সকাল ১০:৫৭, বৃহস্পতিবার, ২৪শে আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / শুধু ব্যাটে নয়, বল হাতেও ভিন্ন মাশরাফি
শুধু ব্যাটে নয়, বল হাতেও ভিন্ন মাশরাফি
মে ১৪, ২০১৬

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ব্যাট হাতে অন্য মাশরাফিকে দেখার পর বল হাতেও দেখা গেল ভিন্ন মাশরাফিকে। চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের ষষ্ঠ রাউন্ডের ম্যাচে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে মাশরাফির কলাবাগান ক্রীড়া চক্র ২১ রানে হারিয়েছে।

শনিবার (১৪ মে) ব্যাট হাতে দলকে রানের পাহাড় গড়তে সাহায্য করেন ম্যাশ। ইনিংসের ৩৫তম ওভারে ব্যাট হাতে দলের ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে আসেন তিনি। এক ঘণ্টা দুই মিনিট উইকেটে থেকে ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন টাইগার দলপতি। ৫১ বলে করেন ১০৪ রান। যা টাইগার ব্যাটসম্যানদের মধ্যে দ্রুততম শতকের রেকর্ড।

২০৩.৯২ স্ট্রাইক রেটে ১১টি ছক্কা হাঁকান মাশরাফি। এটিও সর্বোচ্চ ছক্কা হাঁকানোয় টাইগারদের জন্য রেকর্ড। তার সাজানো ইনিংসে ছিল দুটি বাউন্ডারির মার। ইনিংসে ৪৯তম ওভারে কলাবাগানের দলপতি শফিউল ইসলামের বলে মার্শাল আইয়ুবের তালুবন্দি হন।

বল হাতে শেখ জামালের বিপক্ষে স্বাভাবিক ভঙ্গিতে জ্বলে উঠতে পারেননি মাশরাফি। ৬ ওভার হাত ঘুরিয়ে ৪২ রান খরচায় তুলে নেন মাত্র একটি উইকেট।

তবে, এদিন মাশরাফি তার করা ব্যক্তিগত ষষ্ঠ ওভারে ফতুল্লার মাঠে ভিন্ন ভাবে হাজির হন। শেখ জামালের শেষ উইকেট জুটিতে জাবিদ হোসাইন ও ওয়াহিদুল আলম কোনোভাবেই আউট হচ্ছিলেন না দেখে বল হাতে তুলে নেন ম্যাশ। ইনিংসের ৪৮তম ওভারে নিজের স্বাভাবিক পেস নিয়ে হাজির হননি তিনি, করেছেন অফস্পিন। তাতে দ্বিতীয় বলেই উইকেট তুলে নিতে পারতেন ম্যাশ। ওয়াহিদুল আলম সেই বলে লংঅন দিয়ে তুলে মারেন। তাতে ক্যাচ মিসের সঙ্গে ছক্কাও হজম করতে হয় নড়াইল এক্সপ্রেসকে। সেই ওভারে ১১ রান দিলেও কোনো উইকেট তুলে নিতে পারেননি লাল-সবুজদের সীমিত ওভারের অধিনায়ক।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :