রাত ৪:৫৫, সোমবার, ২৬শে মার্চ, ২০১৭ ইং
/ আইপিএল / আইপিএলেই কোহলির চার হাজার রান
আইপিএলেই কোহলির চার হাজার রান
মে ১৯, ২০১৬

ব্যাট হাতে যেভাবে ঝড় তুলছেন, তাতে একের পর এক মাইলফলক তার নামের পাশে যুক্ত হবে এটাই স্বাভাবিক। বরং, বিরাট কোহলির ব্যাটিং দেখে কেউ কেউ বলেও বসতে পারেন, ‘আরে, এ তো মানুষ নয়, ভিনদেশি কোন গ্রহের কোন ব্যাটসম্যান হবে হয়তো। একজন মানুষের পক্ষে কীভাবে সম্ভবত এভাবে ব্যাটিং করে যাওয়া!’ সেই বিরাট কোহলি এবার আইপিএল ক্যারিয়ারে ছুঁয়ে ফেললেন চার হাজার রানের মাইলফলক।

কী অবিশ্বাস্য ব্যাটিং! বিরাট কোহলি ব্যাট হাতে নিজেকে বিধ্বংসী নয়, ভক্তদের মাঝে মুগ্ধতাও ছড়িয়ে দিচ্ছেন একের পর এক। পুরো টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে যার ব্যাটে কোন সেঞ্চুরি ছিল না, তার ব্যাটে কি না এবারের আইপিএলেই চলে এলো চারটি সেঞ্চুরি। মাত্র ১৩ ম্যাচ খেলে ৪ সেঞ্চুরি এবং ৫ হাফ সেঞ্চুরির সাহায্যে তার ব্যাটে রান উঠেছে ৮৬৫টি। গড় ৮৬.৫০ করে এবং স্ট্রাইকরেট ১৫৫.০১। যদিও কোহলির সতীর্থ ডি ভিলিয়ার্সের স্ট্রাইকরেট আরও বেশি। ১৭২.৫৪ করে।

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে ৪৭ বলে সেঞ্চুরি করার পর ৫০ বলে আউট হয়েছেন ১১৩ রানে। এই ইনিংস দিয়েই প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে আইপিএলে ৪০০০ রানের মাইলফলক পূর্ণ করে ফেললেন কোহলি। তবে কোহলির ঘাড়ের ওপর নিঃশ্বাস ফেলছেন সুরেশ রায়না। আইপিএলে তার রান ৩৯৮৫। আর ১৫ রান করলে তিনিও হয়ে যাবেন ৪ হাজার রান সংগ্রাহক। আইপিএল শুরুর আগে কোহলি ছিলেন এই তালিকায় চতুর্থ স্থানে।

আইপিএলে এখনও পর্যন্ত ১৩৬টি ম্যাচ খেলেছেন কোহলি। ব্যাট করার সুযোগ পেয়েছেন ১২৮ ইনিংসে। পাঞ্জাবের বিপক্ষে ১১৩ রান করার পর তার সর্বমোট রান এখন ৪০০২। গড় ৩৭.৭৫ করে। সেঞ্চুরি ৪টিই। হাফ সেঞ্চুরি ২৪টি। বিপরীতে রায়না খেলেছেন ১৪৩টি ম্যাচ। ব্যাট করেছেন ১৩৯ ম্যাচে। তৃতীয়স্থানে থাকা রোহিত শর্মার রান ৩৮৪৪। তিনি খেলেছেন ১৪১ ম্যাচ। ব্যাট করেছেন ১৩৭টিতে।

এবারের আইপিএলে ৪টি সেঞ্চুরি করে একটি রেকর্ডও গড়ে ফেলেছেন কোহলি। ফ্রাঞ্জাইজি ভিত্তিক কোন টি-টোয়েন্টি লিগে সর্বাধিক সেঞ্চুরি করার রেকর্ড গড়লেন তিনি। এর আগে ২০১৫ সালে নেটওয়েস্ট ব্লাস্ট টি-টোয়েন্টিতে তিনটি সেঞ্চুরি করেছিলেন মাইকেল ক্লিজ্ঞার। তবে সব আইপিএল মিলিয়ে কোহলির চেয়ে একটি বেশি সেঞ্চুরি তার সতীর্থ ক্রিস গেইলের। তার সর্বমোট সেঞ্চুরির সংখ্যা ৫টি।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :