রাত ১:২৪, মঙ্গলবার, ২২শে মে, ২০১৭ ইং
/ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি / আয়ারল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারালো বাংলাদেশ
আয়ারল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারালো বাংলাদেশ
মে ১৯, ২০১৭

মুস্তাফিজুর রহমানের দুর্দান্ত বোলিংয়ের পর সৌম্য সরকারের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে আয়ারল্যান্ডকে উড়িয়ে দিলো বাংলাদেশ। আয়ারল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রথম জয় পেলো বাংলাদেশ। ডাবলিনে স্বাগতিকদের দেয়া ১৮২ রানের লক্ষ্য ১৩৭ বল হাতে রেখে ২ উইকেট হারিয়েই ছুঁয়ে ফেলে মাশরাফি বিন মর্তুজার দল। সৌম্য সরকার ৮৭ রানে অপরাজিত থাকেন। ডাবলিনে স্বাগতিকদের ৮ উইকেটে হারিয়ে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে প্রথম জয় পেলো টাইগাররা। আইরিশদের দেয়া ১৮২ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ২৩ ওভার বাকি থাকতেই জয় তুলে নেয় মাশরাফি বিন মুর্তজার দল।
জয়ের টার্গেট ছোটে। তাই হয়তো একেবারে নির্ভার হয়ে খেললেন তামিম ইকবাল। উদ্বোধনী জুটিতে সৌম্য সরকারকে নিয়ে ৮৩ বলে দলের স্কোরে যোগ করেন ৯৫ রান। তাতেই বড় জয়ের ভিত পায় বাংলাদেশ। কেভিন ও’ব্রায়েনের গুড লেংথ বলে উইকেটরক্ষক নায়াল ও’ব্রায়ানের তালুবন্দি হন বাঁহাতি এই ওপেনার। তার আগে ৫৪ বলে ৬ চারে তুলে নেন ৪৭ রান।

ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ের সপ্তম স্থান আর ত্রিদেশীয় সিরিজে শিরোপার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জয়টা জরুরী ছিলো বাংলাদেশের জন্য। যার পথটা তৈরি করেছেন টাইগার বোলাররা। পরে জয়ের পথে স্বাচ্ছন্দেই হেঁটেছেন ব্যাটসম্যানরা। ৩৪ বলে তিন চার আর এক ছক্কায় ৩৫ রানের পুঁজিতে প্যাভিলিয়েনে ফেরেন সাব্বির রহমান। তারপর মুশফিকুর রহিমকে সাথে নিয়ে জয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করেন সৌম্য সরকার। তখন ৮৭ রানে অপরাজিত তিনি। আর মুশফিক ৩ রানে। মুস্তাফিজুর রহমান ২৩ রানে ৪ উইকেট নিয়ে হন ম্যাচ সেরা।

১৮২ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে স্বাগতিক বোলারদের যেন পাত্তাই দিলেন না তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। ১৩ ওভার ৫ বলে ৯৫ রানের ঝড়ো উদ্বোধনী জুটিতে জয়ের ভিত গড়ে দেন তারা। কেভিন ও’ব্রায়েনের স্লোয়ারের ফাঁদে পা দেয়ার আগে তামিমের ব্যাট থেকে আসে ৪৭ রান। এরপরও ঝড় থামাতে পারেননি স্বাগতিক বোলাররা। দ্বিতীয় উইকেটে ১১ ওভারে ৭৬ রানের জুটি গড়ে আয়ারল্যান্ডকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন সৌম্য ও সাব্বির রহমান। সাব্বির ৩৫ রানে বিদায় নিলেও অপরাজিত ৮৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস উপহার দেন সৌম্য। ৬৮ বলে তাঁর ইনিংসটি সাজানো ছিলো ১১ বাউন্ডারি আর দুই ছক্কায়। এটি সৌম্যের ষষ্ঠ ওয়ানডে ফিফটি। তাতে ২৭ ওভারে ২ উইকেটে ১৮২ রান তোলে বাংলাদেশ।

তবে বাংলাদেশের জয়ের লক্ষ্যটা আগেই সহজ করে দেন ‘কাটার মাস্টার’ মুস্তাফিজুর রহমান। টস জিতে আয়ারল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠানো বাংলাদেশ সিদ্ধান্তের যৌক্তিকতা প্রমাণে বেশি সময় নেয়নি। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই পল স্টারলিংয়ের উইকেট তুলে নেন ‘সাতক্ষীরা এক্সপ্রেস’। ধাক্কাটা সামলে নিতে দেননি সাকিব ও মোসাদ্দেক, দলের ৬১ রানের মধ্যে আরও দুই উইকেট তুলে নিয়ে।


এরপর নেইল ও’ব্রায়েন, কেভিন ও’ব্রায়েন এবং গ্যারি উইলসনকে বিদায় করে আয়ারল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপকে ধ্বংসস্তুপে পরিণত করেন মুস্তাফিজ। তাঁর সেই ধার আর নেই—এমন সমালোচকদের বল হাতেই যেন জবাব দিলেন ‘ফিজ’। ৯ ওভারে ২৩ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরাও হন সাতক্ষীরার সন্তান। আইরিশদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৬ রান করা এড জয়েসকে ক্যারিয়ারের প্রথম শিকারে পরিণত করেন স্পিনার সানজামুল ইসলাম। পরে কার্থারকে বিদায় করে অভিষেক ম্যাচটা আরও রঙ্গিন করেন তিনি। ৪৭তম ওভারে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার জোড়া আঘাতে ১৮১ রানেই গুটিয়ে যায় আয়ারল্যান্ডের ইনিংস।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :