বিকাল ৪:০২, রবিবার, ২০শে আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / বার্সাকে হারিয়ে সেমির পথে জুভেন্টাস
বার্সাকে হারিয়ে সেমির পথে জুভেন্টাস
এপ্রিল ১২, ২০১৭

শেষ কয়েক বছর ধরেই একক প্রাধান্য বিস্তার করে ইতালিয়ান লিগের শিরোপা নিজেদের করে নিলেও ইউরোপ সেরার লড়াইয়ে অনেকটাই পিছিয়ে ছিল জুভেন্টাস। দুই বছর আগে ফাইনালে উঠলেও বার্সার কাছে হেরে স্বপ্ন ভঙ্গ হয় দলটির। তাই এবার শেষ আটের লড়াইয়ে সুযোগ ছিল প্রতিশোধের। আর সুযোগটা ভালো মতই কাজে লাগাল তুরিনোর দলটি। আর্জেন্টাইন তারকা দিবালার জোড়া গোলে ঘরের মাঠে বার্সাকে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করে শেষ চারের পথে অনেকটাই এগিয়ে গেল ইতালির পরাশক্তিরা।

মঙ্গলবার রাতে তুরিনোতে ম্যাচের শুরু থেকেই বার্সা শিবিরে আক্রমণ করে খেলতে থাকে জুভেন্টাস। ম্যাচের তৃতীয় মিনিটে গোলের সুযোগও পায় ইতালির দলটি। তবে হিগুয়াইনের হেড সোজা যায় বার্সা গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনের কাছে। এর চার মিনিট পর স্বাগতিকদের লিড এনে দেন আর্জেন্টাইন তারকা দিবালা। ডান দিক থেকে হুয়ান কুদ্রাদোর বাড়ানো বলে ডান পায়ের বাঁকানো শটে বল জালে জড়ান দিবালা।

messi

ম্যাচের ২১ মিনিটে সমতায় ফেরার সুযোগ পেয়েছিল বার্সা। তবে চার ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে মেসির জাদুকরী পাস থেকে বল পেয়ে স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ইনিয়েস্তার নেওয়া শট দারুণ দক্ষতায় ফেরান ৩৯ বছর বয়সী জানলুইজি বুফ্ন। পরের মিনিটে আবার দিবালার যাদু। বাঁ দিক থেকে মারিও মানজুকিচের বাড়ানো বলে বাঁকানো শটে বাঁ পোস্ট ঘেঁষে বল জালে পাঠান আর্জেন্টাইন এই তারকা।

বিরতি থেকে ফিরে ব্যবধানোর লক্ষ্যে আক্রমণের ধার বাড়িয়ে দেয় তুরিনোর দলটি। ম্যাচের ৫৩ মিনিটে হিগুয়াইনের দূরপাল্লার শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ঠেকান টের স্টেগেন। পরের মিনিটে আবারো হিগুয়াইনকে হতাশ করেন বার্সার এই গোলরক্ষক। তবে ৫৫ মিনিটে আর পারেননি। কর্নার থেকে উড়ন্ত বলে মাসচেরানোকে ফাঁকি দিয়ে  হেডে বল জালে জড়ান জর্জো কিয়েল্লিনি।

messi

শেষ দিকে অন্তত মূল্যবান একটি অ্যাওয়ে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে আক্রমণ চালিয়ে বার্সেলোনা। তবে এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মাত্র দুটি গোল খাওয়া জুভেন্টাসের রক্ষণ ভাঙতে পারেননি মেসি, নেইমার, সুয়ারেজরা।

এদিকে এখনো শেষ হয়নি বার্সার শেষ চারের আশা। শেষ ষোলোর ম্যাচে প্যারিসে ৪-০ গোলের হারের পর ঘরের মাঠে ৫-১ গোলে হারিয়ে শেষ আটে ওঠার ইতিহাস গড়া বার্সেলোনা কি পারবে আবার সেই রূপকথার জন্মদিতে, তা সময়ই বলে দিবে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :