সকাল ৭:৫৮, বুধবার, ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / বিসিবি’র কৌশলগত উন্নয়নেও রবি
বিসিবি’র কৌশলগত উন্নয়নেও রবি
মে ১৭, ২০১৬

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান বেসরকারি টেলিকম রবি এবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কৌশলগত উন্নয়নেও পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছে। বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবার লক্ষ্যে তিন বছর মেয়াদের একটি কৌশলগত চুক্তিতে আবদ্ধ হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ও রবি।

এই চুক্তির আওতায় আগামী তিন বছর বিসিবি’র সঙ্গে যৌথভাবে দেশব্যাপী ট্যালেন্ট হান্ট কার্যক্রম পরিচাললনা করেবে রবি। শুধু তাই নয়, নতুন স্বাক্ষরিত এই চুক্তি অনুসারে বিসিবি’র টেলিকম পার্টনার হিসেবেও কাজ করবে দেশের এই বেসরকারি টেলিকম প্রতিষ্ঠানটি।

টেলিকম পার্টনার হিসবে জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়, বিসিবি’র পরিচালক ও কর্মকর্তাদের জন্য ফ্রি টক টাইম, ডাটা ও ভ্যাস সম্বলিত বিশেষ বান্ডেল অফারসহ স্মার্টফোনও প্রদান করবে অপারেটরটি।

মঙ্গলবার (১৭ মে) দুপুরে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের সম্মেলন কক্ষে এ সংক্রান্ত একটি ঘোষণা দেওয়া হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাহবুব আনাম, বিসিবি’র মার্কেটিং অ্যান্ড কমার্শিয়াল কমিটির পরিচালক কাজী ইনাম আহমেদ, রবি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও সুপুন বীরসিংহে ও রবি’র চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ।

রবি’র সঙ্গে কৌশলগত চুক্তি সম্পর্কে গণমাধ্যমের সামনে মাহাবুব আনাম বলেন, ‘জাতীয় দলের স্পন্সরের বাইরেও এখন থেকে বিসিবি’র প্রতিটি প্রয়োজনেই রবি কাজ করবে। আর এসব প্রয়োজনে শুধু্ স্পন্সর করাই রবি’র কাজ নয় বরং প্রতিটি ক্ষেত্রে তাদের প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণও থাকবে।’

আর ক্রিকেট উন্নয়নে এগিয়ে আসায় রবিকে ধন্যবাদ জানিয়ে কাজী ইনাম আহেমেদ বলেন, ‘যে মুহূর্তে আমরা টাইগারদের বৈশ্বিক সাফল্যে গর্বিত, ঠিক সেই মুহূর্তে সাফল্যের এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখার লক্ষ্যে ক্রিকেটের উন্নয়নে আমাদের মনোযোগ দেয়া উচিত। জাতীয় ক্রিকেটে দলের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে রবি এগিয়ে আসায় আমরা সত্যিই আনন্দিত। নতুন এই চুক্তির আওতায় রবি এখন থেকে শুধু ফাস্ট বোলিংই নয়; স্পিন ও ব্যাটিং ট্যালেন্ট হান্ট কর্মসূচিতেও পৃষ্ঠপোষকতা করবে।’

চুক্তি সম্পর্কে সুপুন বীরসিংহে জানান, শুধু দেশের ক্রিকেটের উন্নয়নই নয়, দেশ ও দেশের বাইরে যোগাযোগের জন্য বিসিবি, মোবাইল কমিউনিকেশন পার্টনার হিসেবে রবি’র উপর আস্থা রাখায় আমরা গর্বিত। আমোদের সাথে আন্তরিক সহযোগিতামূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করায় বিসিবিকে আমি ধন্যবাদ জানাই।’

উল্লেখ্য এ বছরের শুরতে বিসিবি’র সাথে যৌথ চেষ্টায় একটি সফল ফাস্ট বোলিং ট্যালেন্ট হান্ট কার্যক্রম শেষ করেছে রবি। এই কার্যক্রম থেকে ১০ জন ছেলে, ৩ জন মেয়ে ও ২ জন বিশেষভাবে সক্ষম (ছেলে) ফাস্ট বোলার বাছাই করা হয়েছে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :