দুপুর ২:৪৭, বৃহস্পতিবার, ২৫শে মে, ২০১৭ ইং
/ Top News / কে হচ্ছেন এশিয়া কাপের সেরা
কে হচ্ছেন এশিয়া কাপের সেরা
মার্চ ৬, ২০১৬

মিরপুরের হোম অফ ক্রিকেটে বাংলাদেশ-ভারত ফাইনালের মধ্য দিয়ে আজ পর্দা নামছে এশিয়া কাপের। কে হচ্ছেন এশিয়া কাপের সিরিজ সেরা? চলছে নানান বিশ্লেষণ। পুরো সিরিজ জুড়েই বোলাররা আধিপত্য ধরে রেখেছিল। তবে ব্যাটসম্যানরাও কম যান নি। এশিয়া কাপের বাছাইপর্বে ওমানের বিপক্ষে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাবর হায়াতের ব্যক্তিগত ১২২ রান সিরিজের সর্বোচ্চ রান। বাবর তিন ম্যাচে করেছেন ১৯৪ রান। তবে বাছাইপর্ব বাদ দিয়ে যদি শুধু মূলপর্বের হিসাব করা হয়, তবে পরিসংখ্যান অন্যরকম হয়ে ওঠে।
1ফাইনালের দুই প্রতিদ্বন্দ্বী বাংলাদেশ ও ভারতের দুই ব্যাটসম্যান এখন পর্যন্ত এই আসরের টপ স্কোরার। বাংলাদেশের পক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমানের। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ জয়ী ৮০ রানের ইনিংস তার। চার ম্যাচে সাব্বিরের মোট রান ১৪৪।
অপরদিকে ভারতের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস রোহিত শর্মার। বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ বাঁচানো ৮৩ রানের ইনিংস তার। চার ম্যাচ খেলে রোহিতের সংগ্রহ ১৩৭ রান। বোলারদের মধ্যে এখনো সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি সংযুক্ত আরব আমিরাতের আমজাদ জাভেদ। তিনি সাত ম্যাচে দখল করেছেন ১২টি উইকেট। তবে সবাইকে ছাপিয়ে গেছে বাংলাদেশের পেসার আল আমিন হোসেন। প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে নেন তিনটি উইকেট, দ্বিতীয় ম্যাচে আরব আমিরাতের বিপক্ষে একটি।
আর পরের শ্রীলঙ্কা আর পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের নাকনি চুবানি খাইয়ে দখল করেন তিনটি করে উইকেট। চার ম্যাচে তার শিকার ১০ উইকেট। আল আমিনের সাথে সমান সংখ্যক সাতটি উইকেট দখল করেছেন ভারতের অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া।
টি-টুয়েন্টির চার ছক্কার বিনোদনের ম্যাচে বোলারদের চমকপ্রদ বোলিংয়ে সিরিজ সেরার দিকে অনেকটা এগিয়ে রয়েছে বোলাররা। আজকের ফাইনালে দুটি উইকেট পেলেই আল আমিন হয়ে যাবেন সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি। সেদিক থেকে অনেকটা সিরিজ সেরার দৌড়ে এগিয়েই আছেন আল আমিন হোসেন। আর যদি সিরিজে ব্যাটসম্যানদের সেরা করা হয় সে ক্ষেত্রে সাব্বির, রোহিতের কথাই ভাবতে হবে। আজকের ফাইনাল ম্যাচে সাব্বির ৫০ করলেই ছুঁয়ে ফেলবে এশিয়া কাপের টপ স্কোরার বাবর হায়াতের রান। আর টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান ছুঁতে রোহিতের দরকার আজকের ম্যাচে ৫৭ রানের একটি ইনিংস। অপেক্ষার পালা শেষ হতে ক্রীড়ামোদীদের আর মাত্র কয়েক ঘন্টার প্রতিক্ষা, তারপরেই মাঠে ফাইনালের মঞ্চে বাংলাদেশ ভারতের মহারণের দামামা বাজবে।

কে হচ্ছেন সর্বাধিক রান ও উইকেট শিকারী
বাংলাদেশ-ভারতের ফাইনাল ম্যাচ দিয়ে আজ শেষ হচ্ছে এশিয়া কাপ টি-২০ টুর্নামেন্ট। এই আসরের মূলপর্ব থেকে সর্বাধিক রান সংগ্রাহকের দৌঁড়ে রয়েছেন বাংলাদেশের সাব্বির রহমান, শ্রীলঙ্কার দিনেশ চান্দিমাল, ভারতের রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলি।
তবে মূল ও বাছাইপর্ব মিলিয়ে সবার উপরে রয়েছেন আইসিসির সহযোগী দেশের তিন ব্যাটসম্যান। তিন ম্যাচে ৬৪’র বেশি গড়ে ১৯৪ রান নিয়ে সবার উপরে আছেন হংকংয়ের বাবর হায়াত। ৭ ম্যাচে ১৭৬ রান করে দ্বিতীয়স্থানে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মোহাম্মদ উসমান। সমান ম্যাচে ১৫১ রান করে তৃতীয়স্থানে রয়েছেন উসমানের স্বদেশী সাইমন আনোয়ার।
মূলপর্বের ম্যাচের সবার উপরে চান্দিমাল। চার ম্যাচে তিনি করেছেন ১৪৯ রান। সর্বোচ্চ ৫৮। দ্বিতীয়স্থানে রয়েছেন বাংলাদেশের সাব্বির রহমান। চার ম্যাচে সাব্বিরের সংগ্রহ ১৪৪ রান। 2সর্বোচ্চ করেছেন ৮০। এটি এবারের আসরে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের স্কোর। সেক্ষেত্রে আজ ফাইনালে ৬ রান করলেই মূলপর্বের সর্বোচ্চ স্কোরার হয়ে যাবেন সাব্বির। আর ৫১ রান করতে পারলেও মূল ও বাছাইপর্ব মিলে উঠে যাবেন একনম্বরে।
শীর্ষে ওঠার সুযোগ রয়েছে রোহিত শর্মারও। চার ম্যাচে ১৩৭ রান তার। আজকের ফাইনালে ৮ রান করলে সাব্বিরকে এবং ১৪ রান করলেও ছাড়িয়ে যাবেন চান্দিমালকে। আর টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ স্কোরার হতে ভারতীয় ওপেনারকে করতে হবে ৫৭ রান।
এই দৌঁড়ে রয়েছেন বিরাট কোহলিও। চার ম্যাচের তিন ইনিংসে দুই ফিফটিসহ তিনি করেছেন ১১২ রান। চান্দিমাল ছাড়াতে ৩৭ ও বাবর হায়াতকে টপকাতে ৮২ রান করতে হবে কোহলিকে।
দল আগেই বাদ পড়ায় টপ স্কোরার হওয়ার দৌঁড় থেকে ছিটকে পড়েছেন চান্দিমাল, তিলেকারত্নে দিলশান (১৩২), সরফরাজ আহমেদ (১২১) ও মোহাম্মদ শেহজাদ (১২৯)।
ব্যাটের মতো বলেও সেরার দৌঁড়ে রয়েছেন বাংলাদেশী এক তারকা। মূলপর্বের চার ম্যাচে ১০ উইকেট নিয়েছেন টাইগার পেসার। ৭ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয়স্থানে রয়েছেন ভারতের হার্দিক পাণ্ডেয়া। ৭ উইকেট নেওয়া পেসার মোহাম্মদ আমিরের দল পাকিস্তান আগেই বাদ পড়ায় সেরা হওয়ার সুযোগ থাকছে না তার।
এই দৌঁড়ে থাকা ফাইনাল খেলতে যাওয়াদের মধ্যে রয়েছেন শুধু আশিস নেহরা। তবে তার উইকেট সংখ্যা ৫। আল-আমিনকে ছাড়াতে ফাইনালে ৬ উইকেট পেতে হবে ভারতীয় পেসারকে।
তবে মূল ও বাছাইপর্ব মিলে ১২ উইকেট নিয়ে সবার উপরে রয়েছেন আরব আমিরাতের অধিনায়ক আমজাদ জাভেদ। সমান ম্যাচে ১১ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয়স্থানে জাভেদের সতীর্থ মোহাম্মদ নাভেদ।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :