দুপুর ১:৩১, মঙ্গলবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / মুমিনুলের সেঞ্চুরিতে দোলেশ্বরকে পরাজয়ের স্বাদ দিল ভিক্টোরিয়া
মুমিনুলের সেঞ্চুরিতে দোলেশ্বরকে পরাজয়ের স্বাদ দিল ভিক্টোরিয়া
মে ৯, ২০১৬

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে প্রথম পরাজয়ের স্বাদ পেলো প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব। মুমিনুল হকের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাবের কাছে ৫৯ রানে পরাজিত হলো তারা। ফলে পাঁচ ম্যাচের মধ্যে তিন জয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলো ভিক্টোরিয়া। তবে হারলেও পাঁচ ম্যাচে চার জয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই রইল প্রাইম দোলেশ্বর।

ভিক্টোরিয়ার দেওয়া ২৭১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই রনি তালুকদারকে হারায় দোলেশ্বর। তবে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে রকিবুল হাসানের সঙ্গে ৮৩ রানের জুটি গড়েন আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান ইমতিয়াজ হোসেন। এরপর দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় তারা।

এরপর নাসির হোসেনের সঙ্গে ৬৮ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখান রকিবুল। দলীয় ১৬১ রানে রকিবুলের বিদায়ের পর চতুরঙ্গ ডি সিলভার ঘূর্ণিতে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে দোলেশ্বর। ফলে ৪৩.৪ বলে ২১১ রানে অলআউট হয়ে যায় তারা।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন রকিবুল। ৯০ বলে ৭টি চারের সাহায্যে এ রান করেন তিনি। এছাড়া ইমতিয়াজ ৪৩ ও নাসির ৩৫ রান করেন। ভিক্টোরিয়ার পক্ষে ডি সিলভা ৩৬ রানে ৫টি উইকেট পান। এছাড়া কামরুল ইসলাম রাব্বি ও আল-আমিন ২টি উইকেট নেন।

এর আগে সোমবার ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে ভিক্টোরিয়া। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই ফজলে মাহমুদকে হারিয়ে চাপে পড়ে মতিঝিলের ক্লাবটি। তবে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে আব্দুল মজিদকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন মুমিনুল হক। ১৬২ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়েন এ দুই ব্যাটসম্যান।

দলীয় ১৬৯ রানে সাজঘরে ফেরেন মুমিনুল। এদিন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় লিস্ট ‘এ’ সেঞ্চুরি তুলে নেন বাংলাদেশের সেরা টেস্ট ব্যাটসম্যান। ১০৪ বল মোকাবেলা করে ১০৪ রান করেন তিনি। ১২টি চার ও ২টি ছক্কায় সাজানো ইনিংসটি শেষ হয় আল-আমিন হোসেনের বলে সানজামুলের হাতে ক্যাচ দিয়ে।

এরপর আল-আমিনকে সঙ্গে নিয়ে আরও একটি দারুণ জুটি উপহার দেন মজিদ। তৃতীয় উইকেট জুটিতে ৮৪ রান সংগ্রহ করে দলকে বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দেন তিনি। সেঞ্চুরি থেকে ৬ রান দূরে থাকতে আল-আমিনের বলে বোল্ড হয়ে যান মজিদ। ১৩৭ বলে ৭টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ৯৪ রান করেন এ ওপেনার।

আল-আমিন করেন ৫১ রান। ৪৬ বলে ৩টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে এ রান করেন তিনি। এছাড়া শেষদিকে ৬ বলে ২টি ছক্কার সাহায্যে ১৬ রান করেন চতুরঙ্গ ডি সিলভা। প্রাইম দোলেশ্বরের পক্ষে ভিক্টোরিয়ার তিনটি উইকেটই পান আল-আমিন।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :