দুপুর ১২:৩৬, সোমবার, ২৭শে মার্চ, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর এখন পর্যন্ত চূড়ান্ত
ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর এখন পর্যন্ত চূড়ান্ত
আগস্ট ৭, ২০১৬

গুলশান এবং শোলাকিয়ায় সম্প্রতি দু’দফা সন্ত্রাসী হামলার পর বাংলাদেশ সফর নিয়ে নতুন করে ভাবার কথা জানিয়েছিল ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। এমনকি দেশটির ওয়ানডে অধিনায়ক ইয়ান মরগান সফরে দলের নিরাপত্তা নিয়ে তার উদ্বেগের কথা জানিয়েছিলেন। কিন্তু সব আশঙ্কাকে উড়িয়ে দিয়ে ইংল্যান্ডের জাতীয় দলের বাংলাদেশ সফর এখন পর্যন্ত চূড়ান্ত বলে জানিয়েছেন বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন।

রোববার সবিবালয়ে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত ‘ইংল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর২০১৬’ সুষ্ঠুভাবে আয়োজনের লক্ষ্যে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় তিনি এ কথা বলেন। সভায় যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী আখতার উদ্দীন আহমেদ সভাপতিত্ব করেন। এ সময় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধীরা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় এক প্রশ্নের উত্তরে নিজামউদ্দীন চৌধুরী বলেন, ‘দুই দেশের বোর্ডের আলোচনার মাধ্যমে সফর সূচী চূড়ান্ত হয়। এখন পর্যন্ত সফর চূড়ান্ত আছে। ইংল্যান্ড দল কোনো দেশে সফরের আগে তারা নিরাপত্তা বিষয়ে পরিদর্শন করে। বাংলাদেশের পরই ইংল্যান্ড দল ভারত সফর করবে। তাই ইংল্যান্ডের একটি নিরাপত্তা টিম আগে ভারত পরিদর্শন করে আগস্টের মাঝামাঝি সময়ে বাংলাদেশ পরিদর্শনে আসবে।’

তিনি বলেন, ‘মূলত তারা অবকাঠামো ও নিরাপত্তার বিষয় পর্যবেক্ষণ করে রিপোর্ট দেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত দুই বোর্ডের মধ্যে যে আলোচনা হয়েছে তাতে ইংল্যান্ড বাংলাদেশে আসছে।’

ইংল্যান্ড দলকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার আশ্বাসও দেন বোর্ডের সিইও। তবে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর শুরু হতে যাওয়া সফরের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিস (এফসিও) এবং নিজেদের নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে ঘনিষ্টভাবে কাজ করবে বলে জানান তিনি।

bangladesh

নিরাপত্তার সব বিষয় বোর্ড বিবেচনা করবে বলেও জানানো হয়। বিসিবির সিইও বলেন, ‘সেক্ষেত্রে আমরা আশাবাদী যে, ওই নিরাপত্তা ব্যবস্থার বিষয়গুলো যে কোনো বোর্ড বিবেচনা করবে। আপনারা জানেন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের আগে কিছু অসুবিধা ছিল, আমরা সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে সব ধরনের সহযোগিতা পেয়েছি এবং সফলভাবে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ শেষ করেছি।’

বিসিবি প্রধান নির্বাহী আরো বলেন, নিরাপত্তা বা সন্ত্রাসী-জঙ্গী হামলার হুমকি এখন আর বাংলাদেশের সমস্যা নয়। এটা বৈশ্বিক বিষয়। অনেক বড় বড় দেশ যাদের অনেক নিরাপত্তা বলয় এবং প্রটোকল রয়েছে, সেখানেও কিন্তু বড় বড় ঘটনা ঘটছে। সেক্ষেত্রে এটা শুধু বাংলাদেশের জন্য বিশেষ ব্যাপার না।

প্রসঙ্গত, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে আসার পর টাইগারদের সঙ্গে দুটি টেস্ট ও  তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে ইংল্যান্ড। মিরপুরের শেরেবাংলা স্টেডিয়াম এবং চট্টগ্রামের জহুর আহম্মেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ডের ম্যাচগুলো। ২ নভেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশে থাকার কথা রয়েছে ইংলিশদের।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :