রাত ১:০৬, সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / হ্যাটট্রিক শিরোপার মিশনে মাঠে নামছে স্পেন
হ্যাটট্রিক শিরোপার মিশনে মাঠে নামছে স্পেন
জুন ১৩, ২০১৬

টানা দুইবারের চ্যাম্পিয়ন। ২০০৮ সালে লুই আরাগোনসের হাত ধরে ১৯৬৪ সালের পর প্রথম ইউরো জয়ের স্বাদ পেয়েছিল স্প্যানিশরা। এরপর তো রূপকথার ঘোড়া ছুটিয়ে চলেছে তারা। ২০১০ বিশ্বকাপে হলো বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। ২০১২ সালে এসে আবারও ইউরো চ্যাম্পিয়ণ। ইউরোপিয়ান মহাদেশীয় টুর্নামেন্টটিতে আগে যা করতে পারেনি কেউ, সেটা করে দেখিয়েছে স্পেন। টানা দু’বার চ্যাম্পিয়ন হয়ে।

এবার স্প্যানিশদের সামনে হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের মিশন। টানা তিনটি ইউরো জয়ের রেকর্ড কী তবে গড়তে পারবে ভিসেন্তে দেল বস্কের শিষ্যরা! এবার হয়তো স্পেন দলটিতে জাভি হার্নান্দেজ নেই। তবে ইনিয়েস্তা, ইকার ক্যাসিয়াস কিংবা জেরার্ড পিকে রা তো আছেন। সুতরাং, এবারও লা রোজারা হ্যাটিট্রক শিরোপার দাবি করতেই পারে।

হ্যাটট্রিক শিরোপা ধরে রাখার মিশনে আজ প্রথম মাঠে নামছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। প্রতিপক্ষ চেক রিপাবলিক। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় মুখোমুখি হচ্ছে দু’দল। প্রশ্ন উঠেছে, প্রথমদিন কী ক্যাসিয়াস থাকবেন গোলবার সামলাতে নাকি, ডেভিড ডি গিয়া। বিবিসি জানাচ্ছে, ডি গিয়াই হতে পারেন দেল বস্কের প্রথম পছন্দ। ইনজুরির কারণে জর্জিয়ার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে পারেননি স্ট্রাইকার আলভারো মোরাতা। তবে সুখবর হচ্ছে, এই ম্যাচের আগে পূর্ণ সুস্থ হয়ে গেছেন তিনি।

ম্যানসিটি মিডফিল্ডার ডেভিড সিলভার আবার আজ জাতীয় দলের হয়ে শততম ম্যাচ। সুতরাং, চেক রিপাবলিকের বিপক্ষে বিশেষ ম্যাচই খেলবেন হয়তো সিলভা। জর্জিয়ার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে হেরে গিয়েছিল স্পেন। সুতরাং, মাঠে নামার আগে কিছুটা হলে শঙ্কা কাজ করছে স্প্যানিশদের মনে। আবার ডেভিড ডি গিয়ার বিপক্ষে যৌন কেলেঙ্কারির যে অভিযোগ উঠেছে, সেটা নিয়েও বেশ তোলপাড়। এ অবস্থায় মানসিকভাবে কিছুটা হলেও বিধ্বস্ত ডি গিয়া।

তবে ভিসেন্তে দেল বস্কের শিষ্যদের সামনে অনুপ্রেরণারও অভাব নেই। ২০০৪ সালের ২০ জুনের পর এখনও পর্যন্ত ইউরোয় কোন ম্যাচ হারেনি স্পেন। আবার ২০১৪ সালের অক্টোবরের পর কোন প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচেও হারেনি তারা।

চেক রিপাবলিকও নিজেদের সর্বশেষ প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে হেরেছে দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে। ব্যবধানটাও বিশাল বড়, ৬-১ ব্যবধানে। আবার সর্বশেষ ৬ ম্যাচে তারা জিতেছে মাত্র একটিতে। গোলও হজম করেছে বেশ। সুতরাং, স্প্যানিশদের আক্রমণ ঠেকানোর জন্য তারা কতটুকু প্রস্তুত, সেটাই এখন বড় প্রশ্ন।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :