রাত ২:৫২, শনিবার, ১৭ই নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ / মাশরাফিকে নিয়ে বিশ্বমিডিয়ার অপপ্রচার
মাশরাফিকে নিয়ে বিশ্বমিডিয়ার অপপ্রচার
মার্চ ২৮, ২০১৬

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষে রোববার (২৭ মার্চ) সকাল ৯টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে বাংলাদেশে ক্রিকেট দল। এ সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে সফরের বিস্তারিত তুলে ধরেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।
আর সেটিকে ভুল ব্যাখ্যা করছে আন্তর্জাতিক কিছু সংবাদমাধ্যম। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা, আইসিসির বিরুদ্ধে মাশরাফি কথা বলেছেন, এমন অপবাদও দিতে ছাড়েনি সেই সব সংবাদমাধ্যমগুলো।
বিমানবন্দরে নেমে টাইগার দলপতি মাশরাফি জানান, ‘সামনে আমরা আরো ভালো করতে পারবো, এবারের বিশ্বকাপে মূলপর্বে আমরা কোনো ম্যাচ জিততে পারিনি। অনেকগুলো ক্লোজ ম্যাচ হয়েছে। দলের ক্রিকেটারদের মধ্যে জয় নিয়ে ফেরার যোগ্যতা রয়েছে। এবারের আসর থেকে দলের সবাই দারুণ কিছু শিখেছে, যা ভবিষ্যতে টি-২০ ফরম্যাটে ভালো খেলতে সাহায্য করবে।’
Cricket_sm_151828998
তিনি আরও জানান, ‘বিশ্বকাপের মেগা ইভেন্ট চলাকালীন আমরা বেশ বড় হোঁচট খেয়েছি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে আমাদের মধ্যে তাসকিন ও সানির শূন্যতা অনুভব হয়েছে। তারা থাকলে হয়তো আরও ভালো করতে পারতাম। অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের বিপক্ষে আমাদের জয় পাওয়াটা দরকার ছিলো।’
অথচ ইংল্যান্ডের জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম ‘মেইল অনলাইন’ তাদের শিরোনামে লিখেছে ‘বিশ্বকাপ থেকে বাংলাদেশের ছিটকে পড়ায় মাশরাফি আইসিসিকে দোষারোপ করছে’।
ঠিক এমনসব শিরোনাম দিয়েই খবর ছেপেছে আরও কিছু সংবাদমাধ্যম। যার কোনো সত্যতা নেই, ভিত্তি নেই। নিজেদের বানানো রগরগে সব শিরোনাম দিয়ে মাশরাফির বিরুদ্ধে আইসিসিকে উস্কে দেওয়ার চেষ্টা করে তারা।
বিমানবন্দরে ম্যাশ সাংবাদিকদের জানিয়েছিলে, আমরা আগের থেকে আরও বেশি ভালো পারফর্ম করতে শিখেছি। বিশ্বের যেকোনো দলের বিপক্ষে এখন আমরা লড়াই চালিয়ে যেতে পারি।
অথচ, “বিশ্বমঞ্চ থেকে টাইগারদের বিদায় আইসিসির কারণেই হয়েছে: মাশরাফি”- এই শিরোনাম দিয়ে বাংলাদেশের সফল দলপতিকে হেয় করার চেষ্টা করে বেশ কিছু সংবাদমাধ্যম। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘এনডিটিভি’, ‘আইবিএন’, দক্ষিণ আফ্রিকার ‘সুপার স্পোর্টস’, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ‘গালফ টুডে’ এমন শিরোনাম দিয়ে মাশরাফির নামে অপপ্রচার চালাচ্ছে।
এছাড়া, নিউজইউনাইটেডডটকম, সৌদি গেজেট, এনভিএসটোয়েন্টিফোরডটকম, লেটেস্টনিউজ, এমআইডটকম, দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া, স্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডট কম ইত্যাদি সংবাদমাধ্যম এই অপপ্রচার চালাতে বেশ সক্রিয়।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :