রাত ১২:৪৬, বুধবার, ২৫শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সেলোনার গোল উৎসব
মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সেলোনার গোল উৎসব
মার্চ ৪, ২০১৬

রায়ো ভায়েকানোর মাঠে মেসির হ্যাটট্রিকের সুবাদে গোল উৎসবে মেতেছে বার্সেলোনা। আর্জেন্টাইন এই ফরোয়ার্ডের আসাধারণ নৈপুণ্যে ভায়েকানোকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বার্সেলোনা।
আর এই জয়ের মধ্যে দিয়ে নিজেদের শীর্ষস্থান আরো মজবুত করলো বার্সেলোনা। সেই সঙ্গে ৩৫ ম্যাচের মধ্যে ২৯টি জয়, ৬টিতে ড্র করে তালিকার শীর্ষে অব্স্থান করছে এই ক্লাবটি।
বৃহস্পতিবার রাতে খেলা শুরুর মাত্র ২২ থেকে ২৩, দুই মিনিটেই ভায়েকানোর জালে দুবার বল জড়ায় বর্সেলোনা। বার্সার রবার্তোর উচু ক্রস লাফিয়ে উঠে ধরতে গিয়েছিলেন ভায়েকানোর গোলরক্ষক কার্লোস মার্টিন, কিন্তু বল নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেননি। সামনেই জটলার ভেতর দাঁড়ানো ইভান রাকিটিচ ফাঁকা পোস্টে বল জড়াতে কোনো ভুল করেননি।
পরের মিনিটে মেসি ও নেইমারের দারুণ বোঝাপড়ায় স্কোরলাইন ২-০ করে ফেলে বার্সেলোনা। মেসি মাঝমাঠ থেকে বল টেনে নিয়ে গিয়ে বাড়ান নেইমারকে। ভায়েকানোর এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে নেইমার আবার পাস দেন বক্সের ভেতরে চলে আসা মেসিকে। জোরালো শটে গোলরক্ষককে ফাঁকি দেন আর্জেন্টিনা ফরোয়ার্ড।
বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে বড় ধাক্কা খায় ভায়েকানো। ৪২ মিনিটে রাকিটিচকে ফাউল করে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন ভায়েকানোর স্প্যানিশ সেন্টার ব্যাক হাভিয়ের লিওরেন্তো রিওস। ১০ জনের দলে পরিণত হওয়া দলটিকে দ্বিতীয়ার্ধে আরো চেপে ধরে অতিথিরা।
দ্বিতীয়ার্ধের ৫৩ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলে স্কোরলাইন ৩-০ করেন মেসি। অবশ্য গোলটি পেতে পারতেন লুইস সুয়ারেজ। ডানদিক থেকে রবার্তোর বিপজ্জনক ক্রস বিপদমুক্ত করতে চেয়েছিলেন ভায়েকানোর এক ডিফেন্ডার, কিন্তু পারেননি। সামনেই দাঁড়ানো সুয়ারেজের শট পোস্টে লেগে ফিরে আসে। ফিরতি বলে মেসির শট ভায়েকানোর জাল খুঁজে নেয়।
চার মিনিট পরেই অবশ্য একটি গোল শোধ করেন ভায়েকানোর গনকালভেস। বক্সের ভেতর উড়ে আসা বলে পোস্টের কোণা থেকে হেড করেন ম্যানুয়েল কোরেয়া। সেই বলটিই হেডে ফাঁকা জালে জড়িয়ে দেন গনকালভেস।
৬৭ মিনিটে নেইমারের ফ্রি-কিক ক্রসবার লাগলে গোলবঞ্চিত হয় বার্সেলোনা। সেখানে বক্সের ভেতরই বুসকেটসকে ফাউল করে লাল কার্ড দেখেন ভায়েকানোর উরুতিয়া। পেনাল্টি পায় বার্সা। তবে পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন সুয়ারেজ। উরুগুইয়ান স্ট্রাইকারের শট ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক মার্টিন।
৭২ মিনিটে মেসি হ্যাটট্রিক পূরণ করেন। বার্সা এগিয়ে যায় ৪-১ গোলে। মাঝমাঠ থেকে বুসকেটসের বাড়ানো বল ধরে ভায়েকানোর এক খেলোয়াড়কে কাটিয়ে বক্সের সামনে নিয়ে যান মেসি। সেখান থেকে বাঁ পায়ের শটে বল জালে জড়িয়ে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন পাঁচবারের ফিফা বর্ষসেরা এই খেলোয়াড়।
এরপর ৮৬ মিনিটে আরদা তুরানের গোলে শেষ পর্যন্ত ৫-১ গোলের বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে অতিথিরা। এই জয়ে ২৭ ম্যাচে বার্সার পয়েন্ট বেড়ে হলো ৬৯। সমান ম্যাচে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ৬১ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় ও রিয়াল মাদ্রিদ ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :