রাত ১১:৩৩, বুধবার, ২৬শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / প্রিমিয়ার লিগের প্রথম সাত রাউন্ডের সাতকাহন
প্রিমিয়ার লিগের প্রথম সাত রাউন্ডের সাতকাহন
মে ২০, ২০১৬

বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ আসর বলা হয় ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগকে। যদিও বাংলাদেশ জাতীয় দলের উত্থানের পর আগের সেই জৌলুস হারিয়েছে এ লিগ। তার উপর বেশ কয়েক বছর ধরেই জাতীয় দলের তারকারা খেলতে না পারায় লিগের আকর্ষণ আরও কমেছে। কিন্তু এবার যেন আবার সেই পুরনো প্রাণ ফিরে পেয়েছে এ লিগ। শুরু থেকেই খেলছেন জাতীয় দলের প্রায় সব তারকা। আর কোন দলই কোন দলকে ছেড়ে কথা না বলায় একক আধিপত্য বিস্তার করতে পারেনি কোন দলই। প্রথম এবং আট নম্বরে থাকা দলের মধ্যে পয়েন্টের ব্যবধান মাত্র ২। অর্থাৎ প্রায় সব দলই প্রতিযোগিতা করছে শিরোপা লড়াইয়ে।

প্রথম সাত রাউন্ড শেষে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও গতবারের রানারআপ প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবের পয়েন্ট ১০। শিরোপা লড়াইয়ে মোহামেডান থেকে এগিয়ে দোলেশ্বর। তবে রান রেট বিবেচনায় শীর্ষে রয়েছে মোহামেডান। এ লিগে একাধিক দলের পয়েন্ট সমান হলে ওই দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে কে এগিয়ে রয়েছে প্রথম দেখা হয়। সপ্তম রাউন্ডের ম্যাচে মোহামেডানকে ছয় উইকেটে হারায় দোলেশ্বর। তাই পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থেকেও দ্বিতীয় অবস্থানে মোহামেডান।

এই দুই দলের পর ১ পয়েন্ট কম অর্থাৎ ৯ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব ও লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। এ দুই দলের মুখোমুখি লড়াই টাই হওয়ায় রান রেট বিবেচনায় রূপগঞ্জের উপরে রয়েছে ভিক্টোরিয়া। এরপর গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স, প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব, ব্রাদার্স ইউনিয়ন ও শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের পয়েন্ট সমান। ৮ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচ থেকে আট নম্বর স্থান পর্যন্ত রয়েছে এ চারটি দল।

তবে এবারের লিগে সবচেয়ে অবাক করেছে আবাহনী ক্রীড়া চক্রের পারফরম্যান্স। গত পাঁচ বছরের শিরোপা খরা কাটাতে এবার দুর্দান্ত দল গড়েছিল তারা। সাকিব, তামিম, তাসকিন, জুবায়ের, লিটন ও রাজুর মত জাতীয় দলের তারকাদের পাশাপাশি শান্ত ও সৈকতের মত তরুণদের দলে ভিড়িয়েছে দলটি। বিদেশি তারকা হিসাবে উড়িয়ে এনেছে মনোজ তিওয়ারির মত তারকাকে। কিন্তু তার পরেও আশানুরূপ পারফরম্যান্স করতে পারছে না তারা। সাত ম্যাচে জয় মাত্র তিনটি। আর এর মধ্যে দুটি জয় পেয়েছে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করে।

আবাহনীর পর রয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের রঙ্গিন জার্সির অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার দল কলাবাগান ক্রীড়া চক্র। সাত ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ৪। তবে নিজেদের দুর্ভাগা ভাবতেই পারে তারা। দুটি ম্যাচে প্রায় নিশ্চিত জয় থেকে বঞ্চিত হয়েছে তারা। এর মধ্যে ব্রাদার্সের বিপক্ষে সাত উইকেট হাতে রেখে ৩০ বলে ২৬ রান তুলতে না পারাটা ছিল বড় হতাশার। এর আগে দোলেশ্বরের বিপক্ষে শেষ তিন বলে তিনটি রান আউটে ৪ রানে হারে তারা। তবে সাদামাটা মানের দল নিয়েও দারুণ লড়াই করায় বেশ প্রশংসাই পেয়েছে তারা।

এরপর শেষ দুইটি অবস্থানে রয়েছে কলাবাগান ক্রিকেট একাডেমী ও ক্রিকেট কোচিং স্কুল। এ দুইটি দলের পয়েন্ট ২। টানা ছয়টি ম্যাচে হারার পর উভয় দলই সপ্তম রাউন্ডে এসে নিজ নিজ ম্যাচে জয় পায়।
Untitled-1



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :