ভোর ৫:২৪, শুক্রবার, ১৯শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / ‘অল আবাহনী’ জমজমাট ফাইনাল শনিবার
‘অল আবাহনী’ জমজমাট ফাইনাল শনিবার
মে ৬, ২০১৬

শনিবার এমনই এক ‘ডার্বি’ অনুষ্ঠিত হবে যাতে মুখোমুখি হবে দুই আবাহনী। কেএফসি স্বাধীনতা কাপ ফুটবলের ফাইনালে বিকাল সাড়ে ৫টায় মাঠে নামবে ঢাকা আবাহনী ও চট্টগ্রাম আবাহনী। এই চূড়ান্ত মহারণে যেই জিতুক, শিরোপা যাচ্ছে আবাহনীর ঘরেই!
শুক্রবার শিরোপা জেতার লক্ষ্যে দুই আবাহনীর ফুটবলাররা শেষবারের মতো অনুশীলনে ঘাম ঝড়িয়েছেন। ‘আবাহনী ডার্বি’ সরাসরি সম্প্রচারিত হবে বাংলাদেশ টেলিভিশনে।
এবারের এই টুর্নামেন্টে যে দুটি দল ফাইনালে উঠেছে, তারা নিজ নিজ গ্রুপের রানার্স-আপ দল (‘এ’ গ্রুপের চট্টগ্রাম আবাহনী, ‘বি’ গ্রুপের ঢাকা আবাহনী)! এক্ষেত্রে ‘এ’ এবং ‘বি’ গ্রুপের দুই চ্যাম্পিয়ন দল শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব লিমিটেড এবং শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেড সেমিফাইনালে হেরে বিদায় নিয়েছে।
সেমিতে ঢাকা আবাহনী ৬-০ গোলে হারায় শেখ জামালকে। আরেক সেমিতে টাইব্রেকারে চট্টগ্রাম আবাহনী ৪-২ (১-১) গোলে হারায় শেখ রাসেলকে।

ফাইনালিস্ট দুই দলের রোড টু ফাইনাল হচ্ছে এরকম: গ্রুপ পর্বে ‘দ্য স্কাই ব্লু ব্রিগেড’ খ্যাত ঢাকা আবাহনী ৫ ম্যাচে ২ জয় ও ৩ ড্রয়ে ৯ পয়েন্ট সংগ্রহ করে। তারা টিম বিজেএমসিকে ৫-০ ও শেখ রাসেলকে ১-০ গোলে হারায়। ড্র করে ১-১ গোলে ফেনী সকার ক্লাব, ০-০ গোলে আরামবাগ এবং ২-২ গোলে রহমতগঞ্জের সঙ্গে। দলের ১৫ গোলের ১০টিই করেছেন নাইজিরিয়ান ফরোয়ার্ড সানডে চিজোবা (৬) এবং সেনেগালিজ ফরোয়ার্ড কামারা সাররা (৪)। সানডের ৬ গোল হচ্ছে চলমান আসরে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ। অবশ্য তিনি একা নন। সমান গোল করেছেন শেখ রাসেলের ইথিওপিয়ান ফরোয়ার্ড (ভারতের আইএসএল খেলে আসা) ফিকরু তেফেরাও। তবে ফিকরুর শেখ রাসেল অভিযানের ইতি ঘটায় সানডের গোলসংখ্যা বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ থাকছে ফাইনালে।

এছাড়া ‘বন্দর নগরীর দল’ খ্যাত চট্টগ্রাম আবাহনী ৫ ম্যাচে ৩ জয়, ১ ড্র এবং ১ হারে ১০ পয়েন্ট লাভ করে। তারা ২-০ গোলে হারিয়েছিল মুক্তিযোদ্ধা সংসদকে, ২-০ গোলে উত্তর বারিধারাকে এবং ৩-০ গোলে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে। ১-১ গোলে ড্র করে শেখ জামালের সঙ্গে। আর মোহামেডানের কাছে ১-৫ গোলে হেরে যায় অপ্রত্যাশিতভাবে। দলের ১০ গোলের ৩টিই করেছেন অধিনায়ক-উইঙ্গার জাহিদ হোসেন।

দুই আবাহনীর সাম্প্রতিক লড়াইয়ের হেড টু হেড এরকম: ২০১৪ সালে নিটল টাটা বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে দুবারই ঢাকা আবাহনীকে রুখে দেয় চট্টগ্রাম আবাহনী (১-১ এবং ০-০)। ২০১৫ সালের ২২ অক্টোবর সর্বশেষ দু’দল মুখোমুখি হয়েছিল চট্টগ্রামে। ‘শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট’-এ গ্রুপ ম্যাচে চট্টগ্রাম ১-০ গোলে হারিয়েছিল ঢাকা আবাহনীকে। তার মানে সর্বশেষ তিন বারের মোকাবেলায় ঢাকা একবারও হারাতে পারেনি চট্টলার দলটিকে। তবে এই আসরে ঢাকা আবাহনী এখনও অপরাজিত।

উল্লেখ্য, টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার জন্য প্রতিটি দল পাবে এক লাখ টাকা করে। চ্যাম্পিয়ন দল পাবে পাঁচ লাখ টাকা ও ট্রফি। রানার্সআপ দল পাবে তিন লাখ টাকা ও ট্রফি।

এর আগে ২০১৪ সালের সর্বশেষ আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল মোহামেডান। ফাইনালে তারা হারিয়েছিল ফেনী সকার ক্লাবকে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :