সকাল ৮:০৪, বুধবার, ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / মোহামেডানকে উড়িয়ে দিল রূপগঞ্জ
মোহামেডানকে উড়িয়ে দিল রূপগঞ্জ
জুন ১২, ২০১৬

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের সুপার সিক্স রাউন্ডের প্রথম ম্যাচে বড় হারের দেখা পেয়েছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় লিজন্ডস অব রূপগঞ্জের কাছে ১০৪ রানের বড় ব্যবধানে হারে তারা। এ জয়ে ১২ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠে এলো তারা। যদিও দিনের অপর ম্যাচে ভিক্টোরিয়া জয় পেলে দুই নম্বরে নেমে যাবে রূপগঞ্জ।

রোববার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে আগের দিনের ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে মাঠ ভেজা থাকায় খেলা শুরু হতে দেরি হয়। ফলে ৫০ ওভারের খেলা ৪৫ ওভারে নির্ধারণ করা হয়। সকালে টস জিতে রুপগঞ্জকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় মোহামেডান। ইনিংসে ১৩তম ওভারে সবচেয়ে বড় ধাক্কাটি খায় মোহামেডান। হঠাৎ ইনজুরিতে পরলে মাত্র ৯ বল করার পর আর বল করতে পারেননি দলের সেরা স্পিনার নাঈম ইসলাম জুনিয়র।

ব্যাটিংয়ে নেমে দুর্দান্ত সূচনা পায় রূপগঞ্জ। উদ্বোধনী জুটিতে ৮৯ রান যোগ করেন দুই ওপেনার সৌম্য সরকার ও মোহাম্মদ মিঠুন। তবে দলীয় ৮৯ রানে সৌম্যর বিদায়ের পর দ্রুত পাঁচ উইকেট হারিয়ে ফেলে তারা। তবে ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ৫১ রান সংগ্রহ করে দলকে দারুণ সংগ্রহ এনে দেন মোশারফ হোসেন রুবেল ও সাজ্জাদুল হক। শেষ পর্যন্ত আট উইকেট হারিয়ে ২৩২ রান সংগ্রহ করে রূপগঞ্জ।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৯ রান করেন মিঠুন। ৮৮ বলে ৬টি চারের সাহায্যে এ রান করেন তিনি। ৪৩ বলে ৪টি চার ও ১টি ৪০ রান করেন আরেক ওপেনার সৌম্য সরকার। এছাড়া রুবেল ৩২, পবন নেগি ২৮ ও সাজ্জাদ ২৪ রান করেন। মোহামেডানের পক্ষে ৩১ রানে ৪টি উইকেট পান নাঈম ইসলাম। এছাড়া ৩৫ রানে ২টি উইকেট নেন থিসারা পেরেরা।

রূপগঞ্জের দেওয়া ২৩৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই আলাউদ্দিন বাবুর বোলিং তোপে পরে মোহামেডান। দলীয় ১২ রানে দুইটি উইকেট হারিয়ে চাপে পরে তারা। এরপর দলীয় ৪৭ রানে হাবিবুর রহমানকে হারিয়ে বিপর্যয় বাড়িয়ে তোলে তারা। তবে চতুর্থ উইকেট জুটিতে হামিদুল ইসলামকে ৪৩ রানের জুটি গড়ে দলের হাল ধরার চেষ্টা করেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

তবে দলীয় ৯০ রানে হামিদুল ইসলামের বিদায়ের পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে তারা। আর মাত্র ৩৮ রান যোগ করতেই শেষ ছয় উইকেট হারায় তারা। ফলে ১৩ ওভার বাকি থাকতেই গুটিয়ে যায় দলটি। ইনজুরির কারণে নাঈম ইসলাম জুনিয়র ব্যাটিং করতে না পারায় ১২৮ রানেই শেষ হয়ে তাদের ইনিংস।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৭ রান করেন হামিদুল। এছাড়া মুশফিক করেন ৩৪ রান। রূপগঞ্জের পক্ষে ২টি করে উইকেট পান আলাউদ্দিন বাবু, পবন নেগি ও নাহিদুল ইসলাম।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :