রাত ৩:১২, বুধবার, ১৭ই জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ এশিয়া কাপ / টিকিটের জন্য হাহাকার
টিকিটের জন্য হাহাকার
মার্চ ৫, ২০১৬

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার ফাইনালের টিকিটের হাহাকার পড়ে গেছে। শত চেষ্টা করেও কোথাও মিলছে না ক্রিকেট। এ নিয়ে সংর্ঘষের ঘটনাও ঘটেছে। শনিবার বিপুল সংখ্যক টিকেটপ্রত্যাশীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে আহত হয়েছে কয়েকজন। কয়েকজনকে পুলিশ আটক করলেও পরে ছেড়ে দেয়।
এই সংঘর্ষের কারণে শনিবার মিরপুর ১০ নম্বর সেকশনে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের (ইউসিবি) বুথে টিকেট বিক্রি চার ঘণ্টা দেরিতে শুরু হয়। বাংলাদেশ-ভারতের রোববারের ফাইনাল খেলার টিকেট কিনতে টিকেট এদিন সকাল থেকেই ছিল দীর্ঘ লাইন।
দুপুর ১২টায় টিকেট বিক্রি শুরুর কথা ছিল। কিন্তু বিসিবি থেকে তখন পর্যন্ত টিকেট পাঠানো হয়নি বলে বেসরকারি এই ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা জানান। এর মধ্যেই ‘টিকেট নাই’ এবং ‘জাল টিকেট বিক্রি হচ্ছে’ গুজব ছড়ালে বেলা পৌনে ১২টার দিকে লাইনে দাঁড়ানো টিকেট প্রত্যাশীদের মধ্যে ােভ দেখা দেয়।
Ticketing-2
মিরপুর থানার ওসি ভূইয়া মাহবুব হোসেন বলেন, “টিকেট বিক্রি শুরুর আগেই এক পর্যায়ে ব্যাংকে ইট নিপে এবং সড়কে গাড়ি ভাংচুর শুরু হলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে।”
প্রত্যদর্শীরা জানায়, টিকেট প্রত্যাশীরা টিকেট বিক্রিতে নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলে ুব্ধ হয়ে উঠলে পুলিশ কাঁদুনে গ্যাস ও রবার বুলেট ছুড়তে শুরু করে।
ওই সংঘর্ষের পর টিকেট বিক্রি আর শুরু হয়নি। কখন হবে, তার কোনো ঘোষণাও আসেনি ব্যাংকের কাছ থেকে।
এরপর বিকাল সোয়া ৪টার দিকে টিকেট বিক্রি শুরু হয়। এক ব্যক্তিকে শুধু একটি টিকেটই দেয়া হয় এবং তা শুধু দেড়শ টাকা দামের টিকেট। এক ঘণ্টার মধ্যে টিকেট বিক্রি শেষ হয়ে যায়, তখনও অনেকে লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন। এই লাইন ছিল দীর্ঘ। মিরপুর ১১ নম্বরের ৬ নম্বর সেকশনের সংশ্লিষ্ট ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি) ব্যাংকের সামনে ক্রিকেটপ্রেমীদের কোয়ার্টার মাইল লম্বা লাইন পড়ে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ মোতায়েন করেছিল প্রশাসন। শনিবার ব্যাংকের সামনে ঘুরে দেখা যায়, ফাইনাল ম্যাচের টিকিট পেতে ইউসিবির আশপাশে মানুষের ঢল নেমেছিল। ব্যাংকের সামনে থেকে টিকিট প্রার্থীদের লাইন ১০ নম্বর গোল চত্বরের কাছে পৌঁছে যায়। তিন ভাঁজের প্যাঁচানো লাইন সোজা মেলে ধরলে তা গোল চত্বর ছাড়িয়ে যাবে আরও দূর।
টি-টোয়েন্টির এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ-ভারত খেলা ঘিরে টাইগার সমর্থকদের ব্যাপক আগ্রহ দেখা দিয়েছে। টিকেট নিয়ে হাহাকার চলছে সর্বত্র।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :