বিকাল ৩:০৯, মঙ্গলবার, ৩০শে মে, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / ব্যাটে-বলে সফল মাহমুদুল্লাহ
ব্যাটে-বলে সফল মাহমুদুল্লাহ
মে ২৬, ২০১৬

ডিপিএলের অষ্টম রাউন্ডে জয় পেয়েছে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। ব্রাদার্স ইউনিয়নকে ১১ রানে হারিয়ে এবারের আসরের পঞ্চম জয় তুলে নিয়েছে জামাল। অপরদিকে, এ ম্যাচে হেরে পঞ্চম পরাজয় সঙ্গী হলো ব্রাদার্সের। ব্রাদার্সের পয়েন্ট ৮ এ থমকে দাঁড়ালেও পূর্ণ দুই পয়েন্ট পাওয়া জামালের পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ালো ১০। মাহমুদুল্লাহর দলও উঠে এসেছে পয়েন্ট টেবিলের চার নম্বরে।

বৃহস্পতিবার বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে আগে ব্যাট করে শেখ জামাল ৮ উইকেট হারিয়ে ২৫২ রান সংগ্রহ করে। জবাবে, ৮ উইকেট হারানো ব্রাদার্সের ইনিংস থামে ২৪১ রানের মাথায়।

জামালের হয়ে ব্যাটিংয়ে নেমে চলমান ডিপিএলের আসরে নিজের দ্বিতীয় শতক হাঁকান টাইগারদের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এরমধ্য দিয়ে দেশের চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারে পাঁচ হাজারি রানের ক্লাবে প্রবেশ করেন তিনি। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেট ক্যারিয়ারে ৪ হাজার ৯২৯ রান নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামেন শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবের অধিনায়ক রিয়াদ। ২০৩টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ খেলে ৫ হাজার রানের মাইলফলকে পৌঁছতে দরকার ছিল ৭১ রানের। তবে, মাইলফলক ছুঁয়ে দুর্দান্ত এক শতক হাঁকিয়ে ১০৭ রান করে ফেরেন তিনি। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে এটি তার ষষ্ঠ শতক। এছাড়া তার রয়েছে ২৮টি অর্ধশতক। চার নম্বরে ব্যাট হাতে নেমে ১৩৭ মিনিট ক্রিজে থেকে মোকাবেলা করেছেন ১১৪ বল। তাতে রিয়াদের ব্যাট থেকে ৫টি বাউন্ডারি আর ৩টি ওভার বাউন্ডারি আসে।
Shahriar
এর আগে গত ১০ মে এই ভেন্যুতেই ক্রিকেট কোচিং স্কুলের বিপক্ষে ১৩০ রান করেছিলেন শেখ জামাল অধিনায়ক। দু’দিন আগেই বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৬ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন তামিম ইকবাল। বর্তমানে তামিমের রান ৬ হাজার ১৭। ছয় হাজারি ক্লাবে টাইগারদের আর কেউ না থাকলেও ৫ হাজার ৯০৩ রান নিয়ে দুইয়ে আছেন মোহামেডান দলপতি মুশফিকুর রহিম। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের রান ৫ হাজার ২৭৬। ৫ হাজারি ক্লাবে সদ্যই প্রবেশ করা মাহমুদউল্লাহর বর্তমান রান ৫ হাজার ৩৬।

জামালের হয়ে মার্শাল আইয়ুব করেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫৪ রান। সোহাগ গাজী ১৭, মুক্তার আলি ১৩ আর আবদুল্লাহ আল মামুন ২৭ রান করেন।

ব্রাদার্সের সঞ্জিত সাহা তিনটি, নুর আলম দুটি উইকেট দখল করেন।

২৫৩ রানের টার্গেটে ওপেনিংয়ে নেমে ব্রাদার্সের তারকা শাহরিয়ার নাফিস ২০ রান করে আউট হলেও আরেক ওপেনার ইমরুল কায়েস খেলেন ৭০ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। ৯১ বল মোকাবেলা করে কায়েস ৫টি চারের সঙ্গে দুটি ছক্কাও হাঁকান।

তিন নম্বরে নেমে দলপতি তুষার ইমরান করেন ৫৫ রান। মিডলঅর্ডারে নেমে মিলিন্দ কুমার ২০, জাকির হাসান ১২, নুর আলম ১০ আর আরমান হোসেন অপরাজিত ২৬ রান করেন। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ব্রাদার্সের ইনিংস থামে ২৪১ রানে।

ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পারফর্ম করা জামালের অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ বল হাতেও সফল। ১০ ওভারে মাত্র ২৯ রান দিয়ে তুলে নেন ব্রাদার্সের তিনটি উইকেট। এছাড়া তিনটি উইকেট পেয়েছেন শফিউল ইসলাম। একটি করে উইকেট দখল করেন মুক্তার আলি ও সোহাগ গাজী।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :