রাত ১১:২১, বুধবার, ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / সুপার লিগকে বিতর্কিত হতে দেবেন না পাপন
সুপার লিগকে বিতর্কিত হতে দেবেন না পাপন
জুন ১০, ২০১৬

বার বার ভেন্যু বদল, বিশেষ একটি দলকে আম্পায়ারিং সুবিধা, ম্যাচ পেছানো- এ তিনটি বিষয় বেশ বিতর্কের জন্ম দিয়েছে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের প্রথম পর্বকে। স্মরণকালের সবচেয়ে বিতর্কিত লিগও বলছেন কেউ কেউ। বিতর্কের মধ্যদিয়েই শেষ হয়েছে রাউন্ড রবিন লিগ। সেরা ছয় দলকে নিয়ে সামনে এবার সুপার লিগ। শিরোপার লড়াই হবে এখানে।
সুপার লিগে কোনো বিতর্ক যাতে না হয়, এজন্য কি করা যায় তা নিয়ে ভাবছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। শুক্রবার ‍দুপুরে গুলশানে তার নিজ বাসভবনে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন পাপন। প্রিমিয়ার লিগের হ-য-ব-র-ল তুলে ধরা হলে বিসিবি সভাপতি বলেন, আমার পক্ষে এতটা গভীরে গিয়ে প্রতিটা খেলা দেখা সম্ভব না। এটা কারও পক্ষেই সম্ভব নয়। আমি সমস্যাগুলো নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করেছি। সুপার লিগ শুরু হওয়ার আরও চার-পাঁচদিন সময় তো আছে। আর যাতে এ ধরনের কোনো ঘটনা না ঘটে, আর ঘটলেও কি ব্যবস্থা নেওয়া ‍যায় সে ব্যাপারে আলাপ-আলোচনা করছি। কাল রাতেও এগুলো নিয়ে অনেক আলোচনা করেছি।
বৃষ্টি থামার পর বিকেএসপিতে রুপগঞ্জ-ব্রাদার্স ম্যাচ আয়োজনে কর্তৃপক্ষের কোনো তাড়া ছিলো না। বেলা ১২টার পরই পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয় ম্যাচটি। আর ফতুল্লায় গাজী গ্রুপ-ভিক্টোরিয়ার ম্যাচটি একদিন পিছিয়ে নেয়া হয়।
ঠিক কেন পেছানো হলো তা লিগের কমিটির (সিসিডিএম) কাছে জানতে চাইবে বিসিবি। পাপন জানান, ‘গাজীর ম্যাচের টাইম পরিবর্তন কেন হলো আমরা অফিসিয়ালি তা জানতে চাইবো। কেন এমনটা করা হলো-এটার উত্তর তো দিতেই হবে।’
প্রিমিয়ার লিগের একটি দলকে আম্পায়ারিংয়ে সুবিধা দেওয়া হচ্ছে এমন অভিযোগের ব্যাপারে নাজমুল হাসান বলেন, ‘আবাহনীর নাম এসেছে আম্পায়ারিং নিয়ে। আমি সবাইকে জিজ্ঞেস করেছি। এটা জানা দরকার। এটা আইসিসিতে পর্যন্ত চলে গেছে। ছবিসহ পাঠানো হয়েছে। ব্যাপারটা সত্যিই অনেক সিরিয়াস। আমি জানতে চেয়েছিলাম কি ঘটেছিল? দেখলাম যে একটা রান আউট দেয়া হয় নি। কিন্তু ওই রান আউটের সঙ্গে খেলার রেজাল্টের কোনো সম্পর্ক নেই। কারণ ৬ উইকেটের জায়গায় ৭ উইকেট হতো। শেষ দুই বলে ‍চার-ছক্কা মেরেই জিততে হয়েছে তাদের। সবকিছু নিয়েই আলাপ-আলোচনা চলছে। সুপার লিগে কোনো বিতর্ক গড়াতে দেওয়া হবে না।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :