বিকাল ৩:৫৮, শনিবার, ২৭শে মে, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / ফলোঅন না করিয়ে ব্যাটিংয়ে ভারত
ফলোঅন না করিয়ে ব্যাটিংয়ে ভারত
ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৭

প্রথম ইনিংসে ৬৮৭ রানের বিশাল ইনিংসের নিচে চাপা দেয়ার পর সবাই ভেবেছিল বাংলাদেশ হয়তো বিশাল রান দেখেই ভড়কে যাবে। দ্রুত অলআউট হয়ে প্রথম ইনিংসেই অনেক দূরে থাকবে। তবে, বাংলাদেশকে ২৯৯ রান দূরে রেখে অলআউট করে দেয়ার পরও ফলোঅন না করিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করছে ভারত।

এমনিতেই টেস্টে নিয়ম হচ্ছে, ২০০ রানের ব্যবধান থাকলেই ফলো অন করানো যায়। ভারতের ৬৮৭ রানের জবাবে ৩৮৮ রানেই অলআউট বাংলাদেশ। অধিনায়ক মুশফিকুর রহীমের সাহসী সেঞ্চুরিতে জবাবটা ভালোই দিয়েছে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। তাতেও লাভ হলো না। ভারতের প্রথম ইনিংস আর বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসের ব্যবধান ২৯৯। তাতেও দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

বাংলাদেশের বিপক্ষে এই টেস্টের পরই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতের হোম সিরিজ। সেই সিরিজকে সামনে রেখেই হয়তো ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা বাংলাদেশের বিপক্ষে এই টেস্টকে নিয়েছে ব্যাটিং প্র্যাকটিস হিসেবে। কিংবা, হতে পারে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ৩৮৮ রান করেছে। ফলোঅন করিয়ে যদি আবার বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠানো হয়, তাহলে তারা যদি উইকেট কামড়ে থেকে আজকের দিন কিংবা আগামীকালও পার করে দেয়! তাহলে তো টেস্ট ড্র। নিশ্চিত জয়ের সুযোগ হাতছাড়া।

কোহলিরা হয়তো এক সেশন ব্যাট করে আরও ১২০ কিংবা ১৫০ রান যোগ করে দিয়ে ছেড়ে দেবে বাংলাদেশের সামনে, তাতে বিশাল রান তাড়া করতে নেমে দ্রুত অলআউট হওয়ার সুযোগ রয়েছে বাংলাদেশের। আবার এমনও হতে পারে, প্রায় চারটা সেশন বল করার পর ভারতীয় বোলারদেরকে আর বেশি চাপে ফেলতে রাজি ছিলেন না বিরাট কোহলি। এ কারণেই তিনি বাংলাদেশকে ফলোঅন না করিয়ে আবার ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিলেন। আবার চতুর্থ ইনিংসে ব্যাট করার রিস্ক না নেয়ার চেয়ে তৃতীয় ইনিংসে ব্যাট করাকেই হয়তো স্রেয় মনে করলেন মুশফিক।

যে কারণেই সিদ্ধান্তটা নিয়ে থাক বিরাট কোহলি, এটা অন্তত নিশ্চিত হলো ইনিংস পরাজয় ঘটছে না বাংলাদেশের। আবার দ্বিতীয় ইনিংসে যদি ভালো ব্যাটিং করতে পারে মুশফিকরা, তাহলে নিশ্চিত ড্র করারও সুযোগ থাকছে বাংলাদেশের।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :