দুপুর ২:৪৬, মঙ্গলবার, ২৫শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / অবশেষে ক্ষমা চাইলেন জাহিদ
অবশেষে ক্ষমা চাইলেন জাহিদ
মে ২০, ২০১৬

সোহেল রানা এবং মামুনুল ইসলামের পথ অনুসরণ করেই এবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) কাছে ক্ষমা চাইলেন উইঙ্গার জাহিদ হোসেন। বুধবার বাফুফে ভবনে গিয়ে লিখিত শাস্তি মওকুফ এবং ক্ষমা চেয়ে লিখিত আবেদন করেন চট্টগ্রাম আবাহনীর এই ফুটবলার। এর ফলে হয়তো আবারো তাকে দেখা যেতে পারে জাতীয় দলে।

বাবার অসুস্থতার জন্য বেশ দৌড়াদৌড়ির ভেতর দিয়ে সময় যাচ্ছে জাহিদের। তার বাবা মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত আলী ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় ডাক্তাররা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বাইরে নেয়ার পরামর্শ দেন। জাহিদ তার বাবাকে মুম্বাইর টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। বাবার সুস্থতার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন সদ্যই স্বাধীনতা কাপ জেতা এই ফুটবলার।

জাহিদ বলেন, ‘আগামী মঙ্গল বা বুধবারের মধ্যে যদি ভিসা হয়ে যায়, তাহলে বাবাকে নিয়ে ভারতে যাব। সেখানে হাসপাতালে ভর্তি করে দিয়ে এবং অন্যান্য সবকিছু ব্যবস্থা করে দিয়েই আমি আবার বাংলাদেশে ফিরে এসে জাতীয় দলের ক্যাম্পে যোগ দেব। আমার অবর্তমানে আমার পরিবারের সদস্যরা এবং এক বন্ধু তখন বাবার সঙ্গে থাকবে।’

তবে সেক্ষেত্রে ভারত যাওয়ার আগেই যদি তাকে জাতীয় দলের ক্যাম্পে যোগ দেয়ার কথা বলা হয় তাহলে কি করবেন জাহিদ? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তিনি আমাকে আশ্বাস দিয়ে বলেছেন, ক্যাম্পে ডাকলে যদি সে সময় বাবার কারণে যেতে সমস্যা হয়, তাহলে আমার ক্যাম্পে যোগ না দিলেও কোন সমস্যা হবে না। এ নিয়ে আমাকে কোন দুশ্চিন্তা করতেন মানা করেছেন তিনি। মোট কথা, ক্যাম্পে আমি আমার সুবিধা মতোই যোগ দিতে পারব ক্যাম্পে।’

এর আগে গত ফেব্রুয়ারিতে মাঠ এবং মাঠের বাইরে শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে ফুটবল থেকে ছয় মাসের জন্য নিষিদ্ধ হন তারকা ফুটবলার-উইঙ্গার জাহিদ হোসেন। ক্রুইফ তৃতীয় মেয়াদে জাতীয় দলের দায়িত্ব নেয়ার আগেই মামুনুল এবং সোহেল রানা ক্ষমা চান। তবে ইয়াসিন খান ক্ষমা চাইবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :