রাত ২:৫৪, বৃহস্পতিবার, ১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / পূর্ণাঙ্গ কোচিং টিম নিয়োগ দিতে চায় বাফুফে
পূর্ণাঙ্গ কোচিং টিম নিয়োগ দিতে চায় বাফুফে
জুন ৮, ২০১৬

আগামী ১৫ জুলাই মাঠে গড়ানোর কথা বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ। আর এর আগেই জাতীয় ফুটবল দলের জন্য পাঁচ বা চার সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ একটি কোচিং টিম নিয়োগ দিতে চায় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।
আজ বুধবার বিকালে ডাচ হেড কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফের সঙ্গে এক মাসের চুক্তি শেষে তাকে বিদায় দেওয়ার প্রাক্কালে এ কথা বলেছেন বাফুফে সহ-সভাপতি ও ন্যাশনাল টিমস কমিটির ডেপুটি চেয়ারম্যান তাবিথ আওয়াল।
তাবিথ বলেন, ‘লোডভিক ডি ক্রুইফ গত তিন বছর ধরেই বাংলাদেশের সঙ্গে আছেন। তিনি বাংলাদেশের ফুটবলকে চেনেন এবং জানেন। তবে আজ তার সঙ্গে বাফুফের এক মাসের চুক্তি শেষ হচ্ছে। তিনি কাল তার দেশে ফিরে যাবেন। ক্রুইফ হল্যান্ডে একটি ক্লাবের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ আছেন।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমরা আগামী দুই সপ্তাহের মাঝে আমাদের জাতীয় ফুটবল কোচ নিয়োগের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবো। আমাদের সামনে রয়েছে ভুটানের সঙ্গে হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিক দুটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। ভুটানের বিপক্ষে কোনও অঘটন না ঘটলে আমাদের সামনে পড়বে বেশ কটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ। তাই আমরা দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনায় এগোতে চাই। যদি আমরা ভুটানের বিপক্ষে জিতি তবে পরিকল্পনা অবশ্যই ভিন্ন হবে। তাই আমরা দীর্ঘমেয়াদী চিন্তাই করছি। ক্রুইফ ফিরে যাবেন এবং জানাবেন তার পরিকল্পনার কথা। আমরা আরও কয়েকজন কোচের সঙ্গে যোগাযোগ করছি। আমরা আশা করি আগামী ১৫ জুলাই বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ শুরুর আগে আমরা পূর্ণাঙ্গ একটি কোচিং টিম দিতে পারবো। যারা শুধু খেলাই দেখবেন না, ক্লাবগুলোকেও নানা নির্দেশনা দেবেন।’

তাবিথ আওয়াল ডি ক্রুইফের প্রশংসা করে বলেন, ‘তাজিকিস্তানের বিপক্ষে হোম ম্যাচে বাংলাদেশ লক্ষ্যনীয়ভাবে ভালো খেলেছে। আমরা মনে করি কিছুটা উন্নতির ছোঁয়া ছিল ম্যাচে। অন্তত আমরা যে ধারায় দলকে দেখতে চাই সে ধারায় খেলেছে বাংলাদেশ। যদিও শেষ পর্যন্ত জয় আমাদের আসেনি। আমাদের খেলোয়াড়রা তাজিকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম লেগে ৫-০ গোলে হারের পর যেভাবে ফিরে এসেছে তা প্রশংসনীয়।’

ক্রুইফের প্রত্যাশা ও জাতীয় দলে তার পুনরায় ফেরা প্রসঙ্গে তাবিথ বলেন, ‘তিনি যদি দুই ম্যাচের জন্য আসতে চান তবে আমরা তা ভেবে দেখবো। আর্থিক ব্যাপারটাও তো আমাদের ভেবে দেখতে হবে। আমরা চাই দীর্ঘমেয়াদী কোচ।’

এদিকে ক্রুইফ তার বিদায়ী বক্তব্যে বলেন, ‘তাজিকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম লেগে ৫-০ গোলে হারটা ছিল আমার জন্য খুবই কষ্টের। আমি আশাবাদী ছিলাম একটা ভালো ফলের জন্য। কিন্তু তা পাইনি, সেট পিসে তিনটি গোল না খেলে চিত্রটা ভিন্ন হতো। আমি এখানে থেকে বুঝেছি কোন ধারায় খেললে বাংলাদেশের উন্নতি হবে। আমি বাফুফের কর্তাদের চিন্তা ধারার সঙ্গে একই ধারায় চিন্তা করি। দেখা যাক ভবিষ্যতে কী হয়।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :