বিকাল ৪:৩৬, মঙ্গলবার, ২৫শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / যে কারণে রুবেল হোসেনের জায়গায় মোশাররফ রুবেল
যে কারণে রুবেল হোসেনের জায়গায় মোশাররফ রুবেল
সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৬

আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম দুই ওয়ানডে খেলেছেন রুবেল হোসেন। ইনজুরি কাটিয়ে দীর্ঘ দিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরলেও বল হাতে খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি! প্রথম ওয়ানডেতে ১০ ওভারে ৬২ রান দিয়ে ১টি উইকেট নিয়েছেন। আর দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বল করার সুযোগ পেয়েছেন মাত্র ৩ ওভার। ২৪ রান খরচ করে ছিলেন উইকেটশূন্য।

তাছাড়া মিরপুরের শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের উইকেট স্পিনবান্ধব। বিশেষ করে বাংলাদেশ দলের বাঁহাতি স্পিনাররা আদায় করে নেয়াই তার বড় প্রমাণ। দুই ম্যাচেই সাকিবের আধিপত্য ছিল চোখে পড়ার মতোই। আরেক বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলামও সমীহ আদায় করতে সক্ষম হয়েছেন। অপরদিকে পেসারদের সঙ্গে এখনকার উইকেট খুব একটা ভালো আচরণ করছে না!

সব মিলে দুর্ভাগ্য রুবেল হোসেনের। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডের ১৪ জনের দল থেকে ছিটকে গেলেন তিনি। তার পরিবর্তে দলে জায়গা পেয়েছেন আরেক রুবেল (স্পিনার মোশররফ হোসেন রুবেল)। এমন তথ্যই জানিয়েছেন জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

তৃতীয় ওয়ানডেতে কেন এই পরিবর্তন? জাগো নিউজকে তার ব্যাখ্যা দিলেন নান্নু। বলেন, ‘প্রথম দুই ওয়ানডেতে আমরা লক্ষ্য করেছি, বাঁহাতি স্পিনারদের খেলতে সমস্যা হচ্ছে আফগানিস্তানের ব্যাটসম্যানদের। বিশেষ করে সাকিব তাদের সমীহ আদায় করে নিয়েছে। আফগানরা বাঁহাতি স্পিনে দুর্বল হওয়ায় একজন পেসার কমিয়ে একজন বাঁহাতি স্পিনারকে (মোশাররফ হোসেন রুবেল) দলে নিয়েছি।’

তার মানে, শনিবার আফগানদের বিপক্ষে তিন স্পেশালিস্ট স্পিনার নিয়ে খেলবে বাংলাদেশ? সে হিসেবে সাকিব-তাইজুলের সঙ্গে জুটি বাঁধবেন মোশাররফ রুবেল। নাকি দুই স্পেশালিস্ট স্পিনার নিয়েই মাঠে নামবে টাইগার বাহিনী? যদি তা-ই হয়, তাহলে তাইজুলের জায়গায় স্পেশালিস্ট স্পিনার মোশাররফ রুবেলকে দেখা যেতে পারে! অন্যথায়, সাকিব-তাইজুল জুটি অক্ষণ্ণ থাকতে পারে। সময়ই অবশ্য সঠিক উত্তর দেবে।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ এর মার্চে সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছিলেন মোশাররফ রুবেল। তিন বছর আগে অবশ্য একবার জাতীয় দলে ডাক পেয়েছিলেন, তবে সেবার কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি তার।

তৃতীয় ওয়ানডে বাংলাদেশের স্কোয়াড: মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মুশফিকুর রহীম (উইকেটরক্ষক), সাব্বির রহমান রুম্মন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নাসির হোসেন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, তাইজুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ ও মোশাররফ হোসেন রুবেল।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :