রাত ২:৫৪, শনিবার, ২৬শে মে, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / শনিবার শুরু হচ্ছে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ
শনিবার শুরু হচ্ছে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ
আগস্ট ২৬, ২০১৬

শনিবার বেলা ১১ টায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে চাইনিজ তাইপি বনাম কিরগিজস্তানের ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্বের গ্রুপ সি-এর খেলা। আগামী ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠিতব্য এ প্রতিযোগিতার অন্যান্য দলগুলো হলো- ইরান, সিংগাপুর, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও আয়োজক বাংলাদেশ।
উদ্বোধনী দিনসহ পাঁচটি ম্যাচ ডে’র প্রতিদিনই রয়েছে তিনটি করে ম্যাচ। বিকাল তিনটা ও সন্ধ্যা ছয়টায় মাঠে গড়াবে অন্য ম্যাচ দুটি।
আজ দুপুর তিনটায় খেলবে আমিরাত ও সিংগাপুর এবং সন্ধ্যা ছয়টায় মাঠে নামবে বাংলাদেশ ও ইরান।
শুক্রবার বাফুফে ভবনে অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রতিযোগিতার প্রি-টুর্নামেন্ট সংবাদ সম্মেলন। বাংলাদেশ, তাইপি ও ইরানের মাঝেই সীমাবদ্ধ থাকবে গ্রুপের শীর্ষস্থান অর্জনের লড়াই। আমিরাত, সিংগাপুর ও কিরগিজস্তানের ল্য লড়াই করা ও অভিজ্ঞতা অর্জন।
এশিয়ার ফুটবলে অন্যতম পাওয়ার হাউজ ইরান, যেখানে পিছিয়ে নেই তাদের মেয়েরাও। কোচ শাদি মাহিনি সরাসরিই বললেন, ‘আমরা এর আগে গতবছর ঢাকায় এসে শিরোপা জয় করেছি। এবারও আমাদের ল্য শিরোপা জয় তবে সহজ হবে না সে কাজটি। বাংলাদেশ নিজ মাঠে কঠিন প্রতিপ, রয়েছে তাইপেও। তবে আমরা আমাদের সেরা নৈপুণ্য দিয়েই গ্রুপের শীর্ষস্থান অর্জন করতে চাই।’
চাইনিজ তাইপের হেড কোচ কাও সাই হু দৃঢ়প্রত্যয়ী তার দল নিয়ে। তিনি বলেন, ‘গ্রুপের শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে আগামী বছর থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য চূড়ান্ত পর্বে যাওয়ার জন্যই আমরা এখানে এসেছি। এজন্য আমরা নিয়েছি ছয় মাসের প্রস্তুতি, আমরা ঢাকায় আসার আগে কয়েকটি জাপানি মহিলা দলের সঙ্গে খেলেছি বেশ কটি প্রস্তুতি ম্যাচ। সে ম্যাচগুলোতে আমাদের পারফরম্যান্স সন্তোষজনক ছিল। আমরা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য লড়বো।’
U-19-woman-football--1
সিংগাপুরের দলটি অপোকৃত নবীন। তাদের কোচ চেন সাই য়িং বলেন, ‘আমরা মূলত ভবিষ্যতের দল গঠনের জন্য অভিজ্ঞতা অর্জন করতে এসেছি। এখানে অন্যান্য দলগুলোর সঙ্গে খেলে আমার মেয়েরা অনেক কিছু শিখবে । তাই বলে কোনও দলকে আমরা ছেড়ে কথা বলবো না।’
সংযুক্ত আরব আমিরাতের হেড কোচ আজাম ঘোটাকের দুঃখ তার দল পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নিতে পারেনি। নাহলে তারাই হতো শিরোপার অন্যতম দাবিদার। এমন প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘আমরা মাত্র দুই সপ্তাহের প্রস্তুতি নিয়ে বাংলাদেশে এসেছি। আমরা গত বছর জর্ডানে জিতেছিলাম অনূর্ধ্ব-১৪ রিজিওনাল চ্যাম্পিয়নশিপ। সে দলের বেশ কিছু খেলোয়াড় রয়েছে এই দলে। আমিরাতে এখন ফুটবল মৌসুম নেই, তাছাড়া মেয়েদের স্কুলে ছিল পরীা, তবে আমার দল টেকনিকালি ভালো। হয়তো শারীরিকভাবে অন্যান্য দলের চেয়ে কিছুটা পিছিয়ে তবে আমরা লড়াই করতে প্রস্তুত।’
কিরগিজস্তানের কোচ সেতলানা পোকাচালোভার দৃষ্টি গ্রুপ চ্যাম্পিয়নশিপের ওপর। তার ভাষায়, ‘তিন মাসের প্রস্তুতি নিয়ে আমরা বাছাই পর্বে খেলতে এসেছি। আমরা আমাদের ল্য নির্ধারণ করেছি এবং তা অর্জনে আমরা লড়াই করতে প্রস্তুত। গ্রুপটি সহজ নয় তবে কিরগিজস্তান তাদের সামর্থ্যের ১০০ ভাগ দিয়েই শিরোপা জিততে প্রস্তুত।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :