সন্ধ্যা ৭:০০, বৃহস্পতিবার, ১৯শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / রাজশাহীকে ১১২ রানের লক্ষ্য দিল চিটাগাং
রাজশাহীকে ১১২ রানের লক্ষ্য দিল চিটাগাং
ডিসেম্বর ৩, ২০১৬

এ এক অবিশ্বাস্য বোলিং। সিনিয়র কোন দলে এই প্রথম জার্সি উঠলো তার গায়ে। বয়স মাত্র ১৭ বছর। এই বয়সেই কি না বিপিএল খেলতে নেমে গেলেন রাজশাহীর জার্সি পরে এবং মাঠে নেমেই রীতিমত চমকে দিলেন তিনি। মাত্র ২১ রান দিয়েই নিলেন ৫ উইকেট। তার ঘূর্ণি তোপেই ১১১ রানে থমকে গেলো তামিম-গেইলদের দল চিটাগাং ভাইকিংস।
তবুও চিটাগাংয়ের এই রান তোলার পেছনে সবচেয়ে বড় অবদান পাকিস্তানি শোয়েব মালিকের। আফিফ হোসেনের ঘূর্ণি তোপে যেভাবে চিটাগাংয়ের উইকেট পড়ছিল, সেটা সামনে এক প্রান্ত আগলে রেখে ৬৭ রান করেন শোয়েব মালিক। তার ব্যাটে ছড়েই তিন অংকের ছোঁয়া পায় চিটাগাং।
টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন রাজশাহী অধিনায়ক স্যমি। ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই বিপর্যয়ে পড়ে চিটাগাং। ইনিংসের প্রথম বলেই শূন্য রানে ফিরে যান তামিম ইকবাল। দলীয় ৯ রানে ফিরে যান এনামুল হক বিজয়। দলীয় ২৪ রানে ফিরলেন জহুরুল ইসলাম অমি এবং ২৯ রানে ফিরে যান ক্রিস গেইল। ১৫ বল খেলে গেইলের মত ব্যাটসম্যান করলেন ৫ রান।
আফিফ হোসেন ধ্রুবর ঘূর্ণিতে দিশেহারা হয়ে চিটাগাং একের পর এক উইকেট হারাতে শুরু করে। জাকির হাসান, মোহাম্মদ নবি, সাকলায়েন সজিব, ইমরান খানদের সাজঘরে ফিরিয়ে দেন রাজশাহীর বোলাররা।
তবে শেষ দিকে বেশি স্ট্রাইক নিয়ে শোয়েব মালিক একাই লড়াই করে যান। চিটাগাংয়ের মোট রানের অধেকেরও বেশি আসলো তার ব্যাট থেকে। ৫৪ বলে অপরাজিত ৬৭ রান করেন শোয়েব মালিক।
২১ রান দিয়ে একাই ৫ উইকেট নিলেন আফিফ হোসেন ধ্রুব। ২ উইকেট নিলেন কেসরিক উইলিয়ামস, একটি করে নেন মেহেদী হাসান মিরাজ এবং নাজমুল ইসলাম।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :