সকাল ১১:১৭, বৃহস্পতিবার, ২৭শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / নিজেকে ছাড়িয়ে যেতে চান বিজয়
নিজেকে ছাড়িয়ে যেতে চান বিজয়
মে ২, ২০১৬

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে কলাবাগান ক্রিকেট একাডেমীর বিপক্ষে দারুণ এক সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন এনামুল হক বিজয়। তার সেঞ্চুরির উপর ভর করেই সহজ জয় তুলে নেয় ভিক্টোরিয়া। দলকে জিতিয়ে বিজয় জানান প্রতিনিয়তই নিজেকে ছাড়িয়ে যেতে চান তিনি। সোমবার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে ম্যাচ শেষে বিজয় বলেন, ‘নিজেকে ছাড়িয়ে যেতে ইচ্ছে করে সবসময়ই। আগের বছর প্রিমিয়ার লিগে ২টা সেঞ্চুরি ছিল এবছর আরও বেশি করতে পারি কী না। আগে যেখানে চার ঘণ্টা অনুশীলন করতাম এবছর ছয় ঘণ্টা পারি কী না। আরও পেশাদরিত্ব নিজের মধ্যে আনা যায় কী না। জাতীয় দলের জন্য যতটুকু প্রস্তুত ছিলাম না, আরও ভাল প্রস্তুতি নিয়ে জাতীয় দলে ঢোকা যায় কী না।’
সর্বশেষ ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের তৃতীয় ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ইনজুরিতে পড়েন বিজয়। এরপর জাতীয় দলে ওয়ানডে একাদশে আর জায়গা হয়নি তার। তবে গত নভেম্বরে টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। নিজেকে মেলে ধরতে না পারায় দল থেকে বাদ পরে যান ও ওপেনার। তাই প্রিমিয়ার লিগকেই বেছে নিয়েছেন জাতীয় দলের ফেরার মাধ্যম হিসাবে। ‘২০১৪ সালে সেঞ্চুরি করলাম। ২০১৫’র বিশ্বকাপের পর ওয়ানডেতে সুযোগই পেলাম না। গত প্রিমিয়ার লিগে দুটি সেঞ্চুরি করেছি। আজ সেঞ্চুরি করে ভালো লাগছে। যখনেই দেখলাম স্কোরটা এমন তখনই মাথায়ই ছিল যতটুকু পারি লম্বা ব্যাটিং করার। আর সেটা বুঝেই সুযোগটা নিলাম। উইকেট ভাল ছিল তাই রানটা যখন হচ্ছিল তখন সেট হওয়ার পরে দেখলাম সম্ভব। বাতাসের প্রাবাহটাও ভাল ছিল। আর কিছু বোলারকেও মারার জন্য বেছে নিয়েছিলাম।’ সাম্প্রতিক সময়ে দারুণ ফর্মে রয়েছেন বিজয়। প্রথম ম্যাচে ৬৭ রান করার পর দ্বিতীয় ম্যাচে করেছিলেন ৪২ রান। তৃতীয় ম্যাচে তুলে নিলেন সেঞ্চুরি। তবে স্ট্রাইকরেট নিয়েই প্রায়ই আলোচনায় থাকেন এ ক্রিকেটার। তাই এদিন উইকেট ভালো পেয়েই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করতে থাকেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ৮৫ বলে ১০০ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন তিনি।
‘সত্যি বলতে প্রায় এক বছর পর আমি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছি। এক বছর পর কতটুকু উন্নতি করতে পারলাম আর না পারলাম তা নিয়ে নিজের একটা চাপ ছিল। প্রিমিয়ার লিগে প্রথম একটা ম্যাচ পরে ভাবলাম আরও একটু ভালো করা উচিত। প্রতিদিন সালাহউদ্দিন স্যার, জিকো ভাই উজ্জল ভাইর সাথে কথা হচ্ছে। আমার ভুল ছিল কিন্তু ধরিয়ে দেয়া হয়নি যে কি করলে ভুল শোধরানো সম্ভব। আমি প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা ভুল শোধরাতে কাজ করছি। আশা করছি সামনে আরও ভালো হেবে।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :