দুপুর ১২:১৪, মঙ্গলবার, ২৮শে মার্চ, ২০১৭ ইং
/ Top News / রণজিৎ বিশ্বাস আর নেই
রণজিৎ বিশ্বাস আর নেই
জুন ২৩, ২০১৬

বাংলাদেশ ক্রীড়ালেখক সমিতির সিনিয়র সদস্য ও সাবেক সিনিয়র সচিব রণজিৎ বিশ্বাস আর নেই। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তিনি চট্টগ্রামের সার্কিট হাউসে আকস্মিকভাবে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬০ বছর। তিনি দুই সন্তান, স্ত্রী ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। পারিবারিক অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার জন্য তিনি রাজধানী থেকে চট্টগ্রামে যান।
চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন বলেন, বিকালে তিনি সার্কিট হাউজে একা শুয়ে ছিলেন। সে সময় অসুস্থ হয়ে তিনি মারা যান। তিনি বলেন, একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তার পরিচিত লোকজন ডাকতে আসলে ভেতর থেকে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। পরে এনডিসির উপস্থিতিতে দরজা ভেঙ্গে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। চিকিৎসকরা বলেছেন, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই তিনি মারা গেছেন, বলেন জেলা প্রশাসক। সাবেক সচিব দর্ঘিদিন ধরে ডায়াবেটিসে ভুগছিলেন বলে জানান তিনি।
চট্টগ্রাম গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু জানান, রণজিৎ বিশ্বাস পারিবারিক একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বুধবার রাতে চট্টগ্রাম এসে সার্কিট হাউজের একটি কে উঠেছিলেন। রণজিৎ বিশ্বাসের বাড়ি চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায়। বিভিন্ন পত্রিকা ও সাময়িকীতে তিনি ক্রীড়া ও রম্য রচনায় লেখালেখি করতেন।
উল্লেখ্য, এআইপিএস পদক জয়ী রণজিৎ বিশ্বাস ১৯৫৬ সালের ১ মে চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ধারাভাষ্যকার ও কলামিস্ট রণজিৎ বিশ্বাস কৃতিত্বের সঙ্গে এসএসসি পাস করার পর বাবা অপর্ণাচরণ বিশ্বাস তাকে চট্টগ্রাম কলেজে ভর্তি করিয়ে দেন। ১৯৮১ সালে তিনি তথ্য সার্ভিসে যোগ দেন এবং বিশ্বের অনেক দেশ সফর করেন। ২০১৫ সালের জুলাই মাসে চাকরি থেকে অবসর নেয়ার আগে তিনি সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ছিলেন।
রণজিৎ বিশ্বাসের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছেন সমিতির সভাপতি মোস্তফা মামুন ও সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ান উজ জামান রাজিব। এক বিবৃতিতে তারা বলেন, ক্রীড়াপ্রেমী ড. রণজিৎ বিশ্বাস শুধু একজন সর্বসাচী লেখক ও স্বনামধন্য সচিবই ছিলেন না। তিনি ছিলেন সমিতির একজন সম্মানিত অভিভাবকও। তার শূন্যস্থান পূরণ হবার নয়। রণজিৎ বিশ্বাসের বিদেহী আত্মার সদগতি ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর শোক জানিয়েছেন সমিতির সকল সদস্য।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :