সকাল ৮:৩৭, মঙ্গলবার, ২৫শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / ভারতে নিজেদের প্রমাণ করতে চান মুশফিক
ভারতে নিজেদের প্রমাণ করতে চান মুশফিক
ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৭

১৭ বছর হলো বাংলাদেশ টেস্ট খেলছে। এই সময়ের মধ্য একবারের জন্যও ভারত সফর করেনি বাংলাদেশ। কারণ ভারত টেস্ট খেলুড়ে দেশের সবচেয়ে ‘নবীন’ দেশকে আমন্ত্রণ জানায়নি। ৯ ফেব্রুয়ারি সেই মাহেন্দ্রক্ষণ, যে দিন ভারতের মাঠে টেস্ট খেলতে নামবে মুশফিকরা।

বাংলাদেশ অবশ্য ভারতের মাটিতে নিজেদের প্রমাণ করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। যে করেই হোক নিজেদের প্রমাণ করতে চান মুশফিক, যাতে ভারত নিয়মিত তাদের দেশে বাংলাদেশকে খেলতে আমন্ত্রণ জানায়। যদিও মুশফিক এই টেস্টকে ঐতিহাসিক বলতে চাইছেন না। দেশ ছাড়ার আগে বুধবার সংবাদ সম্মেলনে মুশফক বলেছেন, ‘আমি একটু অবাকই হই, আমার কাছে এটা ঐতিহাসিক ধরনের কিছু মনে হয় না। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট খেললে বেশি চাপ থাকে। কারণ তাদের কাছে হারলে অনেক ব্যাপার থাকে। ওখানে আমাদের অনেক কিছু করার আছে। পাঁচ বছর আগের চেয়ে এখন ভারতে যাওয়া মানে আমাদের ভালো কিছু করার আছে। ভারতের মাটিতে আমরা কেমন খেলি, সেটা প্রমাণ করার আছে। এটা স্বাভাবিক একটা টেস্ট ম্যাচ। ওখানে এমন পারফর্ম করতে চাই, যাতে ভারত আমাদের বারবার আমন্ত্রণ জানায়।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘নিজেদের মাটিতে ভারত খুব ভালো শক্তিশালী দল। আমরা স্কোয়াড দেখেছি, শক্তিশালী স্কোয়াড। তাদের বিপক্ষে আমরা দুই-তিন দিন নয়, বরং পুরো পাঁচ দিন ভালো খেলতে চাই।’

ভারত সিরিজে ব্যাক্তিগত পারফরম্যান্সের চেয়ে দলগত পারফরম্যান্সের দিকে মনোযোগ দিতে হবে বলে জানিয়েছেন মুশফিক, ‘গত দুই বছরে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দারুণ ক্রিকেট খেলছি আমরা। কিন্তু টেস্টে অতটা ভালো হচ্ছিল না, তবে গত দুই সিরিজে টেস্টেও আমরা ভালো খেলেছি। কিন্তু দুটি সিরিজে সীমিত ওভারে আমাদের খুব একটা ভালো হয়নি। তারপরও কিছু ব্যক্তিগত ভালো পারফরম্যান্স ছিল। যদিও ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স নয়, দরকার হলো দলগত পারফরম্যান্স।’ সবার কাছে ভালো কিছুর আশা অধিনায়কের, ‘যারা এতদিন ভালো খেলেছে, আশা করি তারা সেটা ধরে রাখবে। আর যারা ভালো খেলতে পারেনি, তারা এখন নিজেদের মেলে ধরবে। দলীয় প্রচেষ্টাটা দরকার, তাহলে ভালো রেজাল্ট হবে।’

নিউজিল্যান্ড থেকে ফিরে এক সপ্তাহ বিশ্রাম পেয়েছেন ক্রিকেটাররা। দুই দিন অনুশীলন করে বৃহস্পতিবার দুপুরে দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ। ভারতে গিয়ে এক সপ্তাহের মতো অনুশীলন করার সুযোগ পাচ্ছে মুশফিকরা। হঠাৎ করে ভিন্ন কন্ডিশনে খেলতে নামাটা কঠিন কিনা, জানতে চাইলে মুশফিক বলেছেন, ‘যেমন কন্ডিশনই হোক না কেন, আমরা সেভাবেই প্রস্তুতি নিয়েছি। আমাদের দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে নানা রকম বৈচিত্র্য আছে। পেস বোলিং অলরাউন্ডার আছে, স্পিন বোলার অলরাউন্ডার আছে, ব্যাটিং গভীরতাও অনেক। সুতরাং যে কন্ডিশনই হোক, আমরা সেভাবেই খেলব।’

মুশফিক আরও যোগ করেছেন, ‘আমরা দুদিন ধরে ওই কন্ডিশনের মতো অনুশীলন করেছি। যদিও আমাদের ব্যাটসম্যানের কাজ কঠিন হবে। ভারতের বোলিং এখন অনেক ভালো। আমাদের বোলিংও নিঃসন্দেহে ভালো। আমরা যদি ক্যাচগুলো ঠিকঠাক নিতে পারি, তবে আমাদের বোলিং যে কোনও টেস্ট দলের বিপক্ষেই ভালো করবে।’

ইমরুলের ইনজুরিতে ওপেনিং নিয়ে কোনও দুচিন্তা নেই বলে জানিয়েছেন মুশফিক, ‘ইমরুল গত বছর অনেক রান করেছে। আর ইমরুল কিন্তু তামিমের পরই আমাদের অটোমেটিক চয়েস। আমার মনে ওর কোনও বিকল্প আমাদের দলে নেই। ইমরুলের ইনজুরির পর সৌম্য দারুণ খেলেছে। এটা দারুণ ব্যাপার। আমাদের ভালো কিছু ব্যাকআপ খেলোয়াড় আছে।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :