দুপুর ১:১৯, সোমবার, ২৪শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / শেখ কামাল টুর্নামেন্টের পালে হাওয়া
শেখ কামাল টুর্নামেন্টের পালে হাওয়া
নভেম্বর ১৫, ২০১৬

একবার আয়োজনের পরই শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ নিয়ে তৈরী হয়েছিল অনিশ্চয়তা। চট্টগ্রাম আবাহনী আয়োজিত এ টুর্নামেন্টটি বাইরে রাখা হয়েছিল আগামী সাড়ে ৩ বছরের জন্য করা বাফুফের খসড়া ক্যালেন্ডারের।

একইভাবে অনিশ্চত হয়েছিল বঙ্গবন্ধু কাপের ভাগ্যও। তবে বাফুফে পরবর্তীতে এ দুটি টুর্নামেন্ট ক্যালেন্ডারে অন্তর্ভূক্ত করায় আগামী ৫-৬ মাসের মধ্যে দুটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট পাচ্ছে ফুটবলপ্রিয় মানুষ।

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ও শেখ কামাল টুর্নামেন্ট হবে-তিন দিন আগে বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন এটি জানানোর পর আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনী নড়েচড়ে বসেছে শেখ কামাল টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য।

এক কথায় হাওয়া লেগে গেছে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক কাপের পালে। আজ (সোমবার) টুর্নামেন্ট নিয়ে বাফুফের সঙ্গে আলোচনাও করেছেন চট্টগ্রাম আবাহনীর কর্মকর্তারা। আগামী বছর মধ্য ফেব্রুয়ারিতে হবে ক্লাবভিত্তিক এই আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্ট।

তবে আসরটি ২০১৬ না হবে ২০১৭ মৌসুমের সে সিদ্ধান্তটা ঝুলে আছে। ২০১৫ সালে হয়েছিল প্রথম আসর। ঘোষণা ছিল হবে প্রতি বছরই । কিন্তু এ বছর আর হচ্ছে না। দুই পক্ষের আলোচনায় একটি সিদ্ধান্ত হয়েছে-বর্ষপঞ্জিতে ২০১৮ সাল থেকে নিয়মিতভাবে এবং একটি নির্ধারিত সময়ে অনুষ্ঠিত হবে এ টুর্নামেন্ট।

চট্টগ্রাম আবাহনীর ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান তরফদার মো. রুহুল আমিন জানিয়েছেন, ‘ক্লাব প্রতিষ্ঠাতার নামে টুর্নামেন্ট। এর পরিধি বাড়াতে হবে। এবার দক্ষিণ এশিয়ার বাইরে আসিয়ান অঞ্চলেও এ টুর্নামেন্টের নাম ছড়াতে চাই। তাই আসিয়ান অঞ্চলের ক্লাবও আনা হবে। থাইল্যান্ড ও মালয়েশিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়নদের আমন্ত্রণ জানাবো। এছাড়া ভারতের দুটি, আফগানিস্তান ও নেপালের লিগ চ্যাম্পিয়ন ক্লাব আসবে। আমরা সকল দেশের সর্বশেষ মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন ক্লাবকে আনতে চাই। সংশ্লিষ্ট ফেডারেশগুলোকে সেভাবে অনুরোধ করব।’

বাংলাদেশের কয়টি দল খেলবে চুড়ান্ত হয়নি। আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনী, প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দলের খেলার সিদ্ধান্ত রয়েছে। যদি স্বাগতিকরা রানার্সআপ হয়, সেক্ষেত্রে তৃতীয় দল সুযোগ পাবে কিনা-সে সিদ্ধান্তটা এখনো বাকি।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :