বিকাল ৫:০৪, শুক্রবার, ২৮শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / আবাহনীর ‘ডাবল’ রেকর্ড
আবাহনীর ‘ডাবল’ রেকর্ড
জুন ১৫, ২০১৬

ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে বুধবারের খেলায় বিকেএসপিতে মোহামেডানের বিপক্ষে জোড়া রেকর্ড গড়ে জিতেছে আবাহনী। এই ম্যাচে দলীয় সর্বোচ্চ সংগ্রহের পাশাপাশি, সর্বোচ্চ রানের ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড গড়েছে তামিম-সাকিব-তাসকিনদের দল।
ফাইল ছবি

প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ৩৭১ রান সংগ্রহে করে আবাহনী। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে বাংলাদেশের কোনও ক্লাবের সর্বোচ্চ রান এটি। শুধু তাই নয় বাংলাদেশের মাটিতেই এটি লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। ২০১০ সালে বাংলাদেশ সফরে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে ফতুল্লা খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ৭ উইকেটে ৩৭০ রান করেছিলো ইংল্যান্ড। অন্যদিকে বাংলাদেশের ক্লাবগুলোর মধ্য সর্বোচ্চ সংগ্রহ ছিল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের। ওল্ড ডিওএইচএসের বিপক্ষে গত ঢাকা লিগেই তারা তুলেছিল ৬ উইকেটে ৩৫৭।

আবাহনীর করা ৩৭১ রানের জবাবে খেলতে নেমে মোহামেডান ১১১ রানেই অলআউট হয়ে যায়। ফলশ্রুতিতে ২৬০ রানে জয় লাভ করে আবাহনী। বাংলাদেশে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড এটি। গত মৌসুমে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ ২৪৭ রানে হারিয়েছিল ওল্ডডিওএইচএসকে। যা আজ বুধবার পর্যন্ত সর্বোচ্চ ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড ছিল। অন্যদিকে ২০১৩-১৪ মৌসুমে শেখ জামাল মোহামেডানকে ২৩৯ রানে হারিয়েছিল। যা কিনা মোহামেডানের সর্বোচ্চ রানের ব্যবধানে হার ছিলো। এদিন নিজেদের লজ্জাজনক সে রেকর্ডও টপকে গেল মোহামেডান!

মূলত লিটন কুমার দাস ও দিনেশ কার্তিকের জোড়া সেঞ্চুরি ও সাকিবের ঝড়ো ইনিংসের উপর ভর করেই আবাহনী ৩৭১ রান সংগ্রহ করে। এদিন ১২৫ বলে ১৩৯ রান করেন লিটন। দিনেশ কার্তিক ৯৭ বলে ১০৯ রান করেন। অন্যদিকে সাকিব ছিলেন আরও দুরন্ত। লিটন-কার্তিক ফিরে গেলে উইকেটে গিয়েই তাণ্ডব চালান সাকিব। ২২ বলে করেছেন হাফসেঞ্চুরি। নাঈম ইসলামের বলে আউট হওয়ার আগে ৫ ছক্কায় ২৪ বলে ৫৭ রান করেছেন এই অলরাউন্ডার।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :