রাত ৪:৩১, শুক্রবার, ৩০শে মার্চ, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / কোচ নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত বাফুফের
কোচ নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত বাফুফের
নভেম্বর ২২, ২০১৬

বিষয়টা অবশেষে বেশ জটিল আকারই ধারণ করলো। স্বাগতিক হিসেবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই সফরকারী দল ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের যে দৈনিক ভাতা দেয়ার কথা, প্রায় ১৯ দিন পার হয়ে গেলেও তা দেয়ার কোনো নাম নেই। একদিন আগেই মিডিয়ায় বেশ ফলাও করে প্রচার হয়েছিল ওই খবরটি।

অবশেষে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) আনুষ্ঠানিকভাবেই ক্রিকেটারদের প্রাপ্য দৈনিক ভাতা চেয়ে বসলো ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআইর কাছে। ভারত সফরে ইংল্যান্ডের টিম ম্যানেজার ফিল নেইল আনুষ্ঠানিকভাবেই বিসিসিআইর কাছে অনুরোধ পাঠিয়েছেন, তার দলের ক্রিকেটারদের সফরকালীন ভাতা পরিশোধ করার জন্য।

ক্রিকেটে দ্বিপক্ষীয় সিরিজের নিয়মই হলো, স্বাগতিক দেশ সফরকারী দেশের ক্রিকেটারদেরকে দৈনিক ভাতা প্রদান করবে। শুধু তাই নয়, সিরিজ আয়োজনসহ সফরকারী দলের যাবতীয় ব্যায়ভার স্বাগতিকদেরই বহন করতে হবে।

কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কার্যক্রম নিয়ন্ত্রনে সুপ্রিম কোর্ট কর্তৃক নিয়োগকৃত লোধা কমিশনের সঙ্গে বিরোধের কারণে বিসিসিআই এখন স্বাভাবিক কার্যক্রমই ঠিকমত পরিচালনা করছে না। সিরিজ শুরুর আগেই তারা ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের কাছে অনুরোধ চিঠি পাঠিয়েছিল যে, সফরকালে যেন তারা নিজেরাই নিজেদের খরচ বহন করে।

তবে, ভারত সফরে অন্য খরচের ব্যাপারগুলো যাই থাক, সফরকারী ক্রিকেটারদের দৈনিক ভাতা দেওয়ার কথা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের। ১৯ দিন পার হয়ে যাওয়ার পরও বিসিসিআই এখনও পর্যন্ত এই ভাতা দিচ্ছে না। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ইংল্যান্ড দলের টিম ম্যানেজার ফিল নেইল অনুরোধ বার্তা পাঠিয়েছেন বিসিসিআই দপ্তরে।

নিয়ম অনুযায়ী ইংল্যান্ডের প্রতিটি ক্রিকেটার এবং স্টাফ দিন প্রতি ৫০ পাউন্ড করে বিসিসিআইর কাছ থেকে ভাতা পাওয়ার কথা। একই সঙ্গে ইংল্যান্ড দলের যাবতীয় ব্যায়ভারই তাদের বহন করার কথা; কিন্তু সফরের শুরু থেকে আইসিসি থেকে নিয়োগকৃত ম্যাচ অফিসিয়াল (রেফারি, আম্পায়ারসহ অন্য স্টাফরা) এবং ভারতীয় ক্রিকেটাররা দৈনিক ভাতা পেলেও ইংলিশ ক্রিকেটাররা এখনও কোনো কিছুই পাননি।

গত ১৯ দিনে তাই ১৭ ইংলিশ ক্রিকেটার এবং দলের অন্য ১৬ জন স্টাফের মোট ভাতা জমেছে ৮০ হাজার পাউন্ড (প্রায় ৮০ লাখ টাকা)।

ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের সদস্য এবং কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, দৈনিক ভাতার বিষয়টি বড় কোন ইস্যু নয়। তবে, দলের ভেতরকার একটি সূত্র ভারতীয় মিডিয়াকে জানিয়েছে, এটা ভারতের আচরণের একটি খারাপ দিক তুলে ধরছে তাদের কাছে। এটা ছোট হলেও দিনে দিনে বড় আকার ধারণ করছে। ইংল্যান্ড দলের ম্যানেজারের অনুরোধ জানানো থেকেই বিষয়টা পরিস্কার হয়ে উঠেছে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :