রাত ১২:২৪, মঙ্গলবার, ২৭শে মার্চ, ২০১৭ ইং
/ এশিয়া কাপ / বাংলাদেশের সাফল্যে অবাক নন জাদেজা
বাংলাদেশের সাফল্যে অবাক নন জাদেজা
মার্চ ১, ২০১৬

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের দুর্দান্ত জয়টি একেবারেই অবাক করেনি অজয় জাদেজাকে। ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক এই তারকা মনে করেন, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ডের মতো দলগুলোর বিপক্ষে জিতে বড় দল হিসেবে নিজেদের আগেই প্রমাণ করেছে বাংলাদেশ। পাকিস্তানের একটি খেলার চ্যানেলে বিশ্লেষক হিসেবে কাজ করছেন এই সাবেক ভারতীয় তারকা। সেখানেই বাংলাদেশ প্রসঙ্গে বেশ উচ্ছ্বসিত দেখাল জাদেজাকে।
জাদেজা মুগ্ধ সাব্বির রহমানের ব্যাটিংয়েও। গত ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ২ রানে ২ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ যখন ধুঁকছে, ঠিক তখনই সাব্বিরের পাল্টা আক্রমণ। জাদেজার চোখে এটি ‘বীরত্ব’, ‘দলের বিপর্যয়ের মধ্যেও সাব্বির যেভাবে ব্যাট করল, তাকে বাহবা না দিয়ে পারা যায় না। খুব কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেও সে ছিল দারুণ ইতিবাচক। সে ব্যাটিং বীরত্ব দিয়ে কঠিন পরিস্থিতি জয় করেছে।’
জাদেজা বলেন, ‘বাংলাদেশ দলটা দারুণভাবেই দাঁড়িয়ে গেছে। দলটা কোনো বিশেষ খেলোয়াড়ের ওপর নির্ভরশীল নয়। নতুন নতুন খেলোয়াড় উঠে আসছে।’
মাশরাফি বিন মুর্তজার অধিনায়কত্ব নিয়েও মুগ্ধ জাদেজা, ‘মাশরাফির উপস্থিতিটাই বাংলাদেশের জন্য খুব বড় অনুপ্রেরণা। স্কোরকার্ডের দিকে তাকিয়ে দেখুন, ব্যাটে-বলে কিন্তু খুব বড় কোনো পারফরম্যান্স নেই তাঁর। কিন্তু বাংলাদেশের বোলিংয়ের সময় সবকিছু কী সুন্দর আর নিখুঁতভাবে নিয়ন্ত্রণ করল সে। মাশরাফিই দলের তরুণদের জন্য খুব বড় প্রেরণা।’
মুশফিকুর রহিমকে কিপিং থেকে সরিয়ে তরুণ নুরুল হাসানকে দলে নেওয়ার ব্যাপারটিও ইতিবাচক দৃষ্টিতে দেখেন জাদেজা। তিনি মনে করেন, এটা বাংলাদেশের নিজেদের একটা ভালো দল হিসেবে দাঁড় করানোর প্রচেষ্টারই অংশ, ‘মুশফিক কত বছর ধরে কিপিং করছে। সে কিপিংয়ে নির্ভরতা। কিন্তু সে দলে থাকতে তরুণ একজনকে কিপিংয়ের দায়িত্ব দেওয়াটাই তো ভবিষ্যৎ দৃষ্টির পরিচয়। এতে করে দুজনের মধ্যে প্রতিযোগিতা বাড়বে। মুশফিকের ছায়াতলে একজন নতুন কিপারকে তৈরি করার ব্যাপার হিসেবেও দেখতে পারেন এটিকে।’
সবশেষে মুস্তাফিজুর রহমান নিয়ে উচ্ছ্বাস ঝরেছে জাদেজার কণ্ঠে, ‘অসাধারণ বোলার সে। বলে কী অসাধারণ নিয়ন্ত্রণ! মুস্তাফিজদের মতো খেলোয়াড়দের উঠে আসাটা কিন্তু বাংলাদেশের ক্রিকেটের এগিয়ে যাওয়ারই প্রমাণ।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :