সকাল ১১:৪০, শনিবার, ২৯শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / ইংলিশদের বিপক্ষে তামিমের তৃতীয় সেঞ্চুরি
ইংলিশদের বিপক্ষে তামিমের তৃতীয় সেঞ্চুরি
অক্টোবর ২৮, ২০১৬

ঢাকা টেস্টের প্রথম ইনিংসে দারুণ ব্যাটিং করে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। এ নিয়ে ইংলিশদের বিপক্ষে তামিমের সেঞ্চুরির সংখ্যা তিনে দাঁড়ালো। যদিও ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এটাই তামিমের প্রথম সেঞ্চুরি। এর আগের দুটি সেঞ্চুরি ছিল লর্ডস ও ম্যানচেস্টারে। আর তামিম ইকবালের সবচেয়ে ভালো গড় ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই।! ৬ ম্যাচে ১১ ইনিংসে ৬৩.২৭ গড়ে তামিম করেছেন ৬৯৬ রান। আট সেঞ্চুরির তিনটিই তিনি পেয়েছেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। এখন পর্যন্ত নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সেঞ্চুরি করা হয়নি তামিমের।
শুক্রবার তামিম ইকবাল ২০১০ সালের লর্ডস ফিরিয়ে আনলেন মিরপুরের ২২ গজে। সেদিনের তরুণ তামিম এখন জাতীয় দলের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। অভিজ্ঞ হাতে মাঠের চারদিকে দারুণ সব শট খেলে প্রতিপক্ষ বোলারদের মধ্যে ভীতি ছড়িয়ে দিয়েছেন।

মঈন আলীকে পর পর দুই বলে চার মেরে সেঞ্চুরি স্পর্শ করেন। ১৩৯ বলে ১২ চারে তামিম ইকবাল ক্যারিয়ারের অষ্টম এই সেঞ্চুরি পূরণ করেন। যা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তৃতীয় সেঞ্চুরি।

যদিও ম্যাচে দুইবার বেঁচে গিয়েছিলেন তামিম! একবার অন ফিল্ড আম্পায়ার আউট না দিলে রিভিউ আবেদন করে ইংল্যান্ড। কিন্তু তামিমের পক্ষেই রায় দেন থার্ড আম্পায়ার। তখন ৪৭ রানে ছিলেন তামিম।

দ্বিতীয় জীবনটি পান ২৮তম ওভারে। তামিম ৬৬ রান নিয়ে ব্যাটিং করছিলেন। স্টোকসের বলে বেয়ারস্টোর হাতে তালুবন্দী হওয়ার আবেদন তোলেন ইংলিশরা; আর তাতেই আঙুল তুলে দেন ফিল্ড আম্পায়ার ধর্মসেনা। কিন্তু তামিম রিভিউ নিয়ে এই যাত্রায় বেঁচে যান। অবশ্য শেষ পর্যন্ত সেই রিভিউতেই ফিরে যেতে হয় তামিমকে।

১০৪ রান নিয়ে খেলতে থাকা তামিম মঈন আলীর অফস্ট্যাম্পের বাইরের একটি বল ছেড়ে দিলে বলটি প্যাডে আঘাত হানে। ইংলিশ শিবিরে আবেদন হলে আঙুল তোলেন আম্পায়ার। তামিম রিভিউ চাইলেও এই যাত্রায় আর বাঁচতে পারলেন না। ইংল্যান্ডের বিপেক্ষ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১০৪ রান নিয়েই ফিরে যেতে হয় তামিমকে। ১৪৭ বলে ১২ চারে তামিম ইকবাল তার ইনিংসটি সাজিয়েছেন।

এর আগে ৫০ রান ছুতে তামিম খেলেছেন ৬০ বল। পরের হাফসেঞ্চুরি এসেছে ৭৯ বল থেকে। জাফর আনসারির বল সোজা ব্যাটে খেলে ৩ রান নিয়ে ৫০ রানের কোটা পূরণ করেন বাংলাদেশের বিস্ফোরক এই ব্যাটসম্যান।

চট্টগ্রাম টেস্টেও দারুণ ছন্দে ছিলেন তামিম। সেই চেনা ছন্দ তাকে আজও দেখা গেলো মিরপুরের ২২ গজে। চট্টগ্রামে প্রথম ইনিংসে ৭৮ রানের কার্যকরী ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসে ৯ রান করলেও বলটি পুরনো করত বেশ কার্যকরী ভূমিকা রেখেছেন তামিম।

১৯টি হাফসেঞ্চুরির পাশাপাশি তামিম ইকবালের রয়েছে ৮টি সেঞ্চুরি। ৪৪ ম্যাচে ৮৩ ইনিংসে ৪০.৩৫ গড়ে তামিমের রান সংখ্যা ৩ হাজার ৩০৯।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :