সকাল ৭:০০, সোমবার, ২১শে আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ হকি / ঊষা ও মেরিনার্সের জয়
ঊষা ও মেরিনার্সের জয়
এপ্রিল ২৬, ২০১৬

ক্লাব কাপ হকির প্রথম দিনে আবাহনী ও মোহামেডানের দুইরকম অভিজ্ঞতা হলেও দ্বিতীয় দিন প্রত্যাশিত জয় পেয়েছে গত আসরের যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন ঊষা ক্রীড়া চক্র ও মেরিনার্স ইয়াংস ক্লাব। আজ মঙ্গলবার মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে প্রথম ম্যাচে ঊষা ক্রীড়া চক্র ৫-০ গোলে অ্যাজাক্স এসসিকে ও দ্বিতীয় ম্যাচে মেরিনার্স ইয়াংস ক্লাব ৯-০ গোলে সাধারণ বীমাকে হারায়।

জার্মান কোচ পিটার গেরহার্ড মেরিনার্সের জন্য সঙ্গে নিয়ে এসেছেন কেনিয়ান গোলকিপার লিনাস কিপকেমরই, জার্মান ডিফেন্ডার ডাম্বোস্কি নিকোলাই হেইঞ্চ ও ফরোয়ার্ড ওকিও উইলসকে। সে কারণেই এদিনের প্রধান আকর্ষণ ছিল মেরিনার্সের তিন বিদেশি খেলোয়াড়। সাধারণ বীমার দেশি খেলোয়াড়দের বিপক্ষে মেরিনাসের্র তিন বিদেশি খেলায় এমনিতেই পার্থক্য হয়েছে। আর বীমার খেলোয়াড়রা তেমন পারদর্শী নয় বিধায় মেরিনার্সের খেলোয়াড়দের সামর্থ পরখ করা যায়নি।

মেরিনার্সের ডিফেন্স লাইন এমনিতেই শক্তিশালি। মামুনুর রহমান চয়ন ও আশরাফুলের মতো পিসি স্পেশালিস্টকে দলে ভিড়িয়েছে তারা। তার ওপর যোগ হয়েছেন নিকোলাই। একটি ফিল্ড গোলও করেন তিনি। চয়নের সঙ্গে সকলের বোঝাপড়াটা বেশ ভালোই হয়েছে।

তবে ফরোয়ার্ডে ওকিও উইলসের অ্যাডজাস্টমেন্টে কিছুটা সমস্যা ছিল। রিমন কৌশিক রাব্বিদের সঙ্গে জোগানটা শতভাগ দিতে পারেননি ওকিও। আর কিপার লিনাসের অভিজ্ঞতা বুঝাই যায়নি। কারণ পুরো খেলায় সাধারণ বীমার হাতে গোনা কয়েকটি আক্রমণই করতে পেরেছে। যেগুলো ডিফেন্স ভেদ করে গোলকিপার পর্যন্ত পৌঁছায়নি। দুটি পিসি পেলেও তেমন কোনও আক্রমণ করতে পারেনি বীমার ফরোয়ার্ডরা। প্রথমার্ধের শেষ পাঁচ মিনিটে ৩ গোল হজম করে বীমা। দ্বিতীয়ার্ধে পুরো ছন্দে থেকে ৯-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে মেরিনার্স। পিসি থেকে আশরাফুল ইসলাম ও চয়ন দুটি করে গোল করেন। রিমন কুমার দুটি, কৌশিক, রাজু আহমেদ তপু ও নিকোলাই একটি করে ফিল্ড গোল করেন।

প্রথম ম্যাচে ঊষার জয় ছিল একপ্রকার নিশ্চিতই। জাতীয় দলের বেশিরভাগ তারকাকেই দলে ভিড়িয়েছে ঊষা। দেশি খেলোয়াড়দের নিয়ে টেক্কা দেয়ার মতো অবস্থাও তৈরি করেছেন কোচ মামুনুর রশীদ। যেহেতু তাদের প্রতিপক্ষ অ্যাজাক্স, সেহেতু গতকাল তারা মাঠে একটু পরীক্ষা- নিরীক্ষাও চালিয়েছে। দুর্বল প্রতিপক্ষ বলেই এই সুযোগ নেওয়া। বিশেষ করে পিসি ভ্যারিয়শন কাজ করে স্বার্থকও হয়েছেন তিনি। তবে আরও মনোযোগ দিতে চান কোচ। ৭টি পিসি থেকে গোল এসেছে মাত্র তিনটি। যেটি থেকে গোল করেন হাসান যুবায়ের নিলয় (২) ও মাহবুব হোসেন। এছাড়া দুটি ফিল্ড গোল করেন পুস্কর ক্ষিসা মিমো ও মিঠুন। শেষ পর্যন্ত অ্যাজাক্সের বিপক্ষে ৫-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ঊষা ক্রীড়া চক্র।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :