দুপুর ২:০০, বৃহস্পতিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ হকি / মেরিনার্সকে হারিয়ে ঊষার টানা তৃতীয় জয়
মেরিনার্সকে হারিয়ে ঊষার টানা তৃতীয় জয়
মে ২১, ২০১৬

গ্রিন ডেল্টা ইনস্যুরেন্স প্রিমিয়ার ডিভিশন হকির প্রথম হাইভোল্টেজ ম্যাচে মেরিনার্সকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে ঊষা ক্রীড়া চক্র। আজ মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেঢিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলায় মেরিনার্সকে হারিয়ে টানা তৃতীয় জয় তুলে নেয় ঊষা। অন্যদিকে তিন ম্যাচে প্রথমবারের মতো হারের স্বাদ নেয় মেরিনার্স।
ঊষার পাঁচ পাকিস্তনি খেলোয়াড় আলিম বেলাল, মো. ইরফান, আলি শান, সৈয়দ কাশিফ ও আশফাক নেওয়াজের বিপরীতে মেরিনার্সে খেলেছেন একমাত্র কেনিয়ান ওকিয়ো। শক্তির ভারসাম্যে তাই অনেকটাই পিছিয়ে থেকেই মাঠে নামে মেরিনার্স।
শক্তির পার্থক্যটা ধীরে ধীরে প্রভাবিত করতে থাকে খেলার গতি। স্বাভাবিকভাবেই চালকের আসনে ছিল ঊষা। শুরু থেকেই মাঠ বড় করে নিয়ন্ত্রিত পাসে খেলে আধিপত্য বিস্তার করার চেষ্টা করে ঊষা। রক্ষণাত্মক কৌশলে কাউন্টার অ্যাটাক নির্ভর খেলায় পাল্টা জবাব দিতে থাকে মেরিনার্স।
খেলার ১১ মিনিটে প্রথম পেনাল্টি কর্নার পায় মেরিনার্স। কিন্তু মামুনুন রহমান চয়ন স্কুপ করতে গিয়ে বল তুলে দেন পোস্টের ওপরে। পরের মিনিটেই আবার পিসি আদায় করে নেয় মেরিনার্স। এবার আর ভুল করেননি চয়ন। কিন্তু ঊষা গোলরক্ষক আবু সাইদ নিপ্পন এগিয়ে এসে গ্যাপ কমিয়ে দেন। বল আঘাত করে তার গ্লাভসে।
পেনাল্টি কর্নার ব্যর্থতার মেরিনার্স যখন আক্ষেপ করছে সে সময় প্রথম পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল আদায় করে নেয় ঊষা। ২০ মিনিটে কৃষ্ণ কুমারের পুশে, সারওয়ারের স্টপে ড্র্যাগ করেন পাকিস্তানি ডিফেন্ডার আলিম বেলাল। মেরিনার্স গোলরক্ষক মেহরাব হোসেন কিরনকে পরাস্ত করে বল ঠাঁই নেয় জালে।
গোল হজম করার পর আক্রমণাত্মক মেজাজে চলে যায় মেরিনার্স। ইমরান হোসেন ইমন ও রিমন কুমার ঘোষের দুটি প্রচেষ্টা প্রতিহত করেন নিপ্পন। সমতা আনার চেষ্টায় যখন পুরো মনোনিবেশ করেছে মেরিনার্স তখন দ্রুত গাতির একটি পাল্টা আক্রমণে দ্বিতীয় গোল করে বসে ঊষা। একক নৈপুণ্যে এ গোলটি করেন পুষ্কর খিসা মিমো। বাম প্রান্ত দিয়ে বল নিয়ে তিনি ঢুকে পড়েন মেরিনার্স রক্ষণভাগে, ব্যাকলাইনের ওপর দিয়ে স্টিকের মোচড়ে বল নিয়ে চলে আসেন পোস্টের ফিট কয়েক দূরে। আলতো পুশ করেন, বল কিরনের প্যাডে লেগে অতিক্রম করে গোললাইন। দুই গোলে এগিয়ে যায় ঊষা।
দ্বিতীয়ার্ধেও ঊষার আধিপত্য অব্যাহত থাকে। ৫৫ মিনিটে আলি শানের স্কয়ার পাসে ফাঁকা পোস্টে গোল করতে ব্যর্থ হন সারওয়ার। এর কিছুক্ষণ পর নিপ্পনকে একা পেয়েও পুষ্কর খিসা মিমো বল মারেন তার প্যাডে। খেলার শেষ দিকে ব্যবধান কমায় মেরিনার্স। ফজলে হোসেন রাব্বির পুশ, শিশিরের স্টপে নিচু ড্র্যাগ করেন আশরাফুল ইসলাম। জোরের ওপর নেওয়া ড্র্যাগ কোনও সুযোগ দেয়নি নিপ্পন্নকে।
কিন্তু এরপরই আবারও দুই গোলের লিড ফিরিয়ে আনে ঊষা। সারওয়ারের পাওয়ার হিটে ফ্লিক করেন হাসান যুবায়ের নিলয়। বল আছড়ে পড়ে ১৮ ইঞ্চি বোর্ডে। মেরিনার্সের কফিনে শেষ পেরেকেটি ঠুকেন কৃষ্ণ কুমার।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :