সন্ধ্যা ৭:৫৮, শুক্রবার, ২৮শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / গোলের দেখা পাবে কি বাংলাদেশ?
গোলের দেখা পাবে কি বাংলাদেশ?
অক্টোবর ৯, ২০১৬

গত পাঁচটি আন্তর্জাতিক ম্যাচে কোনও গোল করতে না পারা বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল কাল সোমবার সন্ধ্যা ছয়টায় ভুটানের বিপক্ষে খেলবে এশিয়া কাপ প্লে-অফ-২-এর অ্যাওয়ে ম্যাচ। থিম্পুতে কৃত্রিম টার্ফ, সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে সাত হাজার ফুট উচ্চতার অপরিচিত কন্ডিশন, ভুটানের সঙ্গে কোনও পর্যায়ে না হারার রেকর্ড; সবকিছু মিলিয়ে বাংলাদেশের জন্য এক কঠিন পরীক্ষা হিসেবেই অপেক্ষা করছে ম্যাচটি।

তবে বাংলাদেশ যে বিষয়টিতে উজ্জীবিত হতে পারে সেটা হলো ২৮ ডিসেম্বর ২০১৫ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সর্বশেষ যে ম্যাচটি জিতেছিল তা ভুটানেরই বিপক্ষে ছিল। ওই ম্যাচে স্কোরলাইন ছিল ৩-০। এরপর থেকেই খেই হারাতে থাকে বাংলাদেশ দল। আমিরাতের বিপক্ষে একট প্রস্তুতি ম্যাচে ৬-১, জর্ডানের বিপক্ষে ৮-০,তাজিকিস্তানের বিপক্ষে ৫-০ ও ১-০, মালদ্বীপের বিপক্ষে প্রদর্শনী ম্যাচে ৫-০-তে হার ও ঢাকায় ভুটানের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে লাল-সবুজরা। অর্থ্যাৎ ছয় ম্যাচে একটি গোল ও টানা পাঁচটি ম্যাচে গোল না করার রেকর্ড নিয়ে কালকের ম্যাচ খেলতে নামবে টম সেইন্টফিটের দল।

জিতলে তো কথাই নেই হোম ম্যাচে গোলশূন্য ড্র করায় বাংলাদেশের সামনে যে সুবিধাটুকু আছে তা হলো ১-১ বা ২-২-এর যে কোনও ব্যবধানে ম্যাচ ড্র করলেই অ্যাওয়ে ম্যাচে গোল করার সুবাদে বাংলাদেশ বাছাই পর্ব টপকে যাবে। তবে সেক্ষেত্রে বাংলাদেশকে গোল খরা কাটাতেই হবে। তাই বাংলাদেশের বেলজিয়ান হেড কোচ টম সেইন্টফিট জানেন সহজ হবে না ম্যাচটি, ‘আমাদের সামনে কাল কঠিন সময় অপেক্ষা করছে। ভুটানের বিপক্ষে জয় ও এশিয়া কাপের চূড়ান্ত পর্বে যাওয়ার স্বপ্নে আমরা আত্মবিশ্বাসী। ম্যাচটি কঠিন কারণ ভুটান সাম্প্রতিক সময়ে অনেক উন্নতি করেছে এবং তাদের চেমেচো ও দর্জির মতো ভালো খেলোয়াড় রয়েছে। এরা আমাদের জন্য বিপদ ডেকে আনতে পারে।’

ভুটান মানেই কন্ডিশন নিয়ে ভাবনা। আর সেই কন্ডিশন সম্পর্কে সেইন্টফিটের ব্যাখ্যা, ‘ উচ্চতা আমাদের জন্য কিছুটা সমস্যা। এটি কাটিয়ে উঠতে পারবো বলে আমরা মনে করি। তবে আবহাওয়া ও টার্ফে আমাদের কোনও সমস্যা হবে না।’

তিনি আরও যোগ করে বলেন, ‘আমরা ড্র করলেই চূড়ান্তপর্বে চলে যাবো। তবে মাঠভর্তি ভুটানি সমর্থকদের সামনে চাপ থাকবে। আমরা ইতিবাচক মনোভাব নিয়েই মাঠে নামবো। দলে কোনও ইনজুরি সমস্যা নেই তবে মায়ের মৃত্যুর কারণে ইমন বাবুর দেশে ফেরা একটা শূন্যতা সৃষ্টি করেছে । আশা করি আমরা এ ঘাটতি পূরণ করতে পারবো।’

ভুটানে গেলেও দলের অধিনায়ক এখনও চূড়ান্ত হয়নি। এ প্রসঙ্গে কোচ বলেছেন, ‘যদি মামুনুল ইসলাম একাদশে থাকে তবে সেই হবে অধিনায়ক। না হলে আশরাফুল ইসলাম রানাই অধিনায়কত্ব করবে।’

এদিকে শেষ পর্যন্ত লড়ার হুমকি দিয়ে রাখলেন ভুটানের জার্মান কোচ টরস্টেন স্পিটলার। তিনি বলেছেন, ‘নিজের মাঠে এমন উচ্চতায় ভুটানের কিছুটা সুবিধা রয়েছে। বাংলাদেশের কোচ তীক্ষ্ণ বুদ্ধিসম্পন্ন এবং তিনি জানেন ম্যাচে কখন কী করতে হবে। তবে আমরা শেষ মিনিট পর্যন্ত লড়বো। ম্যাচে জয়ের সম্ভাবনা ৫০-৫০ শতাংশ।’

প্রতিপক্ষ সম্পর্কে বেশ ভালোই সচেতন ভুটান কোচ। তার ব্যাখ্যায় ফুটে উঠে সে বিষয়টিও, ‘বাংলাদেশেরবেশ কয়েকজন প্রতিভাবান খেলোয়াড় রয়েছে, যারা ম্যাচ যে কোনও সময় ঘুরিয়ে দিতে সক্ষম। বাংলাদেশের মিডফিল্ডার ইমন বাবুর মার মৃত্যুতে আমরাও শোকাহত। ’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :