বিকাল ৫:৩৫, সোমবার, ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / স্বাধীনতা কাপের সেমিফাইনালে শেখ জামাল
স্বাধীনতা কাপের সেমিফাইনালে শেখ জামাল
এপ্রিল ১৯, ২০১৬

কেএফসি স্বাধীনতা কাপের সেমিফাইনালে উঠেছে শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব। আজ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে মুক্তিযোদ্ধাকে ৩-১ গোলে হারিয়ে সেমি নিশ্চিত করে তারা। ‘এ’ গ্রুপে চার ম্যাচ শেষে ১২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে শেখ জামাল।
এ হারে মুক্তিযোদ্ধা ও চট্টগ্রাম আবাহনীর অর্জন ৯ পয়েন্ট। তবে গোল গড়ে এগিয়ে থাকায় দ্বিতীয় স্থানে চট্টগ্রাম আবাহনী। চ. আবাহনী শেষ ম্যাচে শেখ জামালের বিপক্ষে ড্র করলেই সেমির টিকিট নিশ্চিত হবে।
শেষ ম্যাচে মোহামেডান ব্রাদার্সকে হারালে ও চট্টগ্রাম আবাহনী হারলে সেক্ষেত্রে মোহামেডান, চট্টগ্রাম আবাহনী ও মুক্তিযোদ্ধার মধ্যে গোল গড়ে এগিয়ে থাকা দল ‘এ’ গ্রুপের দ্বিতীয় দল হিসেবে সেমিফাইনালে খেলবে।
এদিন ম্যাচের প্রথমার্ধেই ৩-০ গোলের লিড নেয় শেখ জামাল। টানা তিন জয়ের ধারায় থাকা মুক্তিযোদ্ধা জামালের তিন ফরোয়ার্ডের কাছেই মূলত ধরাশায়ী হয়েছে। ১২ মিনিটেই দলকে এগিয়ে নেন নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড এমেকা ডার্লিংটন। আনিসুল আলম সুইট ক্রসে বল পেয়েছিলেন ওয়েডসন এনসেলমে। ওয়েডসনের কাট ব্যাক থেকে প্লেসিংয়ে গোল করেন এমেকা।
পুরো ম্যাচেই শেখ জামালের আধিপত্য ছিল। ৪৩ মিনিটে ওয়েডসন এনসেলমে ডান প্রান্ত দিয়ে বল নিয়ে বক্সে প্রবেশ করে কয়েকজন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে শট নেন। গোলরক্ষক মামুন খান সেভ করেন। ব্যবধান দ্বিগুণ হয় এক মিনিট পরেই। এনামুল থেকে ওয়েডসন এমেকা এরপর ল্যান্ডিংয়ের শটে গোলরক্ষক পরাস্ত। প্রথমার্ধের ইনজুরি মিনিটে বক্সের বা পাশ থেকে জোরালো কোনাকুনি শটে গোল করেন ওয়েডসন। বিরতির পর তিন মিনিটেই ম্যাচে ফেরার সুযোগ পায় মুক্তিযোদ্ধা।
৪৮ মিনিটে তৌহিদুল আলম তৌহিদকে বক্সের মধ্যে ফাউল করেন জামালের সুইট। রেফারি জসিমউদ্দিন পেনাল্টির নির্দেশ দেন। পেনাল্টি থেকে ব্যবধান কমান মিডফিল্ডার মোবারক হোসেন ভূইয়া। দ্বিতীয়ার্ধে আর কোনও গোল হয়নি।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :