সকাল ৯:৪৫, সোমবার, ২৬শে জুন, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / শিরোপার আরো কাছে আবাহনী
শিরোপার আরো কাছে আবাহনী
ডিসেম্বর ১৫, ২০১৬

নির্ধারিত ৯০ মিনিট শেষে ম্যাচ গড়িয়েছে যোগ হওয়া সময়ে। আবাহনীর বিপক্ষে ২-১ গোলে এগিয়ে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। কিন্তু বাড়িয়ে দেয়া ৪ মিনিটে বদলে গেলো সবকিছু। ১-২ গোলে পিছিয়ে থাকা আবাহনী নাটকীয়ভাবে ৩-২ ব্যবধানে ম্যাচ জিতে পৌঁছে গেলো শিরোপার আরো কাছে।

ম্যাচ শেষে ফল নিয়ে উঠলো নানা প্রশ্ন। শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের ডাগআউটে উত্তেজনা-এক কর্মকর্তার নাম ধরে খেলোয়াড়দের গালাগালি। বেশি উত্তেজিত ছিলেন শেখ জামালের দুই গোলদাতা নাইজেরিয়ান এমেকা ডার্লিংটন ও গাম্বিয়ান ল্যান্ডিং। ইনজুরি সময়ে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ২ গোল খাওয়াটা মেনে নিতে পারছিলেন না দুই ভিনদেশি।

এমন কেন হলো? জবাবটা শুনুন ক্লাবটির ম্যানেজার কাজী জোসিম উদ্দিন জোসীর কাছ থেকে ‘আমার পক্ষ থেকে ম্যাচ ছেড়ে দেয়ার কোনো নির্দেশনা ছিল না।’ পাতানো খেলার ফিসফিসানি প্রসঙ্গে আবাহনীর ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপুর প্রতিক্রিয়া ‘কারা এসব বলে? যতসব ফালতু কথা। আমাদের ২টা নিশ্চিত পেনাল্টি দেননি রেফারি। আমরাই তো হারতে বসেছিলাম।’

৮৯ মিনিটে ইমন মাহমুদ বাবুর পরিবর্তে মাঠে নেমেছিলেন নাবিব নেওয়াজ জীবন। এর আগে গোটাদশেক ম্যাচ খেলেছেন বদলি হিসেবে। স্ট্রাইকার, কিন্তু কোনো গোল ছিল না তার নামের পাশে। বৃহস্পতিবার মাঠে নামার ৪ মিনিটের মধ্যে দুই গোল করলেন জীবন-যেন জাদুর কাঠি পেয়ে গিয়েছিলেন তিনি। জীবনের জন্য এটা বিরল কৃতিত্বই। তাতে যেন সহায়তা করলেন শেখ জামালের ডিফেন্ডাররা-অনেকটা বাধাহীনভাবেই দুইবার জালে বল পাঠিয়েছেন জীবন।

৪৩ মিনিটে জুয়েল রানার গোলে এগিয়ে গিয়েছিল আবাহনী। দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরুর ৩ মিনিটের মধ্যে শেখ জামালকে ম্যাচে ফেরান গাম্বিয়ান ল্যান্ডিং। ৮১ মিনিটে এমেকার গোলে লিড নেয় শেখ জামাল। বাকি সময়ের গল্পতো পুরোনো।

নাটকীয় এ জয়ে চট্টগ্রাম আবাহনীর সঙ্গে পার্থক্যটা আরো বাড়িয়ে নিলো আবাহনী। ২০ ম্যাচে চারবারের চ্যাম্পিয়নদের সংগ্রহ ৪৬ পয়েন্ট। এক ম্যাচ কম খেলা চট্টগ্রাম আবাহনীর পয়েন্ট ৪০। পঞ্চমবারের মতো বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে চ্যাম্পিয়ন হতে শেষ ২ ম্যাচ থেকে আবাহনীর দরকার ৪ পয়েন্ট। কোটানের দলের শেষ দুই প্রতিপক্ষ রহমতগঞ্জ ও উত্তর বারিধারা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :