বিকাল ৪:৫২, শনিবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
/ আইপিএল / সানরাইজার্সের মূল্য বাড়িয়ে দিয়েছেন মুস্তাফিজ!
সানরাইজার্সের মূল্য বাড়িয়ে দিয়েছেন মুস্তাফিজ!
মে ৮, ২০১৬

প্রতিদিনই কোন না কোন বিদেশি মিডিয়া মুস্তাফিজকে নিয়ে রচনা করছে প্রশংসাগাথা। আইপিএলে খেলার কারণে ভারতীয় মিডিয়াগুলোর তো উচ্চসিত প্রশংসা পাচ্ছেনই। সঙ্গে যোগ হয়েছে এএফপি, গালফ নিউজসহ অনেকগুলো মিডিয়া। কেউ মুস্তাফিজের কথা দিয়ে, কেউ আবার নিবন্ধ রচনা করছে তার পরিবারের সঙ্গে কথা বলে। এবার সেই দলে সরাসরি যোগ দিলো ভারতের বিখ্যাত মিডিয়া এনডিটি অনলাইন।

এতদিন অন্যদের নিউজগুলোই হয়তো কপি করে, নয়তো অন্যদের উদ্বৃতি দিয়ে প্রকাশ করতো এনডিটিভি। এবার তারা নিজেরাই এক প্রস্থ প্রশংসাগাঁথা রচনা করলো মুস্তাফিজের নামে।

মুস্তাফিজুর রহমান অ্যান্ড দা ফিজ দ্যাট ইজ বুস্টিং সানরাইজার্স হায়াদারাবাদ- শিরোনামে এই ছোট লেখাটিতে মুস্তাফিজের ক্যারিয়ারের সংক্ষিপ্ত বর্ণনাই তুলে আনলো তারা। সেখানেই এনডিটিভি লিখেছে, দ্য ফিজ- এবারের আইপিএলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখিয়ে যাচ্ছেন তিনি। যে পারফরম্যান্স দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন সানরাইজার্স হায়দারাবাদকে। বাংলাদেশ থেকে আসা পেসার মুস্তাফিজের কারণেই এই দলটির মূল্য বেড়ে গেছে কয়েকগুণ।

মাত্র ১২ মাসেই কীভাবে নিজেকে এত মূল্যবান করে তুললেন মুস্তাফিজ! এর মধ্যে মাত্র ১৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। উইকেট নিয়েছেন ২২টি। ঈর্ষনীয় গড় ১৩.৯৫ করে। ইকনোমি রেট মাত্র ৫.৯৮ করে। টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর মধ্যে ১০টির বেশি টি-টোয়েন্টি খেলা বোলারদের মধ্যে সেরা ইকনোমি রেট মুস্তাফিজের।

আইপিএলে তো আরও দুর্দান্ত। ৮ ম্যাচ খেলে নিয়েছেন ১০ উইকেট। গড় ১৮.৭ করে। ইকনোমি রেট ৬.২৩। বয়সের তুলনায়, আইপিএলের উইকেট এবং ছোট মাঠের তুলনায় যে ইকনোমি রেট, তা নিশ্চিতভাবেই অসাধারণ।

দুর্দান্ত সব স্লোয়ার এবং কার্টার দিয়ে সবার নজর কেড়ে নিয়েছেন তিনি। বলের গতি পরিবর্তন না করে, কোন স্টাইল পরিবর্তন না করে স্লোয়ার দিতে পারেন, কার্টার করতে পারেন, এটা যেন ক্রিকেটের ইতিহাসে একক কোন কৃতিত্ব। যে কারণে প্রযুক্তির এই যুগেও মুস্তাফিজ এখনও পর্যন্ত রয়ে গেছেন দারুণ এক রহস্যময়ী বোলার হিসেবে।

আইপিএলে ভারতীয় ক্রিকেটার থেকে শুরু করে অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটাররা পর্যন্ত প্রশংসায় পঞ্চমূখ মুস্তাফিজের বোলিংয়ের। বিশেষ করে অস্ট্রেলিয়ানরা তো তাকে চিনেছে সেই বিশ্বকাপের সময় ব্যাঙ্গালুরুতেই। বাংলাদেশের মুখোমুখি হয়ে মুস্তাফিজকে সামলাতে হিমসিম খেতে হয়েছে তাদের। নিউজিল্যান্ড বুঝেছে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে কলকাতায়। মাত্র ২২ রান দিয়ে নিয়েছেন ৫ উইকেট। যার চারটিই বোল্ড। ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম ৫ উইকেটের ঘটনা।

দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের জন্য সবারই টুপিখোলা অভিনন্দন পাচ্ছেন মুস্তাফিজ। তার অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার যেমন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে ম্যাচের পর বলেছিলেন, মুস্তাফিজ একজন বিরল প্রতিভা। তাকে পেয়ে তো বাংলাদেশ গর্বিত হতে পারে এবং তাদের উচিৎ হবে তাদের পরিচর্যা সঠিকভাবে করা। তার পেস পরিবর্তন এবং সেগুলোর সঠিক বাস্তবায়ন যেন দুর্দান্ত।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :