রাত ৩:০১, বুধবার, ২৭শে জুন, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / দেশবাসীর দোয়া চাইলেন তাসকিন-সানি
দেশবাসীর দোয়া চাইলেন তাসকিন-সানি
সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৬

বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা দিতে আজ রাত ১১টা ৫০ মিনিটে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ছেন তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানি। ৮ সেপ্টেম্বর ব্রিসবেনের ন্যাশনাল ক্রিকেট সেন্টারের ল্যাবে বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা দেবেন এ দুই বোলার। দেশ ছাড়ার আগে মিরপুরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে দেশবাসীর দোয়া চাইলেন দু’জনই।

পেসার তাসকিন বলেন, ‘হার্ডওয়ার্ক করছি। পজিটিভ আশা নিয়েই আছি। সবাই দোয়া করবেন যাতে আমরা দু’জনই আবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পরের সিরিজ থেকেই খেলতে পারি। আমরা ‍আমাদের শতভাগ চেষ্টা করেছি চার-পাঁচ মাস ধরে। আল্লাহর রহমতে আত্মবিশ্বাসী আছি। ইনশাআল্লাহ ভালো কিছু হবে।’

অ্যাকশনের পরীক্ষা নিয়ে বাঁহাতি স্পিনার আরাফাত সানি ভাবছেন একই রকম, ‘এতদিন অনেক হার্ডওয়ার্ক করেছি আমরা দুই জনই। দেশবাসীর দোয়া আছে। আমাদের যে রিভিউ কমিটি, কোচিং স্টাফ, সতীর্থ যারা আছে তারা প্রেরণা যুগিয়েছে। আগের চেয়ে দু’জনের বোলিং মাশাআল্লাহ অনেক ভালো হয়েছে। তবে, এটা যেহেতু একটা পরীক্ষা সেহেতু কিছুটা চাপ কাজ করবে। ইনশাআল্লাহ সবার দোয়া সাথে থাকলে আমরা যদি আমাদের কাজটা ঠিকঠাকভাবে করতে পারি তাহলে অবশ্যই দ্রুত কামব্যাক করতে পারবো।’

তাসকিনের পরীক্ষা স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় আর সানির বেলা দুইটায়। এ দুই বোলারের পরীক্ষার দিন সঙ্গে থাকবেন জাতীয় দলের হেড কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। কোচের সঙ্গ পাওয়াকে বাড়তি সাপোর্ট হিসেবে মনে করছেন তাসকিন, ‘কোচ এবং এক্সপার্টরা সবাই অনেক সাপোর্ট করছেন। শেষ চার-পাঁচ মাস জাকি স্যার (মাহবুব জাকি) কাজ করেছেন। কোচরা সবাই কাজ করছেন। ওখানে প্রধান কোচ থাকবেন, এটা বাড়তি সাপোর্ট হিসেবে কাজ করবে বলে আশা করছি। সিনিয়র প্লেয়াররা মানসিকভাবে অনেক সাপোর্ট করেছেন। সবার দোয়া ও আল্লাহর রহমত থাকলে পাশ করে আসবো, ইনশাআল্লাহ।’

আরাফাত ‍সানির তুলনায় তাসকিনের বোলিং অ্যাকশনে ত্রুটি অনেক কম। তাসকিনের পাশ করে যাওয়ার সম্ভাবনা তাই বেশি। তবে এভাবে ভাবতে চান না তাসকিন, ‘সত্যি কথা বলতে মাইনর-মেজর কথা না। এখানে একটা বল খারাপভাবে হলেও সমস্যা হয়ে যাবে। পরীক্ষা তো পরীক্ষাই। একটু প্রেসার তো কাজ করেই। শতভাগ দেব, বাকি সব আল্লাহর ইচ্ছা। সব বাধা কাটিয়ে আসবো আশা করছি।’

সময়টা খারাপই যাচ্ছে আরাফাত সানির। জ্বর নিয়েই বোলিং পরীক্ষা দিতে হতে পারে সানির। কয়েকদিন আগেই বাবাকে হারিয়েছেন। এবার শরীরে ভর করেছে প্রচন্ড জ্বর। সুস্থ থেকে পরীক্ষাটা যেন দিতে পারেন এজন্য দেশবাসীর দোয়া চাইলেন সানি, ‘এখন দেশবাসীর কাছে এ দোয়াটাই চাইবো। আমার হাতে দু’দিন সময় আছে। এ দু’দিনে যেন শারীরিকভাবে সুস্থ হতে ‍পারি। আজকে একটু ভালো লাগছে। গতকাল শরীরের বাজে অবস্থা ছিল। তাড়াতাড়ি সুস্থ হলে হয়তো পরীক্ষাটা দিতে সুবিধা হবে। তবে, বিশ্বাস হারাইনি। হাজার হলেও টেস্ট তো টেস্টই। ইনশাআল্লাহ সবার দোয়ায় কামব্যাক করবো।’

ভারতে অনুষ্ঠিত গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে একই সঙ্গে প্রশ্নবিদ্ধ হয় তাসকিন ও সানির বোলিং অ্যাকশন। চেন্নাইয়ের পরীক্ষায় সন্দেহটা সত্যি প্রমাণিত হওয়ায় দু’জনের ওপর নেমে আসে আইসিসির বোলিং নিষেধাজ্ঞা। দেশে এই কয় মাস বোলিং অ্যাকশন শোধরানোর কাজ করে এখন পরীক্ষার মুখোমুখি তারা। পরীক্ষার আগে একদিন ন্যাশনাল ক্রিকেট সেন্টারে অনুশীলন করবেন তারা। পরীক্ষা দিয়ে দেশে ফেরার কথা ১১ সেপ্টেম্বর। ফলাফল জানা যাবে পরীক্ষার দুই থেকে তিন সপ্তাহের মধ্যে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩০ ঘণ্টা, ০৫ সেপ্টেম্



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :