রাত ৪:২৭, রবিবার, ১৯শে আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / ব্যাটিং অর্ডার বদলে দিয়েছে ‘ছক্কা’ নাইমকে
ব্যাটিং অর্ডার বদলে দিয়েছে ‘ছক্কা’ নাইমকে
এপ্রিল ১৭, ২০১৬

বাংলাদেশ দলে কোন জিনিসটার বড় অভাব? উত্তর আসবে মিডল অর্ডারে নেই কোনো হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান। টি-টোয়েন্টি তো বটেই ওয়ানডে দলে লং হ্যান্ডেলে ব্যাট চালানোর মতো একজন থাকলে স্বীকৃত ব্যাটসম্যানকে রান তোলায় তাড়াহুড়ো কিংবা ঝুঁকি না নিলেও চলে। মোহাম্মদ রফিক যেমন একটা সময় বাংলাদেশকে বোলিংয়ের পাশাপাশি ব্যাটিংয়ে এই সার্ভিসটা দিয়ে গেছেন।|
দ্রুত রান ‍চাই, ছক্কা চাই? রফিককে নামাও। এ জন্য মাঝে মাঝে হঠাৎ করেই ব্যাটিং অর্ডার বদল হতো রফিকের। ৬-৭ নম্বর থেকে ওপেনিংয়েও আসতেন এ বাঁহাতি অলরাউন্ডার। রফিকের অভাবটা পূরন করতে পারতেন নাইম ইসলাম। শুরুটা ছিল তেমনি সম্ভাবনার। রফিকের মতো মেরে খেলতেই পছন্দ করতেন। প্রিমিয়ার লিগে ৬ বলে ৬টা ছক্কার রেকর্ড নাইমেরই।
২০০৯-১০ মৌসুমে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে মোহামেডানের মার্শাল আইয়ুবের করা ৪৯তম ওভারে রেকর্ডটি করেন গাজী ট্যাংকের ক্রিকেটার নাইম ইসলাম। তারপরও আফসোস রয়েই যায় নাইমের। কারণ এক ওভারে ছয় ছক্কার রেকর্ড গড়েও দলকে জেতাতে পারেননি তিনি। তারও আগে বাংলাদেশের হয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পর পর তিন ছক্কা হাঁকিয়ে নিজের জাত চিনিয়েছিলেন। তারও আগে থেকে অবশ্য তাকে ‘ছক্কা নাইম’ ডাকা হয়। দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে ডেল স্টেইনকে ছক্কা মারায় নাইমকে ‘ছক্কা নাইম’ ডাকা শুরু করেন সাকিব আল হাসান। সেই থেকেই নাইম হয়ে যান ‘ছক্কা নাইম’।
নাইমের ব্যাটে এখন ছক্কা কমই দেখা যায়। উড়িয়ে মারার প্রবনতাও লক্ষ্য করা যায় না। মাটিতেই খেলেন বল। ব্যাটিং পজিশন এখন যে জায়গায় তাতে উড়িয়ে মারা তার দরকারও পড়ে না। ব্যাটিং যে করেন ৪-৫ নম্বরে। মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানের কাছে ধুম-ধাড়াক্কা ক্রিকেট আশা করাও তো বেমানান, ‘ আগে যখন আমি ব্যাটিং করতাম সাত-আটে। তখন ৬-৭ ওভার থাকতো তখন গিয়ে নিশ্চয়ই কেউ এক-এক করে খেলবে না। এখন ব্যাটিং করি ৪-৫ এ। এই পজিশনে নেমে যদি ছক্কা মারতে যাই তাহলে সবাই বোকা বলবে।’
সেই শটগুলোকে মিস করেন না? নাইমের উত্তর-‘সেই শটগুলো খেলতে চেষ্টা করি। যদি বল পাই। আমি চাই উপরে ব্যাট করতে। উপরে ব্যাট করতেই ভালো লাগে।’
মাঝে কিছু সময় বাংলাদেশের হয়ে ৪-৫ নম্বরেও নিজেকে প্রমাণ করেছেন অলরাউন্ডার নাইম ইসলাম। কিন্তু ধারাবাহিকতা না থাকায় বাদ পড়েন দল থেকে। ২২ এপ্রিল থেকে শুরু হতে ‍যাওয়া প্রিমিয়ার লিগে ভালো করে আবার জাতীয় দলে ফেরার বাসনা নাইমের।
এ জন্য মনোযোগ ধরে রাখতে চান কেবল পারফরম্যান্সে, ‘ঘরোয়া লিগগুলো যে হচ্ছে এগুলো কামব্যাক করার জন্য মেইন স্টেপ (প্রধান ধাপ)। চাইলেই আমি কামব্যাক করতে পারবো না। আমার হাতে শুধু পারফরম্যান্স আছে। আমি যদি পারফর্ম করে যাই…তারপর যারা টিম সিলেক্ট করে কাজটা তাদের। আমি যদি এখানে ভালো খেলি অটোমেটিক্যালি আমি ডাক পাব। আর আমি যদি ডাক পাওয়ার জন্য ভালো খেলতে যাই নিজের মধ্যে একটা চাপ হবে।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :