বিকাল ৫:৩৪, সোমবার, ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ / পরিসংখ্যান বলছে টাইগাররাই চ্যাম্পিয়ন
পরিসংখ্যান বলছে টাইগাররাই চ্যাম্পিয়ন
মার্চ ১৪, ২০১৬

বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে কি অসাধারণ পারফর্ম করেই না মূলপর্বে জায়গা করে নিল বাংলাদেশ। এক তামিম ইকবালের কাছেই পাত্তা পেল না নেদারল্যান্ডস, আয়ারল্যান্ড ও ওমান। ড্যাশিং এ ওপেনারের তিনটি ইনিংস ছিলো যথাক্রমে ৮৩ (অপ), ৪৭ ও ১০১ (অপ)। তবে বিশ্বকাপে এবারের আসরে কোন দল হাসবে শেষ হাসি? কার হাতে উঠছে ষষ্ঠ বিশ্বকাপের ট্রফি? টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসরের আগে ইতোমধ্যে বিভিন্ন আঙ্গিকে শুরু হয়ে গেছে জ্যোতিশ গননা। কেউ বলছে স্বাগতিক ভারতই জিতবে শিরোপা। কেউবা বলছে অস্ট্রেলিয়া জিতবে প্রথম ট্রফি। আবার কারও ধারণা চাকার ট্যাগ ভুলে শিরোপা যাবে দণি আফ্রিকার ঘরে। তবে পরিসংখ্যান কি বলছে?
এর আগে পাঁচটি বিশ্বকাপের মঞ্চে ক্রিকেট বিশ্ব দেখেছে পাঁচটি ভিন্ন দেশের জয়। পাঁচবার বিশ্বকাপ আয়োজন করেছে যথাক্রমে দণি আফ্রিকা (২০০৭), ইংল্যান্ড (২০০৯), ওয়েস্ট ইন্ডিজ (২০১০), শ্রীলঙ্কা (২০১২) ও বাংলাদেশ (২০১৪)।
দণি আফ্রিকায় প্রথম বিশ্বকাপ জিতেছে ভারত। পরের বার ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয় পাকিস্তান। এ দু’বারের পর থেকে শুরু হয় নতুন এক চমক। ২০১০ সাল থেকে শিরোপা জিতেছে আগেরবারের স্বাগতিক দেশগুলো। যেমন ২০০৯ সালে স্বাগতিক ছিলো ইংলিশরা। তারা পরের বার (২০১০) ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বকাপে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো কোনো বড় শিরোপা জেতে। ফাইনালে অস্ট্রেলিয়াকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারায় পল কলিংউডের দল। ২০১২ সালে শ্রীলঙ্কা বিশ্বকাপে ৩৩ বছর পর বিশ্বকাপের কোনো আসরে ট্রফি জেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কাইভ লয়েড আমলের পর ক্যারিবীয়দের এটিই ছিল বড় শিরোপা। ফাইনালে স্বাগতিক লঙ্কাকে কাঁদিয়ে ৩৬ রানে জয় পায় ড্যারেন স্যামির অধীনস্ত দলটি।
২০১৪ সালে বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব পায় বাংলাদেশ। কিন্তু পুরোনো রীতি ধরে রাখে শ্রীলঙ্কা। কারণ তারা আগেরবারের স্বাগতিক ছিল। মিরপুরের ফাইনালে ভারতকে ৬ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে শিরোপার স্বাদ পান লাসিথ মালিঙ্গার অধীনে কুমার সাঙ্গাকারা ও মাহেলা জয়াবর্ধনের মতো গ্রেটরা। লঙ্কানরা ১৯৯৬ সালে অর্জুনা রানাতুঙ্গার অধীনে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ জিতেছিলো। এরপর ওয়ানডে ও টি-২০ মিলিয়ে তিনটি ফাইনালের পর শিরোপা জেতে দলটি। এবারের আসরে তারাই ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন। পরিসংখ্যান যখন বলছে শেষ তিন টি-২০ বিশ্বকাপে আগেরবারের স্বাগতিক দল জিতেছে, তাহলে এবারের আসরে টাইগারদের শিরোপা জিততে আপত্তি কোথায়? আর ফর্মের বিচারেও এবারের আসরে কোনো দলই মাশরাফিদের খাটো করে দেখছে না। কারণ ক’দিন আগেই ঘরের মাঠে এশিয়া কাপে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মতো শক্তিশালী দলকে হারিয়ে ফাইনালে জায়াগা করে নেয় দলটি।
ইতোমধ্যেই বাংলাদেশকে নিয়ে হিসেব-নিকেশ শুরু করে দিয়েছে প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হতে যাওয়া পাকিস্তান। প্রথম পর্বের পারর্ফম দেখে নড়ে-চড়ে বসেছে আরেক প্রতিপ স্বাগতিক ভারতও।
এবারের আসরে সুপার টেন এর গ্রুপ-টু এ স্বাগতিক ভারত, পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।
এক নজরে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের বিস্তারিত সূচি :
১৬ মার্চ : বাংলাদেশ-পাকিস্তান (বিকেল সাড়ে ৩টা), ভেন্যু- ইডেন গার্ডেনস, কলকাতা।
২১ মার্চ : বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া (রাত ৮টা), ভেন্যু- এম চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম, বেঙ্গালুরু।
২৩ মার্চ : বাংলাদেশ-ভারত (রাত ৮টা), ভেন্যু- এম চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম, বেঙ্গালুরু।
২৬ মার্চ : বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড (বিকেল সাড়ে ৩টা), ভেন্যু- ইডেন গার্ডেনস, কলকাতা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :