রাত ৯:৩৩, বৃহস্পতিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / ওমানের বিপক্ষে বাংলাদেশ প্রত্যাশা ও সম্ভাবনা
ওমানের বিপক্ষে বাংলাদেশ প্রত্যাশা ও সম্ভাবনা
মার্চ ১৩, ২০১৬

এশিয়া কাপের রানার্সআপ দলকে বিশ্বকাপ টি-টোয়েন্টি`র সুপার টেনে যাওয়ার জন্য খেলতে হবে আইসিসির সহযোগী সদস্যদের সাথে, পরিস্থিতি বিচারে বিষয়টিকে কিছুটা হাস্যকর মনে হলেও তাই ঘটছে বাংলাদেশের নিয়তিতে। ক্রিকেটের এই ছোট ফরমেটটিতে পর্যাপ্ত ম্যাচ খেলতে না পারায় টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিং-এ এখনও ১০ নম্বরেই অবস্থান বাংলাদেশের। তবে টাইগাররা যে টি-টোয়েন্টিতেও সমীহ করার মত দল, তার প্রমাণ তারা দিয়েছে এশিয়া কাপেই। গত দেড় বছরে টেস্ট এবং বিশেষত ওয়ানডেতে ব্যাপক উন্নতির পর অধিনায়ক মাশরাফির কণ্ঠে ছিল টি-টোয়েন্টি ফরমেটেও এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়, যার প্রতিফলন ইতমধ্যেই পড়তে শুরু করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেটে।

প্রথম ম্যাচে নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে ৮ রানে জয় এবং আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে পরের ম্যাচটি বৃষ্টির কারণে ভেসে যাওয়ায় ৩ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষেই আছে বাংলাদেশ। তাই ওমানের বিপক্ষে আজকের ম্যাচটি জিতলে সুপার টেনে চলে যাবে বাংলাদেশ। আবহাওয়া অবশ্য খেলার ব্যাপারে খুব একটা শুভ সংকেত দিতে পারছে না। বৃষ্টির সম্ভাবনা প্রবল তো বটেই, পাশাপাশি তাপমাত্রা থাকতে পারে ২ থেকে ৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস। অবশ্য বৃষ্টিতে খেলা পরিত্যক্ত হলেও সমস্যা নেই বাংলাদেশের, +০.৪০ রান রেট নিয়ে এগিয়ে থাকায় খেলা না হলেও সুপার টেনে উঠে যাবে টাইগাররা। পাশাপাশি বৃষ্টির কারণে ওভার কাটা হলেও যে বাংলাদেশ ভয়ংকর রূপ ধারণ করতে পারে, সে আভাস কিন্তু মিলেছে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলা ৮ ওভারেই।

এর আগে ওমানের বিপক্ষে কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচ না খেলায় সতর্ক থাকছে বাংলাদশ। বাংলাদশের বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিক বলেছেন, “আমরা ওমানকে হালকাভাবে নিচ্ছি না। ওদের খেলার যথেষ্ট ফুটেজ আমাদের কাছে নেই, কিন্তু আমরা কঠোর প্রস্তুতি নিচ্ছি যেমনটা আমরা ভারত বা পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নিতাম।” তবে তামিম ইকবালের দুর্দান্ত ফর্ম আত্মবিশ্বাস নিয়ে এসেছে বাংলাদেশ শিবিরে, গত দুই ম্যাচে তার ৮৩ এবং ৪৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস ফর্মের তুঙ্গে থাকার ইঙ্গিতই দিচ্ছে। পাশাপাশি সাব্বির এবং মাহমুদউল্লাহও আছেন রানের মধ্যেই, পেসাররাও ভাল বল করছেন। দলের অন্যতম সেরা দুই ব্যাটসম্যান সাকিব ও মুশফিক কিছুটা ফর্মহীনতায় থাকলেও জ্বলে উঠতে মরিয়া যে কোন ম্যাচে।

তবে দারুণ ফর্মে থাকা তাসকিন এবং স্পেশালিস্ট স্পিনার সানির বোলিং অ্যাকশন সন্দেহযুক্ত হওয়ায় কিছুটা অস্বস্তি রয়েছে দলের মধ্যে। বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার সুযোগ না দেওয়া, ধর্মশালার মত প্রতিকূল পরিবেশে বাংলাদেশের খেলাগুলো আয়োজন করা, এমনকি কোন ‘রিজার্ভ ডে’ও না রাখার পর, দীর্ঘদিন ধরে খেলা বাংলাদেশের দুই বোলারের অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্ন করাটা কোন ষড়যন্ত্রের অংশ কিনা সেই প্রশ্ন থাকছেই। তবে সকল সন্দেহ কিংবা ষড়যন্ত্রের জবাব আরও একবার খেলার মাঠেই দিতে মরিয়া বাংলাদেশ, ইনজুরি থেকে ফিরে আসা পেসার রুবেলও প্রস্তুত দলের প্রয়োজনে পরিবর্তিত খেলোয়ার হিসেবে স্কোয়াডে যোগ দিতে।

আনন্দের বিষয় হচ্ছে, বাংলাদেশের খেলোয়াররা যে ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে জায়গা করে নিচ্ছেন তার একটি উদাহরণ পাওয়া গেল ধর্মশালার মাঠে। প্রধান কিউরেটর সুনিল চৌহান কাল তার বিশেষ এক মাথার ক্যাপে অটোগ্রাফ নিয়েছেন অধিনায়ক মাশরাফির। ক্যাপটি বিশেষ তার কারণ, এই ক্যাপে তিনি শুধু বিখ্যাত ক্রিকেটারদেরই অটোগ্রাফ নিয়ে থাকেন। শচীন টেন্ডুলকার, ইয়ান বিশপ, সুনীল গাভাস্কার, রিচি রিচার্ডসন, মাইকেল হোল্ডিংয়ের মত কিংবদন্তীর পাশে স্বাক্ষর করলেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। এটা যেন ক্রিকেটেও বাংলাদেশের উত্থানের একটি স্বাক্ষর হয়ে থাকল।

পরিসংখ্যান, আত্মবিশ্বাস কিংবা পারফরম্যান্স, যেকোন বিচারে অচেনা ওমানের বিপক্ষে এগিয়ে থাকছে বাংলাদেশ। সকল প্রতিকূলতাকে জয় করে আইসিসি এবং ক্রিকেট বিশ্বকে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার জানান দেওয়ার জন্যেও ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ বাংলাদেশের জন্য। তাই সুপার টেনের আগে অলিখিত ফাইনালে বাংলাদেশের জয়ের জন্যই তাকিয়ে থাকবে এদেশের অগণিত ক্রিকেট ভক্ত। তামিম-সাকিব, মুশফিক-সাব্বির কিংবা তাসকিন-মাশিরাফিরা পারবেন তো মাঠে সেই আস্থার প্রতিফলন ঘটাতে?



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :