বিকাল ৪:০৪, মঙ্গলবার, ২৮শে মার্চ, ২০১৭ ইং
/ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ / নাসির কেন উপেক্ষিত? উত্তর দিলেন মাশরাফি
নাসির কেন উপেক্ষিত? উত্তর দিলেন মাশরাফি
মার্চ ২২, ২০১৬

অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের কারণে দল থেকে ছিটকে পড়েছেন তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানি। তার ওপর পেটের পীড়ায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশ দলের একাদশের বাইরে ছিলেন সেরা ওপেনার তামিম ইকবাল। এমতাবস্থায় দলের নির্বাচকরা নাসির হোসেনকে একাদশে দলে নেবেন, এমনটাই হতো ভেবেছিলেন ভক্তরা।

কিন্তু না, সবাইকে চমকে দিলেন নির্বাচকরা। বিশ্বকাপের মাঝপথে দলে যোগ দেয়া শুভাগত হোমকে দলের এগারো জনের একজন বানালেন তারা। উপেক্ষিত রইলেন নাসির! তাই বাংলাদেশের ক্রিকেট মহলে প্রশ্ন উঠেছে, একাদশে নাসির কেন উপেক্ষিত? অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নাসির থাকলে ব্যাটিং-বোলিং দুই বিভাগেই দলের শক্তি যোগ হতো। বাংলাদেশ পেতে পারত আরো বেশি কিছু রান!

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে উইকেট শিকারের পর শুভাগত হোমের উচ্ছ্বাস (ফাইল ফটো)

এবার দেখে নেয়া যাক, নাসিরের বিকল্প শুভাগতর অলরাউন্ড পারফরম্যান্স। ব্যাটিংয়ে পাঁচে নামেন তিনি। ১০ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ১৩ রান আসে তার ব্যাট থেকে। অ্যাডাম জাম্পার বলে এলবিডল্ডিউর ফাঁদে পড়েন। বাংলাদেশের পক্ষে বল করতে আসেন সবার শেষে। বোলিংয়ে ২ ওভারে ৬.৫০ ইকোনোমি রেটে খরচ করেছেন ১৩ রান। ছিলেন উইকেটশূন্য।

অপরদিকে নাসির হোসেন সবশেষ ম্যাচ খেলেছেন বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে। অবশ্য নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি তিনি। ব্যাটিং-বোলিং দুই বিভাগেই ছিলেন ব্যর্থ। ব্যাট হাতে করেন ৭ বলে তিন রান। আর বোলিংয়ে ২ ওভারে ২৪ রান খরচায় নেন একটি উইকেট। যার ইকোনেমি রেট ১২।

তার পরেও একাদশে নাসির কেন নেই? এই প্রশ্নটা আরো একবার শুনতে হলো মাশরাফি বিন মুর্তজাকে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ শেষে এই প্রশ্নের উত্তরে বাংলাদেশের অধিনায়ক বলেন, ‘নিশ্চয়ই আমাদের পরিকল্পনায় নাসির আছে, থাকবেও। তবে একাদশের কম্বিনেশনের কথা আমাদের মাথায় রাখতে হয়। সেজন্যই অনেক সময় একাদশে সুযোগ মেলে না নাসিরের। আশা করছি, সে আগামীতে একাদশে জায়গা পেলে নিজেকে মেলে ধরবে।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :