রাত ১২:০৭, মঙ্গলবার, ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / রিয়াল সোসিয়াদের কাছে বার্সার হার
রিয়াল সোসিয়াদের কাছে বার্সার হার
এপ্রিল ১০, ২০১৬

এল ক্লাসিকোর পর রিয়াল সোসিয়েদাদের কাছে আরেকটি ধাক্কা খেল মেসির বার্সেলোনা। প্রতিপক্ষের মাঠে ১-০ গোলে হেরে যায় বর্তমান চ্যম্পিয়নরা। আর এ হারে শিরোপার লড়াইয়ে বড় ধাক্কাই খেলো এনরিকের শিষ্যরা।

মৌসুমের শুরু থেকে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলা বার্সেলোনা আরেকটি ধাক্কা খেলো। লা লিগায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারের পর শনিবার রিয়াল সোসিয়েদাদের মাঠে একমাত্র গোলে হেরে গেছে বর্তমান চ্যম্পিয়নরা।

লিগে বার্সেলোনার টানা দুই হারের সুযোগে ব্যবধান কমিয়ে শিরোপা লড়াই জমিয়ে ফেলেছে রিয়াল মাদ্রিদ ও আতলেতিকো মাদ্রিদ। লুইস এনরিকের দলের চেয়ে আতলেতিকো ৩ ও রিয়াল ৪ পয়েন্ট পিছিয়ে; হাতে আছে আরও ছয়টি ম্যাচ।

প্রতিপক্ষের মাঠে ম্যাচের শুরুতেই গোলের সুযোগ নষ্ট করে সুয়ারেসের বদলে খেলতে নামা মুনির এল হাদ্দাদি।  ডি-বক্সের ভেতর অনেকটা ফাঁকায় বল পেয়েও গোল করতে পারেননি এই তারকা। তবে এর পরের মিনিটেই প্রথম সুযোগেই গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে নেন মিকেল ওইয়ারসাবাল।

messi

ম্যাচের ২২ মিনিটে মেসির ফ্রি-কিক রক্ষণ দেয়ালে ফিরলে হতাশায় ডুবে বার্সা। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে মুনিরের পাস থেকে আর্দা তুরানের জোরাল শট এক খেলোয়াড়ের পায়ে লেগে ফিরলে সমতায় ফেরার আরেকটি সুযোগ হারায় বার্সেলোনা। ফলে ১-০ গোলে পিছিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় বার্সা।

বিরতি থেকে ফিরে একের পর এক আক্রমণে উঠে আসে গোলের জন্য মরিয়া বার্সেলোনা। ম্যাচের ৫৬ মিনিটে ইনিয়েস্তার শট দারুণ দক্ষতায় ঠেকান গোলরক্ষক। ম্যাচের ৭৩ মিনিটে খুব কাছ থেকে গোল করতে পারেননি মেসি। আর ৮৫ মিনিটে মেসির হেড ঠেকিয়ে স্বাগতিক গোলরক্ষক ঠেকিয়ে দিলে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় মেসির বার্সাকে।

উল্লেখ্য, সোসিয়েদাদ ২০১১ সালে আবার স্পেনের শীর্ষ লিগে ফেরার পর তাদের মাঠে কোনো ম্যাচ জিততে পারল না বার্সেলোনা। সান সেবাস্তিয়ানে সবশেষ ছয় ম্যাচের পাঁচটিতেই হারল মেসিরা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :