রাত ৯:৪৮, শনিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / সাব্বিরকে কৃতিত্ব দিতেই হবে’
সাব্বিরকে কৃতিত্ব দিতেই হবে’
অক্টোবর ২৩, ২০১৬

অভিষেক টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ক্যারিয়ারের প্রথম হাফসেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন সাব্বির রহমান। চতুর্থ দিন শেষে সাব্বির অপরাজিত আছেন ৫৯ রানে। প্রথমে মুশফিকের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ ৮৭ ও পরে তাইজুলকে সঙ্গে নিয়ে অপরাজিত ১৫ রানের জুটি গড়েন সাব্বির। এমন দুর্দান্ত ইনিংস খেলার পর খুব স্বাভাবিকভাবেই প্রধান কোচের প্রশংসা কুড়ালেন জাতীয় দলের এই বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান।

সাব্বিরের প্রশংসা করতে গিয়ে হাথুরুসিংহে বলেছেন, ‘সব বাধার পরও সে দ্বিতীয় ইনিংসে যেভাবে ব্যাট করেছে, সেটা দেখে আমি খুবই খুশি। সে অনেক সময় টিকে ছিল। আমার দেখা সবচেয়ে কঠিন উইকেটে অনেক চাপের মাঝেও সে তার মনোযোগ ধরে রেখেছিল। কৃতিত্ব সাব্বিরকে দিতেই হবে।’

সাব্বিরকে কৃতিত্ব দিলেও কোনও অংশেই ছোট করে দেখছেন না অন্য ব্যাটসম্যানদের ইনিংসগুলোকে। এমনকি ৯ রানে সাজঘরে ফিরে যাওয়া তামিমের ইনিংসটি মহামূল্যবান বলে জানিয়েছেন জাতীয় দলের প্রধান কোচ।

তামিম প্রায় ১০ ওভার পর্যন্ত ক্রিজ আকড়ে ছিলেন। ৩৩ বলে করেছেন ৯ রান। বলটি পুরনো করতে তামিমের অবদানও গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন হাথুরুসিংহে, ‘ইমরুল ৪৩ এবং তামিমের ৯ রানও বেশ গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আমি ওদের রানকে ৫০ রানের মূল্য দিতে চাই। আপনি যদি দেখেন নতুন বলে সব সময়ই উইকেট যাচ্ছিল।’

তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘আমরা এখন যে অবস্থায় আছি এটা সম্ভব হয়েছে রিয়াদ, সাব্বির এবং মুশফিকের পারফরম্যান্সের কারণেই।’

এই উইকেটে ব্যাটিং করা খুব কঠিন। কেননা প্রথম দিন থেকেই উইকেটে বেশ টার্ন ছিল। দিন গড়ানোর সঙ্গে টার্নের পাশাপাশি বল স্লো এবং লো হতেও দেখা যায়। এ কারণে এমন উইকেটে বাংলাদেশের ব্যাটিং পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট দেখালো হাথুরুসিংহকে, ‘কন্ডিশন অনুযায়ী আমাদের ব্যাটসম্যানরা ভালো ব্যাটিং করেছে। এখানে ব্যাটিং করাটা অন্য যে কোনও উইকেটের চেয়ে অনেক কঠিন। বিশেষকরে নতুন বলে টিকে থাকাটা ভীষণ কঠিন। যা প্রথম তিন ইনিংসে স্পষ্ট হয়েছে।’

টেস্ট ক্রিকেটে ক্ষণে ক্ষণে রং বদলায়। বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার প্রথম টেস্টেও এমনটাই হয়েছে। তাই তো হাথুরুসিংহে বলেছেন, ‘আসলে এটাই টেস্ট ক্রিকেটে সৌন্দর্য্য। আমরা ভালো একটি ম্যাচ দেখলাম। দুই দলের খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে সত্যিই আমি অভিভূত।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :