দুপুর ১:৩০, সোমবার, ২৯শে মে, ২০১৭ ইং
/ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ / যেখানে অনুপ্রেরণা খুঁজছেন সানি
যেখানে অনুপ্রেরণা খুঁজছেন সানি
মার্চ ২৩, ২০১৬

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের অভিযোগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে আরাফাত সানি ও তাসকিন আহমেদকে। অতীতেও নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছেন বাংলাদেশের তিন ক্রিকেটার। তারা হলেন আব্দুর রাজ্জাক, সোহাগ গাজী ও আল-আমিন হোসেন।
এ তিনজনই ত্রুটি শুধরে আবার ফিরতে পেরেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। নিষেধাজ্ঞার কবল থেকে ফিরে আসায় শতভাগ সফল বাংলাদেশের বোলাররা। এখানেই ফিরে আসার অনুপ্রেরণা পাচ্ছেন বাঁহাতি স্পিনার আরাফাত সানি।
ব্যাঙ্গালুরু থেকে ঢাকায় ফিরে সে দৃষ্টান্তই তুলে ধরলেন সদ্য নিষিদ্ধ হওয়া ক্রিকেটার আরাফাত সানি, ‘আসলে এরকম নিষেধাজ্ঞা অনেক বোলারের উপরেই এসেছে। আমাদের রাজ্জাক ভাই, সোহাগ গাজী, আল-আমিনদের সাথে এমন হয়েছে। যেহেতু তারা সবাই ফিরতে পেরেছে, সে জন্য আমি অতটা চিন্তিত নই। আমিও হয়তো তাদের মতো করেই কামব্যাক করবো।’
বোলিং অ্যাকশন শুধরে আল-আমিন হোসেন বেশ দাপট নিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিং করে যাচ্ছেন। তবে, স্পিনারদের ক্ষেত্রে স্বাভাবিক বোলিং করাটা একটু কঠিনই। অ্যাকশন শুধরে এসে রাজ্জাক-গাজীরা আন্তর্জাতিক ম্যাচে পুরনো ফর্ম ফিরে পাননি। সানি কি পারবেন এমন কঠিন চ্যালেঞ্জে জয়ী হতে? সেটি জানতে অন্তত এক-দুই মাস সময় তো অপেক্ষা করতেই হবে।
ভারতের মাটিতে চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর শেষ না করেই দেশে ফিরলেন আরাফাত সানি। বিকেল ৪টা ১০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামেন তিনি।
বিশ্বকাপে দারুণ কিছু করে দেখানোর স্বপ্ন নিয়ে ভারত গিয়েছিলেন বাঁহাতি স্পিনার সানি। পাকিস্তানের বিপক্ষে দুই উইকেট তুলে টিম ম্যানেজমেন্টের আস্থার প্রতিদানও দিচ্ছিলেন ভালোভাবেই। কিন্তু এর আগে নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে বাছাইপর্বের ম্যাচে অবৈধ বোলিংয়ের অভিযোগ ওঠে সানির বিরুদ্ধে। ল্যাবে বোলিং পরীক্ষা দিয়েই নামেন পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে। এরপর পরীক্ষার ফলাফলে সবকিছু ওলট-পালট। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষেধাঞ্জার খড়গ নেমে আসে সানির ওপর। এখন হুমকির মুখে তার ক্রিকেট ক্যারিয়ার।
তাই ভারত থেকে এক রাশ হতাশা সঙ্গী করে দেশে ফিরতে হলো সানিকে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :