সকাল ১০:১৯, বৃহস্পতিবার, ২৩শে মার্চ, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / তাসকিনের দুরন্ত প্রত্যাবর্তন
তাসকিনের দুরন্ত প্রত্যাবর্তন
সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৬

নিষাধাজ্ঞা কাটিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার ম্যাচটির শুরুটা খুব একটা সুখকর না হলেও শেষ দিকটা রাঙিয়ে হাসিমুখেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরলেন বাংলাদেশ পেসার তাসকিন আহমেদ।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে আজ রবিবার শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে একটু যেন বেশিই তাড়াহুড়ো করে ফেলেছেন তাসকিন। গতি স্বাভাবিক থাকলেও লাইন-লেংথের ক্ষেত্রে কিছুটা ব্যতিক্রম চোখে পড়েছে তাসকিনের বোলিংয়ে।

তবে চিত্রটা ভিন্ন হলেও হতে পারতো! যদি ম্যাচে তাসকিনের দ্বিতীয় বলে আফগান ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদের ক্যাচ ড্রপ না করতেন ইমরুল কায়েস। তাসকিনের আউটসুইঙ্গারে ব্যাট চালিয়েছিলেন শাহজাদ। বড় একটা এজ নিয়ে বল উড়ে এসেছিল দ্বিতীয় স্লিপে। কিন্তু সহজ ক্যাচটি তালুবন্দী করতে পারেননি ইমরুল; লাফিয়ে উঠে হতাশা ঝেড়েছেন তাসকিন।

প্রথম দুটি ওভারে ১১ রান দেওয়ার পর তৃতীয় ওভারে ১৭ রান দেন তাসকিন। পরপর তিনটি বাউন্ডারি মেরেছিলেন শাহজাদ। ৩-০-২৮-০ ছিল তার প্রথম স্পেলের পরিসংখ্যান।

এরপর ২৭ তম ওভারে দ্বিতীয় স্পেল শুর করেন তাসকিন। ক্রিজে তখন দুটি সেট ব্যাটসম্যান হাসমতউল্লাহ শাহিদি ও রহমত শাহ । সেখানে প্রথম ওভারে ছয় রান দেন তিনি। ২৯তম ওভারটি করে দ্বিতীয় স্পেলের ইতি টানেন তাসকিন। তখন তার বোলিং পরিসংখ্যান ৫-০-৪০-০।

পরের ওভারটি তাসকিন করতে আসেন ইনিংসের ৪১তম ওভারে। এই ওভারে তিনি ব্যয় করেন নয়টি রান। পরে এই ওভার শেষেই তাকে আবার থামিয়ে দেন অধিনায়ক মাশরাফি। ৪৩ তম ওভারে তার জায়গায় নিয়ে আসা হয় রুবেল হোসেনকে।

রুবেল গেলে তাসকিন তার চতুর্থ স্পেল শুরু করেন ৪৮ ওভারে। এ ওভারেই উইকেটের দেখা পান তিনি। চেঞ্জ অব পেসে স্লো বাউন্সার দিয়েছিলেন তাসকিন। যেই বল ব্যাটসম্যান মো. নবী চেয়েছিলেন মিড অফের ওপর দিয়ে বাইরে পাঠাতে। কিন্ত তিনি পারেননি, বল লুফে নেন সাব্বির রহমান। দুই বল পরেই আবার তাসকিন যাদু। এবার লং অনে শিকার আফগান অধিনায়ক আসগর স্ট্যানিকজাই। লফটেড অন ড্রাইভ লুফে নিতে ভুল করেননি মাহমুউদল্লাহ রিয়াদ। দিনের সেরা ক্ষণটি তখন উদযাপন করছেন তাসকিন।

তাসকিন যেহেতু ফর্মে ফিরেছেনে তাই শেষ ওভরটির দায়িত্ব তাকেই দেওয়া হয়। আর এই ওভারটিতেই তিনি ফেরান মিরওয়াইজ আশরাফকে। লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন আফগান পেসারটিকে। দাওলাত জারদানকে সাব্বিরের হাতে ক্যাচ দিতে বাধ্য করে শেষ পর্যন্ত আট ওভারে ৫৯ রান দিয়ে তিনি নেন চারটি উইকেট। যার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের জয়নায়ক হয়ে দুরন্ত প্রত্যাবর্তনই করেন তাসকিন।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :