বিকাল ৪:৩৯, মঙ্গলবার, ২৩শে মে, ২০১৭ ইং
/ এশিয়া কাপ / বাংলাদেশ কঠিন প্রতিপক্ষ
বাংলাদেশ কঠিন প্রতিপক্ষ
মার্চ ৫, ২০১৬

এশিয়া কাপের এবারের আসরের প্রথম ম্যাচে শুরুতেই বাংলদেশের বোলিং তোপের সামনে অনেকটাই চাপে পড়ে টিম ইন্ডিয়া। মাশরাফি-আল আমিনদের আক্রমনাত্মক বোলিং দলীয় ৪২ রানে ভারতের তিন টপঅর্ডারকে সাজঘরে পাঠিয়ে দেয়।
তারপরেও সেই চাপ সামলে রোহিত শর্মা ও হারদিক পান্ডের ব্যাটে ভর করে শেষ পর্যন্ত খেলায় ফেরে ভারত। ম্যাচে টিম ইন্ডিয়া ৪৫ রানের জয়ও তুলে নেয়।
প্রথম ম্যাচের এমন পারফরমেন্সের কারণেই বাংলাদেশকে এশিয়া কাপের ফাইনালে কঠিন প্রতিপক্ষ বলে মনে করেন, ভারত দলের পরিচালক রবি শাস্ত্রী।
শনিবার এশিয়া কাপের ফাইনালের আগে ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে তিনি এভাবেই প্রতিপক্ষ হিসেবে বাংলাদেশকে চিহ্নিত করেন। সংবাদ সম্মেলনে রবি জানান, ‘আপনারা দেখেছেন প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ কতটা ভাল খেলেছে। যদিও আমরা শেষ পর্যন্ত জয় তুলে নিয়েছি। কিন্তু তারা নির্দিষ্ট একটি সময় পর্যন্ত আমাদের চাপে রাখে। মূল কথা বাংলাদেশ সহজ কোনো প্রতিপক্ষ নয়।’
এদিকে, পিচ বা উইকেট প্রতিটি ম্যাচেই বেশ গুরুত্ব পায়। সেই ধারাবাহিকতায় এই ম্যাচেও মিরপুরের উইকেট দু’দলের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ কেননা, উইকেট কেমন আচরণ করবে তার উপরে ম্যাচের ভাগ্য অনেকটাই নির্ভর করে।
তাই সঙ্গত কারণেই রবি’কে প্রশ্ন করা হয়, এশিয়া কাপে এখনও পর্যন্ত মিরপুরের উইকেট টি-টোয়েন্টির মতো আচরণ করেনি, তাছাড়া আপনার কী মনে হয় যে হার্ডহিটাররা এই উইকেটে সুবিধা পাবে? উত্তরে তিনি জানান, ‘দেখুন পিচ আমাদের হাতে নেই। আমাদের কাজ খেলে যাওয়া। তাই পিচ যেমনই হোক না কেন, আমরা আমাদের স্বাভাবিক খেলাটিই খেলবো।’
এদিকে, টুর্নামেন্টের শুরু থেকে ধারাবাহিক ভাবেই ভাল খেলে যাচ্ছেন ভারতের টপঅর্ডারের ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি। প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশর বিপক্ষে ব্যর্থ হলেও দ্বিতীয় ম্যাচে তার পাকিস্তানের বিপক্ষে ৪৯ ও তৃতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৫৬ রানের ইনিংস টিম ইন্ডিয়াকে জয় এনে দিয়েছে। আর রোহিত শর্মা বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলেছেন ৮৩ রানের ইনিংস। এদিকে, সুরেশ রায়না ও যুবরাজ সিং ধারাবাহিক আছেন রানের মাঝেই। যুবরাজ লঙ্কানদের বিপক্ষে খেলেছিলেন ৩৫, পাকিস্তানের বিপক্ষে অপরাজিত ১৩ আর বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলেছিলেন ১৫ রানের ইনিংস।
এমন বাস্তবতায় ফাইনালেও ভারত এই ক’জন ব্যাটসম্যানের উপর বেশি নির্ভর করবে সেটাই স্বাভাবিক। কিন্তু রবি শাস্ত্রী মনে করেন, ভারত এক বা দুজন খেলোয়াড় নির্ভর দল নয়। এখানে সবার সম্মিলত অংশগ্রহণেই দলটি ‘টিম ইন্ডিয়া’ নামে খ্যাত।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :