দুপুর ২:২৫, সোমবার, ২৭শে মার্চ, ২০১৭ ইং
/ আইপিএল / মুস্তাফিজের থেকেও ভয়ঙ্কর হতে পারি: বোল্ট
মুস্তাফিজের থেকেও ভয়ঙ্কর হতে পারি: বোল্ট
এপ্রিল ২৮, ২০১৬

টাইগার পেসার মুস্তাফিজের জন্য ডাগআউটে বসে অলস সময় পার করছেন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। তাতে কিছুটা বিরক্ত হয়েই জানালেন, ‘মুস্তাফিজ দলের সেরা বোলার, তবে সুযোগ পেলে তার থেকেও ভয়ঙ্কর হতে পারি।’ কিউই এ পেসার টি-টোয়েন্টির সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন পাকিস্তানের বিপক্ষে ২২ জানুয়ারি। এরপর বিশ্বকাপের স্কোয়াডে থাকলেও একটি ম্যাচও খেলা হয়নি বোল্টের। ভারতের মাটিতে বিশ্বকাপের আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে খেলেছিলেন ওয়ানডে বিশ্বকাপের সেরা বোলার বোল্ট।
এবারের হায়দ্রাবাদের দলটিতে বোল্টের মতো পেসার রয়েছেন মুস্তাফিজ, বারিন্দ্রার স্রান, ভুবনেশ্বর কুমার, আশিষ নেহারার মতো তারকারা। এই চার পেসারকেই হায়দ্রাবাদের হয়ে মাঠে নামতে দেখা গেলেও এখনও সুযোগ পাননি বোল্ট। এ প্রসঙ্গে তিনি জানান, দলের কোয়ালিটি নিয়ে আমার কোনো সন্দেহ নেই। দুর্দান্ত একটি দল খেলছে। যেখানে মুস্তাফিজ দলের সফল বোলার। ভুবনেশ্বর অসাধারণ বল করছে। নেহারার মতো অভিজ্ঞ বোলার ফিরে এসেছেন।
মুস্তাফিজের সঙ্গে তার মিল কোথায় কিংবা দুই বোলারের মাঝে কোনো ভিন্নতা রয়েছে কি না-এমন প্রশ্নের জবাবে বোল্ট জানান, আমরা দু’জনই ভিন্ন ধরনের বোলার। মুস্তাফিজ যেকোনো সময় বলের গতির পরিবর্তন করতে পারে, তার স্কিল অসাধারণ। তার ইয়র্কারগুলো সত্যিই ভয়ঙ্কর। তবে, সুযোগ পেলে আমিও ভয়ঙ্কর হয়ে দেখা দেবো।
আইপিএলের আসরে সুযোগ পেলে তা কিভাবে কাজে লাগাবেন এমন প্রশ্নে বোল্ট যোগ করেন, আমাদের আর কিছু ম্যাচ বাকি আছে। যদি সুযোগ হয় নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব। আমার যে সুইংগুলো আছে, সেগুলো কাজে লাগিয়ে উইকেট তুলে নিয়ে দলকে সাহায্য করব। মুস্তাফিজের মতো বোলাররা যেভাবে হায়দ্রাবাদের দলটিকে টেনে তুলছে, আমারও চেষ্টা থাকবে সেভাবে দলকে সাহায্য করা।
হায়দরাবাদের হয়ে ছয় ম্যাচে ৭ উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজ। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে ৪ ওভারে মাত্র ৯ রান খরচায় নেন দুই উইকেট। সে ম্যাচে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কারও পেয়েছিলেন তিনি। নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে নিষ্প্রভ ছিলেন এই কাটার মাস্টার। আসরে প্রথমবারের মতো তিনি ছিলেন উইকেটশূন্য। তার নিষ্প্রভতার দিনে দলও হেরেছে রাইজিং পুনের কাছে। প্রথম দুই ম্যাচ আর শেষের ম্যাচটি হেরে গেলেও মাঝের টানা তিন ম্যাচ জিতেছিল হায়দ্রাবাদ।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :