সকাল ৯:৫২, সোমবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / শেখ জামালের শ্বাসরুদ্ধকর জয়
শেখ জামালের শ্বাসরুদ্ধকর জয়
মে ১৯, ২০১৬

জয়ের জন্য গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের শেষ ওভারে প্রয়োজন ১০ রান। হাতে রয়েছে একটি উইকেট। বোলিং করতে এলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। প্রথম চার বলে এলো ৫ রান। শেষ দুই বলে প্রয়োজন আরও ৫ রান। কিন্তু মাহমুদউল্লার পঞ্চম বলটিতে ক্যাচ তুললেন ফরহাদ হোসেন। ফলে চার রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে শেখ জামাল।

বৃষ্টির কবলে পড়া ম্যাচে আগের দিন ৩৮ ওভারে ৯ উইকেটে ১৬৮ রান তুলেছিল শেখ জামাল। ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে ৩৮ ওভারে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের লক্ষ্য ছিল ১৯৬। এক বল বাকি থাকতে গাজী অলআউট ১৯১ রানে।

বৃহস্পতিবার সকালে আগের দিনের ১৬.১ ওভারে ৩ উইকেটে ৮৩ রান নিয়ে দিন শুরু করছিল গাজী। সকালের বৃষ্টিতে এদিনও খেলা শুরু হয় সোয়া দুই ঘণ্টা দেরিতে। খানিকটা স্যাঁতসেঁতে উইকেট ব্যাটসম্যানদের পরীক্ষা নিয়েছে বেশ। বল সিম করেছে, নিচু হয়েছে। একটু থেমেও এসেছে ব্যাটে। দারুণ লাইন-লেংথে বল করে সেটির ফায়দা নিয়েছেন মু্ক্তার আলী।

দিনের প্রথম দুই উইকেটে অবদান শেখ জামালের তরুণ উইকেটকিপার জাবিদ হোসেনের। ওয়াহিদুল আলমের বাঁহাতি স্পিনে অলক কাপালিকে স্টাম্পিং করেছেন দারুণ ক্ষিপ্রতায়। ৩৬ রানে দিন শুরু করা এনামুল অর্ধশতক স্পর্শ করেন ৬০ বলে। একটু পরই মুক্তারের অফ স্টাম্পের বাইরের লেংথের বল অযথা পুল করতে গেলেন। ব্যাট ছুঁয়ে আসা বল অসাধারণ দক্ষতায় গ্লাভসবন্দী করলেন মিডিয়াম পেসেও স্টাম্প ঘেঁষে দাঁড়িয়ে থাকা জাবিদ।
উইকেটে বল থমকে আসায় টাইমিংয়ের গড়বড়ে মুক্তারের শিকার মইনুল হোসেন ও দেলোয়ার হোসেন। মাঝে ২ ছক্কায় ২২ রান করে গাজীকে ম্যাচে ফেরার ফারুক হোসেন। উইকেটে গিয়েই আরাফাত সানিকে উড়িয়েছেন লং অন দিয়ে। শফিউল হোসেনকে আছড়ে ফেলেছেন গ্র্যান্ড স্ট্যান্ডের ওপরের দিকে। কিন্তু এই বিগ হিটারও ক্যাচ দিয়েছেন মুক্তারের থেমে আসা বলে।

গাজীর ভরসা হয়েছিলেন ফরহাদ। ৪৬ বলে করেন অর্ধশতক। ১১ নম্বরে নামা আনকোরা মুস্তাফিজুর রহমান সিঙ্গেল নিয়ে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন ফরহাদকে।

শেষ ওভারে গাজীর প্রয়োজন ছিল ১০ রান। শুরুতে সোহাগ গাজীর হাতে বল দিয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ। পরে মত বদলে বল হাতে নেন নিজেই। ফরহাদও খেলছিলেন দারুণ। শেষ ২ বলে গাজীর প্রয়োজন ৫ রান। মাহমুদউল্লাহ পরের বলটি করলেন একদম শর্ট। মাঠের যে কোনও প্রান্তে পাঠানোর মত বল। কিন্তু ওই বলে মিড উইকেটে বৃত্তের ভেতরই ক্যাচ তুলে দিলেন ফরহাদ হোসেন। আর তাতে জয় তুলে নেয় শেখ জামাল।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :