এগিয়ে আছেন শুধু শচীন টেন্ডুলকার। ভারতের ব্যাটিং-গ্রেট খেলেছেন ৬৬৪টি ম্যাচ।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :